বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
   * ঈদে ৭ দিন বন্ধ থাকবে বুড়িমারী স্থলবন্দর   * দেশে কমেছে কোটিপতির সংখ্যা   * গাবতলীতে যাত্রী বেশি হলেই ‘বাড়তি ভাড়া আদায়’   * স্থানীয় শিল্পের সুরক্ষায় গ্যাস-বিদ্যুৎ সরবরাহ বাড়ানোর দাবি   * শরিকদের কোন কোন মন্ত্রণালয় দিলো বিজেপি   * একমাত্র পশুহাট পরিচালনা করবে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভা নিজেই   * হজ পালনে সৌদির পথে পররাষ্ট্রমন্ত্রী   * তীব্র গরমে নাজেহাল পশ্চিমবঙ্গবাসী   * হাসপাতালে ভর্তি কিশোরীকে ধর্ষণচেষ্টা, যুবক গ্রেফতার   * ব্যাংক-জ্বালানি খাতের মতো রোগাক্রান্ত ফুসফুস মেরামতে বার্তা নেই  

   উপ-সম্পাদকীয়
  প্রশ্ন ফাঁস ও আমাদের ভূমিকা
  20, February, 2018, 1:25:27:AM

মেরুদণ্ড ছাড়া যেমন কোনো মানুষ দাঁড়াতে পারে না, ঠিক তেমনি শিক্ষা ছাড়া কোনো জাতি মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে পারে না। আর এ কারণেই বলা হয় ‘শিক্ষাই জাতির মেরুদণ্ড’। বর্তমান সময় এমন হয়েছে, শিক্ষিত জনগোষ্ঠী জাতির মেরুদণ্ডকে ভেঙে দিতে চায়। তাই বর্তমান সময়ের পরিপ্রেক্ষিতে অনেকেই বলতে বাধ্য ‘সুশিক্ষাই জাতির মেরুদণ্ড’। কারণ, সব শিক্ষা জাতিকে উঁচু করে দাঁড় করাতে পারে না। শিক্ষার অপব্যবহারের ফলে জাতি আজ দুর্নীতিগ্রস্ত, লিপ্ত অন্যায় অপরাধে। লিপ্ত প্রশ্নপত্র ফাঁসে।

পরীক্ষা মেধাবী শিক্ষার্থী গঠন ও বাছাইকরণের অন্যতম পন্থা। পরীক্ষার মাধ্যমে মানুষ সম্মানিত বা অপমানিত হয়। যারা কঠোর পরিশ্রম করে লেখাপড়া করে তারাই ভালো ফলাফল অর্জন করে, অথবা তারা ভালো ফলাফলের আশাবাদী। আমাদের দেশে এখন আর লেখাপড়া করতে হয় না। লেখাপড়া না করেও এ+ পাওয়ার আশা করে বসে থাকে। আর করবেই না কেন? পরীক্ষার আগে প্রশ্নপত্র হাতে পেলে আর লেখাপড়া করতে হয় নাকি? আরো আপডেটভাবে বলতে হয়, শুধু প্রশ্নপত্র নয়, এখন প্রশ্নপত্রের সঙ্গে মিলছে উত্তরপত্রও। যেমন : চলমান এসএসসি ও সমমান পরীক্ষা, বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা এবং বিভিন্ন নিয়োগ পরীক্ষায় সাম্প্রতিক সময়ে প্রশ্ন ফাঁসের ব্যাপক অভিযোগ রয়েছে। যে অভিযোগগুলো সত্য বটে।

১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ বাংলা প্রথম পত্রের বহুনির্বাচনী অভীক্ষার ‘খ’ সেট পরীক্ষার প্রশ্ন ও ফেসবুকে ফাঁস হওয়া প্রশ্নের হুবহু মিল ছিল। পরীক্ষা শুরুর এক ঘণ্টা আগেই তা ফেসবুকে পাওয়া যায়। ৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ সকালে পরীক্ষা শুরুর প্রায় ঘণ্টাখানেক আগে বাংলা দ্বিতীয় পত্রের নৈর্ব্যক্তিক (বহুনির্বাচনী) অভীক্ষার ‘খ’ সেটের উত্তরসহ প্রশ্নপত্র পাওয়া যায় ফেসবুকে। যার সঙ্গে অনুষ্ঠিত হওয়া প্রশ্নপত্রের হুবহু মিল পাওয়া যায়। ৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ পরীক্ষা শুরুর অন্তত দুই ঘণ্টা আগে সকাল ৮টা ৪ মিনিটে ইংরেজি প্রথম পত্রের ‘ক’ সেটের প্রশ্ন ফাঁস হয়। যার সঙ্গে অনুষ্ঠিত পরীক্ষার প্রশ্নপত্রের হুবহু মিল পাওয়া গেছে। ৭ ফেব্রুয়ারি বুধবার পরীক্ষা শুরুর অন্তত ৪৮ মিনিট আগে সকাল ৯টা ১২ মিনিটে ইংরেজি দ্বিতীয় পত্রের ‘খ’ সেটের প্রশ্নপত্রটি হোয়াটসঅ্যাপের একটি গ্রুপে পাওয়া গেছে। অনুষ্ঠিত হওয়া প্রশ্নপত্রের সঙ্গে যা হুবহু মিলে গেছে। ৮ ফেব্রুয়ারি হোয়াটসঅ্যাপের একটি গ্রুপে ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষার বহুনির্বাচনী অভীক্ষার ‘খ’ সেটের প্রশ্নপত্রটি পাওয়া যায়। এটিও অনুষ্ঠিত পরীক্ষার প্রশ্নপত্রের সঙ্গে হুবহু মিলে গেছে। ১০ ফেব্রুয়ারি সকাল ৮টা ৫৯ মিনিটে হোয়াটসঅ্যাপের একটি গ্রুপে গণিতের ‘খ’ সেটের প্রশ্নপত্রটি পাওয়া যায়, যা অনুষ্ঠিত পরীক্ষার প্রশ্নপত্রের সঙ্গে হুবহু মিলে যায়। এ ছাড়া আইসিটি বিষয়ের প্রশ্নপত্র রোববার সকাল ৮টা ৫১ মিনিটে হোয়াটসঅ্যাপের একটি গ্রুপে ‘ক সেট’ প্রশ্ন পাওয়া যায়। আর সকাল ৯টা ৩ মিনিটে ‘গ’ সেটের প্রশ্নও ফাঁস হয়।

তা ছাড়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশ্নপত্রও ফাঁস হওয়ার অভিযোগ ওঠে। শুধু তাই নয়, বরগুনায় দ্বিতীয় শ্রেণির প্রশ্নও ফাঁস হয়েছিল ১৪০টি স্কুলে। এ ঘটনায় পরীক্ষাও স্থগিত করা হয় ওইসব স্কুলে। বিগত বছরের ৬ অক্টোবর সিনিয়র স্টাফ নার্স পরীক্ষার প্রশ্নও ফাঁস হয়ে যায় বলে অভিযোগ ওঠে। এসব প্রশ্ন ফাঁস করা বা ফাঁসকারী কোনো শিক্ষিত মহল বা তৎসংশ্লিষ্ট কোনো গোষ্ঠী ছাড়া হাল-চাষরত ব্যক্তি নিঃসন্দেহে এতে জড়িত নয়। একটা শিক্ষিত সমাজ কীভাবে তার দেশের শিক্ষাব্যবস্থাকে ধ্বংসের দিকে ঠেলে দিচ্ছে। এ যদি হয় আমাদের লেখাপড়ার অবস্থা তাহলে দেশ ও জাতি এ রকম শিক্ষিত মানুষ থেকে কতটুকু উপকৃত হবে? কেমন হবে আমাদের আগামী শিক্ষিত প্রজন্ম? এ রকম শিক্ষিত লোক দিয়ে সমাজের মেরুদণ্ড ভেঙে দেওয়া ছাড়া মাথা উঁচু করে দাঁড় করানো অসম্ভব।

শিক্ষার মূল উদ্দেশ্যের মধ্যে অন্যতম একটি হলো, নৈতিক চরিত্রের উন্নতি সাধন। কিন্তু আমাদের সমাজে তা কি সম্ভব হয়েছে? উত্তর অবশ্যই না। যদি নৈতিক চরিত্রের উন্নতি হতো তাহলে প্রশ্ন ফাঁসের মতো এ রকম নিকৃষ্ট কাজে শিক্ষিত মহল জড়িত থাকত না। আগে নৈতিক চরিত্রের অধিকারী হতে হবে। আমাদের শিক্ষাব্যবস্থায় নৈতিকতাকে আরো গুরুত্ব দিতে হবে।

প্রশ্ন ফাঁস রোধ করতে না পেরে বিভিন্ন জন বিভিন্ন মত দিচ্ছেন। যার অনেকটা হাস্যকর বটে। শিক্ষামন্ত্রী প্রশ্নপত্র ফাঁস রোধে বলেছেন, এমসিকিউ পদ্ধতি তুলে দিতে। তাতে কি প্রশ্নপত্র ফাঁস রোধ হবে? হাত-পায়ে অ্যালার্জি বা চর্মরোগ হলে হাত-পা কেটে তা দূর করতে হয় না। উপযুক্ত চিকিৎসার মাধ্যমে তা নিরাময় সম্ভব। কারণ, হাত-পায়ে এখনো ক্যানসার হয়নি। সেটা উপযুক্ত কাজ নয়। কারণ, যারা প্রশ্ন ফাঁস করার তারা প্রশ্ন ফাঁস করবেই। সেটা পরীক্ষার দিন সকালে প্রশ্ন করলেও। বরং এসব অপরাধীদের তন্নতন্ন করে খুঁজে বের করে শাস্তির আওতায় এনে অত্যন্ত কঠোর হস্তে দমন করতে হবে। ক্ষত জায়গায় ওষুধ না দিয়ে ক্ষত জায়গা কেটে ফেললে রোগের উপশম হবে না।

শিক্ষাসচিব মো. সোহরাব হোসাইন বলেছেন, পরীক্ষার বর্তমান পদ্ধতিতে প্রশ্নপত্র ফাঁস হওয়া রোধ কোনোভাবেই সম্ভব নয়। পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র না ছাপিয়ে বই খুলে পরীক্ষা নেওয়ার চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে।

প্রশ্নপত্র ফাঁস রোধ সম্ভব নয় বললে এটা ব্যর্থতার ভাষা হিসেবে বোধগম্য হয়। তার মানে কী, আগে প্রশ্নপত্র ফাঁস ছাড়া পরীক্ষা হয়নি? অবশ্যই হয়েছে। আমরাও তো বাংলাদেশে লেখাপড়া করেছি। এই তো সেদিন দাখিল, আলিম, ফাজিল, অনার্স, মাস্টার্স, কামিল সমাপন করলাম। ২০০৩ সালে প্রথম পাবলিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করলাম। সে সময় তো আর প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়নি। শিক্ষার্থীরাও এ রকম কল্পনা করেনি। তাহলে এখন সম্ভব নয় কেন? প্রশ্ন ফাঁসকারীদের যেকোনো মূল্যে শনাক্ত করুন। এরা আমাদের সমাজেরই লোক। যারা প্রশ্ন ফাঁস করছে এরা কোনো না কোনোভাবে প্রশ্ন প্রণয়নে লিপ্ত। কঠোর হস্তে দমন করুন। কঠিন শাস্তির আওতায় আনুন। তখন প্রশ্ন ফাঁস রোধ অবশ্যই সম্ভব। তা না হলে ব্যর্থতার দায় স্বীকার করে উপযুক্ত মহলের কাছে দায়িত্ব হস্তান্তর করুন। এটাই এখন সময়ের একমাত্র দাবি।



       
   শেয়ার করুন
Share Button
   আপনার মতামত দিন
     উপ-সম্পাদকীয়
কোটা পদ্ধতি ছাত্রলীগ কী ভুল পথে হাটছে !
.............................................................................................
যাত্রীস্বার্থ সংরক্ষণে ব্যবস্থা নিন
.............................................................................................
দীপ জ্বালানোর নেই কোনো প্রহরী!
.............................................................................................
আমরা করব জয় এক দিন
.............................................................................................
প্রশ্ন ফাঁস ও আমাদের ভূমিকা
.............................................................................................
তারুণ্য কেন বিপথগামী সাবরিনা শুভ্রা
.............................................................................................
ট্রাম্পের অপরিণামদর্শী সিদ্ধান্ত
.............................................................................................
তোপের মুখে যুক্তরাষ্ট্র
.............................................................................................
কোচিং বাণিজ্য এবং...
.............................................................................................
আমাদের চিত্র-চরিত্র এবং...
.............................................................................................
মধ্যপ্রাচ্যে ইরান ও সৌদি আরব
.............................................................................................
গান্ধীর গুপ্তহত্যার জট কেন খোলে না?
.............................................................................................
সরকারের নজরদারি
.............................................................................................
হুমকির মুখে অস্তিত্ব
.............................................................................................
প্রশ্ন ফাঁস ও মেধাহীন প্রজন্ম
.............................................................................................
শহীদ নূর হোসেন দিবস : গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠার দিন
.............................................................................................
ঢেউ গুনতেও অর্থের সন্ধান!
.............................................................................................
অসহায় সন্তান বনাম অভিভাবক
.............................................................................................
প্রয়োজন বহুমুখী বৈশ্বিক অবরোধ
.............................................................................................
শীত অনুভূত হবে
.............................................................................................
বদলে যাচ্ছে ইউরোপীয় রাজনীতি
.............................................................................................
ভালোবাসাহীন সমাজ ও আমাদের তারুণ্য
.............................................................................................
‘ডুব’ নিয়ে ব্যস্ত তিশা
.............................................................................................
চাঁদে সুড়ঙ্গের হদিস, হতে পারে মানববসতি
.............................................................................................
পুলিশ আমাদের লজ্জা এবং
.............................................................................................
বোবা কান্নায় ভারী হচ্ছে দেশ
.............................................................................................
মোবাইল কোম্পানির প্রতারণা
.............................................................................................
প্রাথমিক শিক্ষার বেহাল দশা
.............................................................................................
চলমান সন্ত্রাস এবং আইএস প্রসঙ্গ
.............................................................................................
পথশিশু হোক ভবিষ্যৎ নির্মাণের অংশীদার
.............................................................................................
রোহিঙ্গা ইস্যুতে মিয়ানমারের পাশে চীন যে স্বার্থে
.............................................................................................
বাড়ছে মানুষ কমছে জমি
.............................................................................................
বিদায় হজ ও রোহিঙ্গা শিশুদের কান্না
.............................................................................................
মানুষ যখন নিজেকে নিয়ে ব্যস্ত
.............................................................................................
জুতো-বৃত্তান্ত
.............................................................................................
আসলেই কি যুদ্ধ হবে কোরিয়া উপদ্বীপে?
.............................................................................................
ক্রিকেটের ধারাবাহিক উন্নতিতেই আমরা সন্তুষ্ট
.............................................................................................
এ কেমন বর্বরতা
.............................................................................................
কবি শহীদ কাদরীর প্রথম মৃত্যুবার্ষিকীতে শ্রদ্ধা
.............................................................................................
আসুন, সবাই মিলে ঢাকাকে বাসযোগ্য করি
.............................................................................................
দেশের সর্বত্র আশ্রয় কেন্দ্র নির্মাণ জরুরি
.............................................................................................
২১ আগস্ট হামলা : সংসদের শোক প্রস্তাবে ছিল না নিহতদের নাম
.............................................................................................
প্রকল্পের গতি বাড়াতে নজরদারি
.............................................................................................
শিশুদের বন্ধু হন
.............................................................................................
প্রকৃতির বিপক্ষে গেলেই বিপদ
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
চেয়ারম্যান: এস.এইচ. শিবলী ।
সম্পাদক, প্রকাশক: জাকির এইচ. তালুকদার ।
হেড অফিস: ২ আরকে মিশন রোড, ঢাকা ১২০৩ ।
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: বাড়ি নং ২, রোড নং ৩, সাদেক হোসেন খোকা রোড, মতিঝিল বা/এ, ঢাকা ১০০০ ।
ফোন: 01558011275, 02-৪৭১২২৮২৯, ই-মেইল: dtvbanglahr@gmail.com
   All Right Reserved By www.dtvbangla.com Developed By: Dynamic Solution IT Dynamic Scale BD & BD My Shop    
Dynamic SOlution IT Dynamic POS | Super Shop | Dealer Ship | Show Room Software | Trading Software | Inventory Management Software Computer | Mobile | Electronics Item Software Accounts,HR & Payroll Software Hospital | Clinic Management Software Dynamic Scale BD Digital Truck Scale | Platform Scale | Weighing Bridge Scale Digital Load Cell Digital Indicator Digital Score Board Junction Box | Chequer Plate | Girder Digital Scale | Digital Floor Scale