বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
   * ঈদে ৭ দিন বন্ধ থাকবে বুড়িমারী স্থলবন্দর   * দেশে কমেছে কোটিপতির সংখ্যা   * গাবতলীতে যাত্রী বেশি হলেই ‘বাড়তি ভাড়া আদায়’   * স্থানীয় শিল্পের সুরক্ষায় গ্যাস-বিদ্যুৎ সরবরাহ বাড়ানোর দাবি   * শরিকদের কোন কোন মন্ত্রণালয় দিলো বিজেপি   * একমাত্র পশুহাট পরিচালনা করবে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভা নিজেই   * হজ পালনে সৌদির পথে পররাষ্ট্রমন্ত্রী   * তীব্র গরমে নাজেহাল পশ্চিমবঙ্গবাসী   * হাসপাতালে ভর্তি কিশোরীকে ধর্ষণচেষ্টা, যুবক গ্রেফতার   * ব্যাংক-জ্বালানি খাতের মতো রোগাক্রান্ত ফুসফুস মেরামতে বার্তা নেই  

   আন্তর্জাতিক -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
শরিকদের কোন কোন মন্ত্রণালয় দিলো বিজেপি

ডিটিভি অনলাইন ডেস্ক:

নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বাধীন নতুন মন্ত্রিসভা ঘোষণা হয়েছে ভারতে। অর্থ, স্বরাষ্ট্র, পররাষ্ট্র, প্রতিরক্ষার মতো প্রধান মন্ত্রণালয়গুলো বরাবরের মতোই নিজেদের হাতে রেখেছে বিজেপি। তবে এনডিএ জোটের শরিকরাও পেয়েছেন বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রণালয়।

জানা গেছে, মোদী ৩.০ সরকারে বিজেপির ১১ মিত্র মন্ত্রিসভায় ঠাঁই পেয়েছেন। এদের মধ্যে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর পদ পেয়েছেন পাঁচজন।

গত রোববার (৯ জুন) দিল্লির রাষ্ট্রপতি ভবনে তৃতীয় মেয়াদে ভারতের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেন মোদী। তার পাশাপাশি শপথ নেন মন্ত্রিসভার আরও ৭১ সদস্য। এদের মধ্যে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ৩০ জন হয়েছেন, পাঁচজন স্বতন্ত্র দায়িত্বপ্রাপ্ত এবং ৩৬ জন প্রতিমন্ত্রী।

টিডিপি নেতা কে রাম মোহন নাইডু পেয়েছেন বেসামরিক বিমান পরিবহন মন্ত্রীর দায়িত্ব।

এলজেপি-আরভি নেতা চিরাগ পাসওয়ান খাদ্য প্রক্রিয়াকরণ মন্ত্রী হয়েছেন।

বিহারের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী জিতন রাম মাঞ্জি এমএসএমই মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পেয়েছেন।

জেডিইউ নেতা রাজীব রঞ্জন সিং (লালন সিং) হয়েছেন পঞ্চায়েতি রাজ এবং পশুপালন মন্ত্রী।

কর্ণাটকের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী এইচ ডি কুমারস্বামী ভারী শিল্প ও ইস্পাত মন্ত্রীর ভার পেয়েছেন।

দক্ষতা উন্নয়ন মন্ত্রণালয়ের স্বাধীন দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রতিমন্ত্রী, একইসঙ্গে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী হয়েছেন আরএলডি প্রধান জয়ন্ত চৌধুরী।

আয়ুষ মন্ত্রণালয় এবং স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের স্বাধীন দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রতিমন্ত্রী হয়েছেন শিবসেনা নেতা প্রতাপরাও যাদব।

কৃষি ও কৃষক কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী হয়েছেন জেডিইউ নেতা রাম নাথ ঠাকুর।

রামদাস আঠাওয়ালে সামাজিক ন্যায়বিচার ও ক্ষমতায়ন প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পেয়েছেন।

টিডিপির ডা. চন্দ্রশেখর পেমমাসানি গ্রামীণ উন্নয়ন মন্ত্রণালয় এবং যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব সামলাবেন।

স্বাস্থ্য ও সার মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী হয়েছেন আপনা দলের (সোনিলাল) অনুপ্রিয়া প্যাটেল।

শরিকদের কোন কোন মন্ত্রণালয় দিলো বিজেপি
                                  

ডিটিভি অনলাইন ডেস্ক:

নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বাধীন নতুন মন্ত্রিসভা ঘোষণা হয়েছে ভারতে। অর্থ, স্বরাষ্ট্র, পররাষ্ট্র, প্রতিরক্ষার মতো প্রধান মন্ত্রণালয়গুলো বরাবরের মতোই নিজেদের হাতে রেখেছে বিজেপি। তবে এনডিএ জোটের শরিকরাও পেয়েছেন বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রণালয়।

জানা গেছে, মোদী ৩.০ সরকারে বিজেপির ১১ মিত্র মন্ত্রিসভায় ঠাঁই পেয়েছেন। এদের মধ্যে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর পদ পেয়েছেন পাঁচজন।

গত রোববার (৯ জুন) দিল্লির রাষ্ট্রপতি ভবনে তৃতীয় মেয়াদে ভারতের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেন মোদী। তার পাশাপাশি শপথ নেন মন্ত্রিসভার আরও ৭১ সদস্য। এদের মধ্যে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ৩০ জন হয়েছেন, পাঁচজন স্বতন্ত্র দায়িত্বপ্রাপ্ত এবং ৩৬ জন প্রতিমন্ত্রী।

টিডিপি নেতা কে রাম মোহন নাইডু পেয়েছেন বেসামরিক বিমান পরিবহন মন্ত্রীর দায়িত্ব।

এলজেপি-আরভি নেতা চিরাগ পাসওয়ান খাদ্য প্রক্রিয়াকরণ মন্ত্রী হয়েছেন।

বিহারের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী জিতন রাম মাঞ্জি এমএসএমই মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পেয়েছেন।

জেডিইউ নেতা রাজীব রঞ্জন সিং (লালন সিং) হয়েছেন পঞ্চায়েতি রাজ এবং পশুপালন মন্ত্রী।

কর্ণাটকের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী এইচ ডি কুমারস্বামী ভারী শিল্প ও ইস্পাত মন্ত্রীর ভার পেয়েছেন।

দক্ষতা উন্নয়ন মন্ত্রণালয়ের স্বাধীন দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রতিমন্ত্রী, একইসঙ্গে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী হয়েছেন আরএলডি প্রধান জয়ন্ত চৌধুরী।

আয়ুষ মন্ত্রণালয় এবং স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের স্বাধীন দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রতিমন্ত্রী হয়েছেন শিবসেনা নেতা প্রতাপরাও যাদব।

কৃষি ও কৃষক কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী হয়েছেন জেডিইউ নেতা রাম নাথ ঠাকুর।

রামদাস আঠাওয়ালে সামাজিক ন্যায়বিচার ও ক্ষমতায়ন প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পেয়েছেন।

টিডিপির ডা. চন্দ্রশেখর পেমমাসানি গ্রামীণ উন্নয়ন মন্ত্রণালয় এবং যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব সামলাবেন।

স্বাস্থ্য ও সার মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী হয়েছেন আপনা দলের (সোনিলাল) অনুপ্রিয়া প্যাটেল।

তীব্র গরমে নাজেহাল পশ্চিমবঙ্গবাসী
                                  

ডিটিভি অনলাইন ডেস্ক:

গরম থেকে বাঁচতে মুখে কাপড় পেঁচিয়ে বের হয়েছেন কলকাতার তিন তরুণী
ভাপসা গরমে ওষ্ঠাগত কলকাতাসহ পুরো পশ্চিমবঙ্গবাসীর জীবন। সূর্যের প্রখর তাপের নিচে পুরো রাজ্য। তাপমাত্রা বাড়ার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে আদ্রতাও।

কলকাতার আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে, ১১ জুন থেকে ১৩ জুন কলকাতাসহ পশ্চিমবঙ্গের বেশকিছু জেলায় তীব্র তাপপ্রবাহের সম্ভাবনা রয়েছে। বিশেষ করে পশ্চিম মেদিনীপুর, পশ্চিম বর্ধমান ও বাঁকুড়ায় তাপপ্রবাহের কমলা সতর্কতা জারি করা হয়েছে। তাছাড়া তীব্র গরমের দাপট চলবে পশ্চিমবঙ্গের প্রায় সব জেলাতেই।

এছাড়া কলকাতা, বীরভূম, পুরুলিয়া, ঝাড়গ্রাম, নদীয়া, দুই ২৪ পরগনাসহ উত্তরবঙ্গের বেশকিছু জেলায় তাপপ্রবাহের হলুদ সতর্কতা জারি করা হয়েছে। এসব জেলায় তীব্র গরমের কারণে স্বাস্থ্যগত সমস্যা দেখা দিতে পারে। বিশেষ করে শিশু, বৃদ্ধ ও আগে থেকে গরমজনিত রোগে আক্রান্ত ব্যক্তিরা সমস্যায় পড়তে পারেন।

মঙ্গলবার ১১ জুন কলকাতার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৬ থেক ৩৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস মধ্যে ঘোরাফেরা করবে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর। বাঁকুড়া, বর্ধমানসহ পশ্চিমের বেশকিছু জেলায় তাপমাত্রা ৪২ থেকে ৪৪ ডিগ্ৰি সেলসিয়াস ছুঁতে পারে। তবে কয়েকটি জেলায় বিক্ষিপ্ত বৃষ্টির সম্ভাবনা থাকলেও, তাতে সহসায় গরম কমার সম্ভাবনা নেই বলে জানিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর।

দীর্ঘক্ষণ রোদের তাপ এড়িয়ে চলা, হালকা রঙের ঢিলেঢালা শুতির পোশাক পরা ও প্রচুর পরিমাণে পানি পান করার পরামর্শ দিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর।

বিশেষজ্ঞরা পরামর্শ দিয়েছেন, শরীরে পানির ঘাটতি পূরণ করবে এমন পানীয় (ওআরএস) পান করতে হবে। প্রয়োজনে বাইরে বের হওয়া লোকজনকে সরাসরি সূর্যের তাপ এড়িয়ে চলতে বলা হয়েছে। সেই সঙ্গে যে কোনো জরুরি কাজ সকালে অথবা সূর্যের তাপ কমে যাওয়ার পর অর্থাৎ বিকেলের দিকে করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

হামলার পর কেমন আছেন ড্যানিশ প্রধানমন্ত্রী?
                                  

ডিটিভি অনলাইন ডেস্ক:

সম্প্রতি হামলার শিকার হন ড্যানিশ প্রধানমন্ত্রী মেত্তে ফ্রেডেরিকসেন। ওই হামলার পর তিনি জানান, এই ঘটনায় তিনি বেশ কষ্ট পেয়েছেন এবং ভেঙে পড়েছেন। তবে তার শারীরিক অবস্থা এখন ভালো আছে বলেও নিশ্চিত করেছেন মেত্তে ফ্রেডেরিকসেন। কোপেনহেগেনের পুরোনো শহরের একটি রাস্তায় শুক্রবার সন্ধ্যায় তার ওপর হামলা চালানো হয়।

এই ঘটনায় ৩৯ বছর বয়সী এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তিনি পোল্যান্ডের নাগরিক। স্থানীয় সময় শনিবার ফ্রেডেরিক্সবার্গ আদালতে তাকে প্রাথমিক শুনানিতে হাজির করা হয়।

স্থানীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, তার বিরুদ্ধে সহিংসতার অভিযোগ আনা হয়েছে। তবে তিনি তার দোষ অস্বীকার করেছেন। কোপেনহেগেন পুলিশ সামাজিক মাধ্যমে এক পোস্টে বলেন, সন্দেহভাজন ওই ব্যক্তিকে ২৯ জুন পর্যন্ত হেফাজতে নেওয়া হয়েছে।

এদিকে প্রধানমন্ত্রী ফ্রেডেরিকসেনের কার্যালয় বার্তা সংস্থা এএফপিকে জানায়, ওই হামলার ঘটনার পর তাকে প্রাথমিক চেক-আপের জন্য হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। রোববার তার সব ধরনের কর্মসূচী বাতিল করা হয়েছে।

এর আগে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে এক বিবৃতিতে জানানো হয় যে, কোপেনহেগেনের রাস্তায় হামলার ঘটনায় বেশ ‌মর্মাহত হয়েছেন তিনি। শহরের কেন্দ্রস্থলে অবস্থিত একটি চত্বরে ওই হামলার ঘটনা ঘটেছে।

শুক্রবার (৭ জুন) সন্ধ্যায় কোপেনহেগেনের কুলটোরভেটে এক ব্যক্তি তার ওপর হামলা চালায়। পরবর্তীতে ওই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়। প্রধানমন্ত্রী এই ঘটনায় হতবাক হয়ে যান। তবে কী কারণে ওই ব্যক্তি এমন ঘটনা ঘটালেন তা এখনো নিশ্চিত নয়।

ওই ঘটনার পর মেরি আদ্রিয়ান এবং আন্না রাভন নামের দুজন প্রত্যক্ষদর্শী স্থানীয় বিটি পত্রিকাকে বলেন, তারা ওই হামলার ঘটনার সাক্ষী। তারা বলেন, এক ব্যক্তি বিপরীত দিক থেকে এসে প্রধানমন্ত্রী মেত্তে ফ্রেডেরিকসেনের কাঁধে জোরে ধাক্কা দেয়। এতে তিনি পড়ে যান।

তারা জানান, প্রধানমন্ত্রী মেত্তে ফ্রেডেরিকসেনকে খুব জোরে ধাক্কা দেওয়া হয়েছিল। এই ঘটনার পর তিনি কিছু সময় একটি ক্যাফেতে গিয়ে বসেছিলেন। ২০১৯ সালে ডেনমার্কের ইতিহাসে সবচেয়ে কনিষ্ঠ প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন মেত্তে ফ্রেডেরিকসেন।

এদিকে এমন খারাপ মূহুর্তে যারা ক্ষুদেবার্তা পাঠিয়ে সমর্থন ও উৎসাহ দিয়ে যাচ্ছেন তাদের প্রতি অনেক অনেক কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন ড্যানিশ প্রধানমন্ত্রী ফ্রেডেরিকসেন।

অবশেষে ইসরায়েলকে ‘অপরাধী’ দেশের তালিকায় যুক্ত করলো জাতিসংঘ
                                  

ডিটিভি অনলাইন ডেস্ক:

ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকার নিরপরাধ শিশুদের ওপর হামলা ও হাজার হাজার শিশুর মৃত্যুর কারণে ইসরায়েলি সেনাবাহিনীকে ‘অপরাধী’ দেশের তালিকায় যুক্ত করেছে জাতিসংঘ। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জাতিসংঘে নিযুক্ত ইসরায়েলের রাষ্ট্রদূত গিলাদ আরদান।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্সে দেওয়া পোস্টে জাতিসংঘে নিযুক্ত ইসরায়েলের রাষ্ট্রদূত জানিয়েছেন, শুক্রবার (৭ জুন) তিনি এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন পান। সিদ্ধান্তটি অত্যন্ত লজ্জাজনক ও জাতিসংঘের এমন কাজে তিনি অত্যন্ত ক্ষুব্ধ।

ইসরায়েলের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইসরায়েল কাটজ বলেছেন, এই পদক্ষেপের কারণে জাতিসংঘের সঙ্গে ইসরায়েলের সম্পর্কে নেতিবাচক প্রভাব পড়বে ও জাতিসংঘকে এর পরিণতি ভোগ করতে হবে।

এদিকে ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু বলেছেন, আমাদের সেনাবাহিনী বিশ্বের সবচেয়ে নৈতিক বাহিনী। তা সত্ত্বেও ইসরায়েলকে মূলত একজন মাত্র ব্যক্তির সিদ্ধান্তেই এই তালিকায় ফেলা হয়েছে। তিনি হলেন জাতিসংঘের মহাসচিব। এই সিদ্ধান্তের মাধ্যমে জাতিসংঘ ইসরায়েলকে নয়, নিজেকেই ইতিহাসের কালো তালিকায় যুক্ত করেছে।

জাতিসংঘ মহাসচিবের মুখপাত্র স্টিফেন ডুজারিক এক সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন, জাতিসংঘের এক কর্মকর্তা ইসরায়েলি রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে দেখা করে জাতিসংঘের বার্ষিক ‘চিল্ড্রেন ইন আর্মড কনফ্লিক্ট’ প্রতিবেদনে ইসরায়েলের তালিকাভুক্তির বিষয়টি জানান। বিষয়টি যাতে ফাঁস না হয়, সেজন্যই এমনটা করা হয়েছে। প্রতিবেদনটি ১৪ জুন জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে উপস্থাপন করা হবে।

এক জাতিসঙ্ঘ কর্মকর্তার উদ্ধৃতি দিয়ে ব্রিটিশ বার্তাসংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী সংগঠন হামাস ও ইসলামিক জিহাদকেও এই তালিকায় যুক্ত করা হবে।

ইসরায়েলের ন্যাশনাল কাউন্সিল ফর চাইল্ডের তথ্যানুযায়ী, গত বছরের ৭ অক্টোবর ইসরায়েলে হামাসের হামলায় ৩৮ শিশুসহ প্রায় ১২০০ জন নিহত হয়। তাছাড়া ৪২ শিশুসহ ২৫২ জনকে জিম্মি করে নিয়ে যায় হামাস।

এদিকে, গাজায় হামাস পরিচালিত স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বলছে, ইসরায়েলি আগ্রাসনে এখন পর্যন্ত ৩৬ হাজার ৭৩১ জন নিহত হয়েছে। গত মাসে জাতিসংঘের একটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে গাজায় মোট মৃত্যুর ৬৯ শতাংশ থেকে ৫২ শতাংশ ছিল নারী ও শিশু।

ইসরায়েলের দাবি, এই পরিসংখ্যান প্রমাণ করে যে জাতিসংঘ হামাসের মিথ্যা তথ্যের উপর নির্ভর করেছে। জাতিসংঘ বলেছে যে তারা এখন হামাস পরিচালিত সরকারি মিডিয়া অফিসের (জিএমও) পরিবর্তে গাজায় হামাস পরিচালিত স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পরিসংখ্যানের উপর নির্ভর করছে। এদিকে জিএমও বলছে, ইসরায়েলি হামলায় ১৫ হাজারের বেশি শিশু নিহত হয়েছে।

এদিকে, ডক্টরস উইদাউট বর্ডারস (এমএসএফ) জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় গাজার আল-আকসা হাসপাতালে ব্যাপক বিশৃঙ্খলা দেখা গেছে। ওই সময়ের মধ্যে কমপক্ষে ৭০ জন নিহত ও ৩০০ আহত ব্যক্তিকে আনা হয়, যাদের মধ্যে বেশিরভাগই নারী ও শিশু।

লোহিত সাগরে গ্রিসের জাহাজে হুথিদের হামলা
                                  

ডিটিভি অনলাইন ডেস্ক:

ইয়েমেনভিত্তিক হুথি বিদ্রোহীরা লোহিত সাগরে গ্রিসের মালিকানাধীন একটি জাহাজে হামলা চালিয়েছে। ব্রিটিশ নিরাপত্তা সংস্থা অ্যামব্রে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে। এর আগেও লোহিত সাগরে বিভিন্ন জাহাজে হামলার ঘটনা ঘটেছে। খবর আল জাজিরার।

জাহাজটি ভারতের মুরমুগাও থেকে মিশরের সুয়েজ খালের উদ্দেশে রওনা দিয়েছিল। তবে জাহাজটির নাম না জানিয়ে অ্যামব্রে বলছে, এটি পূর্ব আফ্রিকার ইরিত্রিয়া থেকে ১১৮ নটিক্যাল মাইল (প্রায় ২১৮ কিমি) পূর্বে থেমেছিল। জাহাজ এবং এর ক্রুদের অবস্থা জানা যায়নি।

হুথিরা বুধবার লোহিত সাগর এবং আরব সাগরে তিনটি জাহাজে ক্ষেপণাস্ত্র ও ড্রোন হামলা চালিয়েছে। এর মধ্যে একটি মার্কিন জাহাজও রয়েছে বলে হুথির সামরিক মুখপাত্র ইয়াহিয়া সারি নিশ্চিত করেছেন।

মূলত হামাস ও ইসরায়েলের মধ্যে যুদ্ধের ঢেউ গিয়ে পৌঁছেছে লোহিত সাগরে। গাজায় বোমা হামলা শুরুর পরপরই উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে লোহিত সাগরে। কারণ বিদ্রোহী গোষ্ঠী হুথি সেখানে বাণিজ্যিক জাহাজ লক্ষ্য করে হামলা শুরু করে। বিদ্রোহী গোষ্ঠীটিকে সমর্থন দিচ্ছে ইরান।

ফিলিস্তিনিদের পক্ষে সমর্থন জানাতেই সেখানে হামলা শুরুর ঘোষণা দেয় হুথি বিদ্রোহীরা। তাদের দাবি, গাজায় যুদ্ধবিরতির পাশাপাশি মানবিক সহায়তা প্রবেশ করতে দিতে হবে। তবে গাজায় এখনো যুদ্ধবিরতিতে রাজি হয়নি ইসরায়েল।

এদিকে অবরুদ্ধ এই উপত্যকার নুসেইরাত শরণার্থী শিবিরে হামলা চালিয়েছে ইসরায়েলি বাহিনী। সেখানে একটি স্কুলে আশ্রয় নেওয়া বাস্তুহারা লোকজনের ওপর হামলার ঘটনায় কমপক্ষে ২৭ জন নিহত হয়েছে। এছাড়া আহত হয়েছে আরও বেশ কয়েকজন। সরকারি মিডিয়া অফিস এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

হামাস-নিয়ন্ত্রিত স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, সেখানে প্রায় ৮ মাস ধরে চলা সংঘাতে ৩৬ হাজার ৫৮৬ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে। এছাড়া আহত হয়েছে আরও ৮৩ হাজার ৭৪ জন। গাজায় সংঘাত বন্ধের কোনো লক্ষণই দেখা যাচ্ছে না। এভাবে সংঘাত চলতে থাকলে আরও কয়েক হাজার নিরীহ ফিলিস্তিনি প্রাণ হারাবে।

ফিলিস্তিনি স্বাধীনতাকামী সংগঠন হামাস বলছে, গাজায় যুদ্ধের স্থায়ী সমাপ্তি এবং তাদের যুদ্ধবিরতি প্রস্তাবে সম্মত হওয়ার জন্য ইসরায়েলি সেনা প্রত্যাহার করা প্রয়োজন। তবে ইসরায়েলের প্রতিরক্ষা প্রধান বলেছেন, যুদ্ধবিরতির আলোচনার সময় হামলা থামানো হবে না।

দক্ষিণ আফ্রিকায় বন্যায় ২২ জনের মৃত্যু
                                  

ডিটিভি অনলাইন ডেস্ক:

দক্ষিণ আফ্রিকার পূর্ব উপকূলে ভারী বৃষ্টি ও তীব্র বাতাসের কারণে সৃষ্ট বন্যায় অন্তত ২২ জনের মৃত্যু হয়েছে। স্থানীয় কর্তৃপক্ষ এ তথ্য জানিয়েছে। পূর্বাঞ্চলীয় দুই প্রদেশের বেশ কয়েকটি স্থানে বন্যা আঘাত হেনেছে। সেখানে দুই দফা টর্নেডো আঘাত হানার পর তাপমাত্রা অনেকটাই কমে গেছে। মধ্যাঞ্চলের বেশ কিছু জায়গায় তুষারপাতের খবর পাওয়া গেছে। খবর এএফপির।

নেলসন ম্যান্ডেলা বে মিউনিসিপ্যালিটির এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, ইস্টার্ন কেপে অন্তত ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে। নেলসন ম্যান্ডেলা উপসাগর থেকে দুই হাজারের বেশি মানুষকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। বিশেষ করে পৌরসভার অস্থায়ী বাড়িগুলো থেকে বহু মানুষকে সরিয়ে নেওয়া হয়।

স্থানীয় কর্তৃপক্ষ পোশাক, খাদ্য এবং কম্বল সহায়তা দেওয়া জন্য আবেদন জানিয়েছে। প্রতিবেশী কোয়াজুলু-নাতালের প্রাদেশিক সরকারও বলেছে যে, বন্দর নগরী ডারবান এবং এর আশেপাশে কমপক্ষে ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে।

প্রাদেশিক কর্তৃপক্ষ কোয়াজুলু-নাটালে সতর্কতা জারি করেছে। প্রাদেশিক সরকারের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ৫৫ জন সামান্য থেকে মাঝারি আঘাত পেয়েছেন এবং তাদেরকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। ভারী বৃষ্টি-বন্যায় অন্তত ১২০ জন বাস্তুচ্যুত হয়েছে এবং তিনটি অস্থায়ী আশ্রয়কেন্দ্র স্থাপন করা হয়েছে।

২০২২ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার ইতিহাসের সবচেয়ে খারাপ বন্যা পরিস্থিতি দেখা দিয়েছিল ডারবান এবং এর আশেপাশের এলাকায়। সে সময় ভূমিধসে চার শতাধিক মানুষ প্রাণ হারায়।

এদিকে বন্যাকবলিত এলাকাগুলোতে উদ্ধারকারী দল মোতায়েন করা হয়েছে। বন্যার পানিতে বাড়ি-ঘর ভেসে গেছে, রাস্তা-ঘাট প্লাবিত হয়েছে এবং গাছ উপড়ে পড়েছে। অনেক স্থানেই বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে।

পূর্ব ভারত মহাসাগরের উপকূলে ভারী বৃষ্টি আঘাত হেনেছে এবং দক্ষিণ আফ্রিকার নয়টি প্রদেশের চারটিতে আবহাওয়া সতর্কতা জারি করেছে দেশটির আবহাওয়া বিভাগ।

কংগ্রেসের উত্থানে বিজেপিতে অস্বস্তি, বারানসিতে জয় পাবেন মোদী?
                                  

ডিটিভি অনলাইন ডেস্ক:

১৮তম লোকসভা নির্বাচনের ফলাফলের দিকে তাকিয়ে আছে পুরো ভারত। কোন রাজ্যে কে জয়ী হবে তা নিয়ে জল্পনার শেষ নেই। এখন পর্যন্ত পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোটই এগিয়ে আছে। ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, এনডিএ জোট এখন পর্যন্ত ২৯১ আসনে জয়ী হয়েছে। অপরদিকে ইন্ডিয়া জোট ২৩৪ আসনে এগিয়ে আছে।

এদিকে উত্তরপ্রদেশের ৮০টি আসনের মধ্যে এনডিএ ৩৪টি আসনে জয়ী হয়েছে। ওই রাজ্যে ৪৫টি আসনে জয় পেয়েছে ইন্ডিয়া জোট। সেখানে বিজেপি পিছিয়ে থাকলেও এগিয়ে আছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ওই রাজ্যের বারানসি আসনে মোদী তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী কংগ্রেস প্রার্থী অজয় রাইয়ের চেয়ে এক লাখের বেশি ভোটে এগিয়ে আছেন।

নরেন্দ্র মোদী এবারের নির্বাচনে জয়ী হলে ভারতের প্রথম প্রধানমন্ত্রী জওহরলাল নেহরুর মতো টানা তৃতীয় মেয়াদে প্রধানমন্ত্রী হবেন। বিজেপির নির্বাচনি প্রচারণায় সরকারের কল্যাণমুলক কর্মসূচি, হিন্দু জাতীয়তাবাদ, জাতীয় নিরাপত্তাসহ মোদীর ক্যারিশম্যাটিক নেতৃত্ব প্রাধান্য পাবে বলে ধারণা করা হলেও মোদী তার প্রচারণার দিক পরিবর্তন করে বিভাজনমূলক বক্তব্য দেন, যা তার কৌশলকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছে।

কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন বিরোধী জোটের বিরুদ্ধে মুসলমান সংখ্যালঘু সম্প্রদায়কে খুশি করার অভিযোগ এনেছেন মোদী। বুথফেরত জরিপগুলো বিজেপি-নেতৃত্বাধীন জোটের পুনরায় ক্ষমতায় আসার পূর্বাভাস দিয়েছে। কিন্তু মঙ্গলবার বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গেই দৃশ্যপট কিছুটা বদলে গেছে। কংগ্রেস যেভাবে এগিয়ে গেছে ততটা কেউই আশা করেনি। এছাড়া বিজেপি জোট ৪০০ আসন পার করার যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল সেটারও কোনো আভাস পাওয়া যায়নি। এখনো এনডিএ জোট ৩০০ আসনই পার করতে পারেনি।

এদিকে বিরোধী দলগুলো বলছে, মোদী ফের ক্ষমতায় থাকলে ভারতীয়রা তাদের স্বাধীনতা হারাবে। বিরোধীরা বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরি করতে না পারার অভিযোগ তোলে। এক দশক ধরে ক্ষমতার বাইরে থাকা বিরোধীরা তাদের নির্বাচনী প্রচারণায় বিজেপি সরকারের পদ্ধতিগত বৈষম্যের ওপর জোর দিয়েছে।

বিরোধীরা যদি টানা তৃতীয় মেয়াদে পরাজিত হয় সেটা দলের জন্য একটি বড় ধাক্কা হবে। ফলে কংগ্রেস পার্টিতে ঝুঁকির মুখে পড়বে রাহুল গান্ধীর নেতৃত্ব। তবে প্রাথমিক ভোট গণনায় মোদির ভূমিধস জয়ের আভাস মেলেনি।

নরেন্দ্র মোদী যখন আব কি বার, চারশ পার (এবারে চারশ ছাড়িয়ে যাব) স্লোগান দিয়ে প্রচারণা শুরু করেছিলেন, তখন তিনি তার বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোটের জন্য ৪০০ টিরও বেশি আসনে জয়ী হওয়ার লক্ষ্য রেখেছিলেন।

সবচেয়ে আশাবাদী বুথ ফেরত জরিপও পূর্বাভাস দিয়েছিল যে তার জোট ৪০০ আসনে জয়ী হবে। প্রাথমিক ভোট গণনা থেকে ধারণা করা হচ্ছে, নির্বাচনে বিরোধী মধ্য বামপন্থী ইন্ডিয়া জোটের সঙ্গে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হতে পারে।

এখন পর্যন্ত পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, বারানসিতে মোদী তার প্রতিদ্বন্দ্বীর চেয়ে ১ লাখ ১২ হাজার ১৬১ ভোটে এগিয়ে ছিলেন। এখন পর্যন্ত মোদীর প্রাপ্ত ভোট ৪ লাখ ৩১ হাজার ৫৮৭ এবং অজয় রাই ৩ লাখ ১৯ হাজার ৪২৬টি ভোট পেয়েছেন।

৫৪৩ আসনবিশিষ্ট লোকসভার সবচেয়ে বেশি আসন উত্তরপ্রদেশে। এ কারণে লোকসভা নির্বাচনের ফলাফলে রাজ্যটির বেশ গুরুত্ব রয়েছে। এবার উত্তর প্রদেশের ৮০ আসনের মধ্যে ৭৫টিতে বিজেপির প্রার্থীরা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। বাকি পাঁচ আসন জোটসঙ্গীদের ছেড়ে দিয়েছে দলটি।

অন্যদিকে ‘ইন্ডিয়া’ জোট এই রাজ্যে আসন ভাগাভাগি করে ভোটে অংশ নিয়েছে। সমাজবাদী পার্টি উত্তর প্রদেশে ৬২ আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে। তারা কংগ্রেসকে ১৭ আসন ছেড়ে দিয়েছে আর তৃণমূল কংগ্রেসকে একটি আসন দেওয়া হয়েছে।

২৫৭ আসনে এগিয়ে বিজেপি
                                  

ডিটিভি অনলাইন ডেস্ক:

ভারতে লোকসভা নির্বাচনের ভোট গণনা শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল ৮টায় পুরো দেশের ৫৪২টি কেন্দ্রে শুরু হয়েছে ভোটগণনা। সুরাত কেন্দ্রে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়লাভ করেছেন বিজেপি প্রার্থী। ফলে গণনা শুরুর আগেই এক আসনে এগিয়ে গেছে বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ।

প্রাথমিক তথ্য বলছে, এখন পর্যন্ত ভোট গণনায় এগিয়ে আছে বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ। ভোট গণনার প্রথম এক ঘণ্টায় বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ এগিয়ে আছে ২৫৭টি আসনে। ‘ইন্ডিয়া’ জোট এগিয়ে ১৪৫টি আসনে এবং অন্যরা এগিয়ে ১৯টি আসনে।

বারাণসী লোকসভা কেন্দ্রে প্রাথমিক তথ্যে এগিয়ে আছেন নরেন্দ্র মোদী। অমেঠী কেন্দ্রে এগিয়ে বিজেপি প্রার্থী স্মৃতি ইরানি। অপরদিকে গান্ধীনগরে এগিয়ে আছেন অমিত শাহ।

হামিরপুরে এগিয়ে বিজেপি প্রার্থী অনুরাগ ঠাকুর, কনৌজ কেন্দ্রে এগিয়ে আছেন অখিলেশ যাদব। তবে রায়বরেলী এবং ওয়েনাড় দুই কেন্দ্রেই এগিয়ে রয়েছেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী।

প্রথম এক ঘণ্টার ভোট গণনার তথ্য অনুযায়ী, উত্তরপ্রদেশে ইন্ডিয়ার অন্যতম শরিক এসপি এগিয়ে ২৬টি আসনে, কংগ্রেস এগিয়ে ৬টি আসনে। অপরদিকে, বিজেপি এগিয়ে ২২টি আসনে এবং আরএলডি এগিয়ে ১টি আসনে।

গত আড়াই মাস ধরে মোট সাত দফায় বিশ্বের সবচেয়ে বড় গণতন্ত্রের দেশটির প্রধান উৎসব সাধারণ নির্বাচনে ভোট হয়েছে। রোদ, ঝড়-বৃষ্টি উপেক্ষা করে পছন্দের প্রার্থীদের পক্ষে ভোট দিয়েছেন কোটি কোটি মানুষ। এই নজির বিশ্বের ইতিহাসে বিরল। ভোট কি কেবলই মাঠে-ময়দানে প্রচার? এবারের সাধারণ নির্বাচন ছাপিয়ে গেছে আগের সব নজির। এবার সেয়ানে সেয়ানে লড়াই চলেছে সামাজিক মাধ্যমেও।

পশ্চিমবঙ্গে এগিয়ে তৃণমূল
                                  

ডিটিভি অনলাইন ডেস্ক:

ভারতের লোকসভা নির্বাচনে ভোটগণনা চলছে। প্রাথমিক তথ্য অনুযায়ী, এখন পর্যন্ত বেশিরভাগ আসনে বিজেপি এগিয়ে আছে। তবে পশ্চিমবঙ্গে এখন পর্যন্ত এগিয়ে আছে রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল। ওই রাজ্যের ৪২টি আসনে ৫০৭ জন প্রার্থী লড়াই করছেন।

৫৫টি কেন্দ্রে ভোটগণনা শুরু হয়েছে। প্রাথমিক তথ্য বলছে, পশ্চিমবঙ্গের ১৮টি আসনে এগিয়ে আছে তৃণমূল। ওই রাজ্যে ১১টি আসনে বিজেপি এবং দুইটিতে এগিয়ে আছে কংগ্রেস। সেখানে এখনো একটি আসনেও জয়ী হতে পারেনি সিপিএম।

পশ্চিমবঙ্গের ৪২টি আসনে এবার কোন দল জয়ী হবে সেদিকে তাকিয়ে আছে পুরো দেশ। ওই রাজ্যের প্রায় সব কয়েকটি বুথফেরত সমীক্ষায়ই বিজেপিকে এগিয়ে রাখা হয়েছিল। অন্যদিকে, রাজ্যের শাসকদল তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় দাবি করেছেন, রাজ্যে ২০১৯ সালের চেয়েও ভালো ফল করবে তৃণমূল। অবশেষে অনুমানের সঙ্গে বাস্তব মেলে কি না, তা-ই দেখার অপেক্ষায় রাজ্যবাসী।

মঙ্গলবার সকাল ৮টায় পুরো দেশের ৫৪২টি কেন্দ্রে শুরু হয়েছে ভোটগণনা। সুরাত কেন্দ্রে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়লাভ করেছেন বিজেপি প্রার্থী। ফলে গণনা শুরুর আগেই এক আসনে এগিয়ে গেছে বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ।

প্রাথমিক তথ্য বলছে, এখন পর্যন্ত ভোট গণনায় এগিয়ে আছে বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ। ভোট গণনার প্রথম এক ঘণ্টায় বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ এগিয়ে আছে ২৫৭টি আসনে। ‘ইন্ডিয়া’ জোট এগিয়ে ১৪৫টি আসনে এবং অন্যরা এগিয়ে ১৯টি আসনে।

বারাণসী লোকসভা কেন্দ্রে প্রাথমিক তথ্যে এগিয়ে আছেন নরেন্দ্র মোদী। অমেঠী কেন্দ্রে এগিয়ে বিজেপি প্রার্থী স্মৃতি ইরানি। অপরদিকে গান্ধীনগরে এগিয়ে আছেন অমিত শাহ।

হামিরপুরে এগিয়ে বিজেপি প্রার্থী অনুরাগ ঠাকুর, কনৌজ কেন্দ্রে এগিয়ে আছেন অখিলেশ যাদব। তবে রায়বরেলী এবং ওয়েনাড় দুই কেন্দ্রেই এগিয়ে রয়েছেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী।

যুক্তরাষ্ট্রে গোলাগুলিতে নিহত ১, আহত ২৪
                                  

ডিটিভি অনলাইন ডেস্ক:

যুক্তরাষ্ট্রে গোলাগুলির ঘটনায় একজন নিহত এবং কমপক্ষে আরও ২৪ জন আহত হয়েছে। দেশটির ওহাইও অঙ্গরাজ্যে ওই গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। স্থানীয় সময় মধ্যরাতের কিছু পরে অ্যাকরন শহরে গোলাগুলির খবর পাওয়া গেছে। খবর বিবিসির।

স্থানীয় গণমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, কেলি স্ট্রিট এবং ৮ম অ্যাভিনিউর কাছে ঘটনাস্থল থেকে কর্মকর্তারা কয়েক ডজন বুলেটের কেসিং এবং একটি বন্দুক উদ্ধার করেছেন।

কী কারণে ওই হামলার ঘটনা ঘটেছে তা এখনো নিশ্চিত নয়। এ বিষয়ে তদন্ত চলছে বলে অ্যাকরন পুলিশ বিভাগের পক্ষ থেকে নিশ্চিত করা হয়েছে।

তবে এই ঘটনায় এখনো কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি বা কোনো সন্দেহভাজনকেও চিহ্নিত করা হয়নি। পুলিশের এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, কমপক্ষে ২৫ জনকে গুলি করা হয়েছে। এর মধ্যে একজন নিহত হয়েছে।

হামলায় আহত বেশ কয়েকজনের অবস্থা বেশ গুরুতর। তবে অনেকের আঘাতই তেমন গুরুতর নয় বলে জানানো হয়েছে।

অ্যাকরনের মেয়র শাম্মাস মালিক এবং পুলিশ প্রধান ব্রায়ান হার্ডিং পরে সামাজিক মাধ্যমে একটি যৌথ বিবৃতি জারি করে এই ঘটনায় জড়িতদের বিচারের আওতায় আনার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

বিবৃতিতে বলা হয়, এমন বিবেকহীন সহিংস ধ্বংসলীলার পর আমাদের শহরে অস্থিরতা বিরাজ করছে। কেন এমন হামলা চালানো হলো আমরা সেই উত্তর খুঁজে চলছি। ২৪ জনের বেশি ভুক্তভোগীর আঘাত এবং ট্রমা আজ পুরো অ্যাকরন জুড়ে প্রতিধ্বনিত হচ্ছে।

এই ঘটনা সম্পর্কে জানেন এমন লোকজনকে পুলিশের কাছে তথ্য দেওয়ার আহ্বান জানানো হয়েছে। প্রয়োজনে তার পরিচয় গোপন রাখা হবে বলেও আশ্বাস দেওয়া হয়।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, আমাদের নগর প্রশাসন এবং অ্যাকরন পুলিশ বিভাগের কাছে জননিরাপত্তার বিষয়টিকেই আমরা অগ্রাধিকারক দিয়ে থাকি। আমরা আমাদের সম্প্রদায়ের মধ্যে বন্দুক সহিংসতা বন্ধ রাখার লক্ষ্যে কাজ করে যাব।

সিরিয়ায় ইসরায়েলি হামলায় নিহত ১২
                                  

ডিটিভি অনলাইন ডেস্ক:

সিরিয়ায় ইসরায়েলি বাহিনীর হামলায় ১২ জন নিহত হয়েছে। যুক্তরাজ্যভিত্তিক সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস (এসওএইচআর) জানিয়েছে, সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে অবস্থিত আলেপ্পো শহরের কাছে একটি কারখানায় ইসরায়েলি হামলায় অন্তত ১২ ইরানপন্থী যোদ্ধা নিহত হয়েছে। খবর আল জাজিরার।

সিরিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় নিহতের সঠিক সংখ্যা নিশ্চিত করেনি। শুধুমাত্র জানানো হয়েছে যে, মধ্যরাতের কিছু সময় পর... ইসরায়েলি শত্রুরা আলেপ্পোর দক্ষিণ-পূর্ব দিক থেকে কিছু অবস্থান লক্ষ্য করে বিমান হামলা চালিয়েছে। এতে বেশ কয়েকজন নিহত হয়েছে এবং সম্পদের ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস জানিয়েছে, আলেপ্পোর উত্তরে অবস্থিত হায়ান শহরে হামলায় বেশ কয়েকজন সিরীয় এবং বিদেশি যোদ্ধা নিহত হয়েছেন। হামলার পর একটি কারখানায় শক্তিশালী বিস্ফোরণের খবর পাওয়া গেছে।

ইসরায়েল সিরিয়ায় এ পর্যন্ত কয়েকশ বার হামলা চালিয়েছে। যদিও তারা প্রতিবেশী দেশটির বিরুদ্ধে চালানো সামরিক অভিযানের কথা খুব কমই স্বীকার করেছে। বেশিরভাগ সময়ই তারা হামলা চালানোর কথা অস্বীকার করেছে।

ইসরায়েলের সামরিক কর্মকর্তারা বলছেন, হিজবুল্লাহসহ ইরান-সমর্থিত যোদ্ধারাই সিরিয়ায় হামলার মূল লক্ষ্য। গত ৭ অক্টোবর ইসরায়েলের সীমান্তে প্রবেশ করে আকস্মিক হামলা চালায় ফিলিস্তিনি স্বাধীনতাকামী সংগঠন হামাস। এরপরেই গাজায় পাল্টা আক্রমণ শুরু করে ইসরায়েল। গাজায় হামাসের বিরুদ্ধে ইসরায়েলের যুদ্ধ ঘোষণার পর থেকেই সিরিয়ায় ইসরায়েলের হামলা বেড়ে গেছে।

ধ্যান ভেঙেছেন মোদী, বুথফেরত জরিপে এগিয়ে বিজেপি
                                  

ডিটিভি অনলাইন ডেস্ক:

ভারতে শেষ হয়েছে লোকসভা নির্বাচনের ভোটগ্রহণ। সাত ধাপের ভোটের শেষ ধাপ শেষ হয় শনিবার (১ জুন)। তবে এরই মধ্যে প্রকাশিত হয়েছে বিভিন্ন বুথফেরত জরিপ। এতে দেখা যাচ্ছে, বিরোধী ইন্ডিয়া জোটের চেয়ে বেশি আসন পেতে যাচ্ছে মোদীর এনডিএ জোট। যদিও লোকসভা নির্বাচনের ভোট গণনা শুরু হবে ৪ জুন।

ভোটগ্রহণ প্রক্রিয়া শেষের এক্সিট পোল বা বুথফেরত জরিপ বলছে, ২০১৪ ও ২০১৯-এর মতোই অনেকটাই পিছনে বিরোধী জোট। রিপাবলিক-মাট্রিজের জরিপে এগিয়ে এনডিএ।

জরিপ অনুযায়ী, ৩৫৩-৩৬৩টি আসন পেতে পারে এনডিএ। ইন্ডিয়া জোট পেতে পারে ১১৮-১৩৩ আসন। রিপাবলিক পি মার্কের জরিপে দেখা গেছে, এনডিএ পেতে পারে ৩৫৯টি আসন। ইন্ডিয়া পেতে পারে ১৫৪ আসন। জন কী বাতের জরিপে এনডিএ পেতে পারে ৩৬৩-৩৯২ আসন। ইন্ডিয়া পেতে পারে ১৪১-১৬১ আসন।

আরও বেশ কিছু বুথফেরত জরিপ প্রকাশিত হয়েছে। এতে দেখা গেছে, মোদীর এনডিএ জোট ইন্ডিয়ার থেকে বড় ব্যবধানে এগিয়ে রয়েছে। যদিও আসল ফলাফল জানতে অপেক্ষা করতে হবে আরও কয়েক দিন।

এদিকে দুদিন প্রায় ৪৫ ঘণ্টার ধ্যান ভেঙেছেন মোদী। শনিবার দুপুরে ধ্যান ভাঙেন তিনি। তারপর আকাশি কুর্তা, সাদা ধুতি পরে বেরিয়ে এলেন বিবেকানন্দ রক মেমোরিয়াল থেকে।

এর আগে শেষ ধাপের নির্বাচনী প্রচার শেষে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বিবেকানন্দ রক মেমোরিয়ালে ধ্যানে বসেছিলেন মোদী। শনিবার দুপুর পর্যন্ত চলে ধ্যান। এই দুদিন মৌনব্রত ছিল মোদীর। শুধুই তরল জাতীয় খাবার খেয়েছেন। ২০১৯ সালে লোকসভা নির্বাচনের পর তিনি গিয়েছিলেন কেদারনাথে। ২০১৪ সালের ভোটের পর গিয়েছিলেন মহারাষ্ট্রের প্রতাপগড়ে।

দুই ইসরায়েলি মন্ত্রীর জোট সরকার ভেঙে দেওয়ার হুমকি
                                  

ডিটিভি অনলাইন ডেস্ক:

সম্প্রতি গাজায় যুদ্ধবিরতির বিষয়ে একটি প্রস্তাবনা দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। তবে ওই প্রস্তাবে ইসরায়েল যদি রাজি হয় তবে জোট সরকার থেকে সরে দাঁড়ানোর হুমকি দিয়েছেন দেশটির দুই উগ্র ডানপন্থি মন্ত্রী। একই সঙ্গে তারা জোট সরকার ভেঙে দেওয়ারও হুমকি দিয়েছেন। গত শুক্রবার জো বাইডেনের গাজা যুদ্ধবিরতির প্রস্তাবের বিষয়টি সামনে আসে। খবর বিবিসির।

ইসরায়েলের অর্থমন্ত্রী বেজালেল স্মোট্রিচ ও জাতীয় নিরাপত্তা বিষয়ক মন্ত্রী ইতামার বেন-গভির বলেছেন, হামাসকে ধ্বংস করার আগে কোনো চুক্তিতে তারা সম্মতি জানাবেন না।

এদিকে ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু এই পরিকল্পনাকে বাস্তবায়ন করলে তার সরকারকে সমর্থন করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন বিরোধীদলীয় নেতা ইয়ার ল্যাপিদ।

এর আগেই নেতানিয়াহু অবশ্য জোর দিয়েই বলেছেন যে, হামাসের সামরিক ও শাসন ক্ষমতা ধ্বংস না হওয়া পর্যন্ত এবং সব জিম্মিকে মুক্তি না দেওয়া পর্যন্ত কোনো স্থায়ী যুদ্ধবিরতি হবে না।

প্রেসিডেন্ট বাইডেনের তিন অংশের প্রস্তাবটি ছয় সপ্তাহের যুদ্ধবিরতির মাধ্যমে শুরু হবে। এর আওতায় ইসরায়েলি প্রতিরক্ষা বাহিনী (আইডিএফ) গাজার জনবহুল এলাকা থেকে সৈন্য প্রত্যাহার করে নেবে। পরবর্তীতে এই চুক্তির মাধ্যমে সব জিম্মির মুক্তি, স্থায়ী সংঘাত বন্ধ এবং গাজার জন্য একটি বড় পুনর্গঠন পরিকল্পনার দিকে পরিচালিত হবে বলে জানানো হয়েছে।

তবে শনিবার সামাজিক মাধ্যমে এক পোস্টে স্মোট্রিচ জানান, তিনি নেতানিয়াহুকে বলেছেন যে, হামাসকে ধ্বংস করা এবং সব জিম্মিকে ফিরিয়ে না এনে সরকার যে প্রস্তাবিত রূপরেখার সঙ্গে সম্মত হয়েছে এবং যুদ্ধের সমাপ্তি ঘটাবে তিনি তার অংশ হবেন না।

তার কথার প্রতিধ্বনি করে ইতামার বেন-গভিরও বলছেন, এই চুক্তির অর্থ হলো যুদ্ধের সমাপ্তি এবং হামাসকে ধ্বংস করার লক্ষ্য পরিত্যাগ করা। এটি একটি বেপরোয়া চুক্তি, যা সন্ত্রাসবাদের বিজয় এবং ইসরায়েলের নিরাপত্তার জন্য হুমকিস্বরূপ। তিনি বলছেন, এই প্রস্তাবে রাজি হওয়ার চেয়ে তিনি বরং সরকার ভেঙে দেবেন।

চলছে শেষ দফার ভোটগ্রহণ, মোদীর ভাগ্য পরীক্ষা আজ
                                  

ডিটিভি অনলাইন ডেস্ক:

সপ্তম দফায় ভোট গ্রহণের মাধ্যমে শনিবার (১ জুন) শেষ হতে চলেছে ভারতের ১৮তম লোকসভা নির্বাচন। এই পর্বে পশ্চিমবঙ্গের ৪২টির মধ্যে নয়টি লোকসভা আসন রয়েছে। শেষ দফায় সাতটি রাজ্য ও একটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের মোট ৫৭টি আসনে ভোটগ্রহণ চলছে। মোট প্রার্থীর সংখ্যা ৯০৭।

সপ্তম তথা শেষ দফায় সাতটি রাজ্য ও একটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ভোট হচ্ছে। এর মধ্যে রয়েছে বিহারের আটটি, হিমাচল প্রদেশের চারটি, ঝাড়খণ্ডের তিনটি, ওড়িশার ছয়টি, পাঞ্জাবের ১৩টি, উত্তর প্রদেশের ১৩টি, পশ্চিমবঙ্গের ৯টি ও চণ্ডীগড়ের একটি আসন। এদিন পঞ্জাব ও হিমাচল প্রদেশের সব আসনেই ভোটগ্রহণ চলছে।

এদিকে, শেষ দফায় আরও বেশি সংখ্যায় ভোট দেওয়ার জন্য নাগরিকদের আহ্বান জানিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। শনিবার সকালে নিজের এক্স (পূর্বে টুইটার) হ্যান্ডলে লেখেন, আজ শেষ দফার লোকসভা নির্বাচন। আটটি রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল মিলিয়ে ৫৭টি কেন্দ্রে ভোট হচ্ছে। আমার আশা, যুব সম্প্রদায় ও নারী ভোটাররা রেকর্ড সংখ্যায় ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। চলুন, সবাই মিলে আমাদের গণতন্ত্রকে আরও সমৃদ্ধ ও প্রতিনিধিত্বমূলক করে তুলি।

সপ্তম দফায় ৫৭ আসনে মোট প্রার্থীর সংখ্যা ৯০৭। বলা হচ্ছে জনতার দরবারে নরেন্দ্র মোদীর ‘ভাগ্য পরীক্ষা’ এই দফাতেই। এই নিয়ে তৃতীয়বার উত্তর প্রদেশের বারাণসি আসনে লড়তে নেমেছেন তিনি।

বিজেপির অন্য গুরুত্বপূর্ণ প্রার্থীদের মধ্যে রয়েছেন কঙ্গনা রানাউত (মণ্ডী আসন), অনুরাগ ঠাকুর (হামিরপুর আসন), রবিশঙ্কর প্রসাদ (পাটনা সাহিব আসন)। কংগ্রেসের টিকিটে লড়ছেন পাঞ্জাবের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী চরণজিৎ সিংহ চন্নী (জালন্ধর আসন) ও সাবেক দুই কেন্দ্রীয় মন্ত্রী আনন্দ শর্মা (কাংড়া আসন) ও মণীশ তিওয়ারি (চণ্ডীগড় আসন)।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশে তরল দুধের দাম
                                  

ডিটিভি অনলাইন ডেস্ক:

দুধ অত্যন্ত পুষ্টিকর ও সুষম একটি খাবার। শারীরিক শক্তি–সামর্থ্য ঠিক রাখতে ও আরও মজবুত করতে দুধের বিকল্প নেই। কেবল শিশু-কিশোর নয়, তরুণ, মধ্যবয়সী ও বয়সী সব মানুষেরই নিয়মিত দুধ পান করা অপরিহার্য।

তবে দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতির এই বাজারে নিত্যপ্রয়োজনীয় প্রায় প্রতিটি পণ্যের মূল্যই সাধারণ ও স্বল্প আয়ের মানুষের ক্রয়ক্ষমতার বাইরে চলে গেছে। সেই সঙ্গে বেড়েছে দুধের দামও। আসুন জেনে নেওয়া যাক, কোন দেশে লিটারপ্রতি ‍দুধ কত দামে (বাংলাদেশি মুদ্রার হিসাবে) বিক্রি হচ্ছে। বহুজাতিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান নামবিওর (এনইউএমবিও) ওয়েবসাইট থেকে এসব দাম সংগ্রহ করা হয়েছে।

সবচেয়ে বেশি দামে দুধ বিক্রি হয় ক্যারিবিয়ান দেশ জামাইকাতে। সেখানে এক লিটার তরল দুধ গড়ে প্রায় ৩৯৪ টাকায় বিক্রি হয়। আর উচ্চ মানের দুগ্ধজাত পণ্যের জন্য বিখ্যাত সবেচেয়ে দেশ নিউজিল্যান্ডে লিটারপ্রতি দুধ বিক্রি হয় গড়ে ২১৮ টাকায়। সুইজারল্যান্ডে এক লিটার দুধের দাম ২২৪ টাকা। অস্ট্রেলিয়ায় লিটারপ্রতি ‍দুধ বিক্রি হচ্ছে ১৮০ টাকায়।

এদিকে, যুক্তরাষ্ট্রে এক লিটার দুধের দাম প্রায় ১২৪ টাকা, যেখানে রাশিয়ায় এক লিটার দুধ বিক্রি হচ্ছে প্রায় ১০২ টাকায়। অন্যদিকে, ইউক্রেনে এখন লিটারপ্রতি দুধ বিক্রি হচ্ছে ১১২ টাকার কিছু বেশিতে।

এশিয়ার মধ্যে সবচেয়ে বেশি দামে দুধ বিক্রি হয় চীনের বিশেষ প্রশাসনিক অঞ্চল হংকংয়ে। এখানে এক লিটার দুধের দাম প্রায় ৩৮১ টাকা। ভারতে এক লিটার দুধ গড়ে ৫৮ দশমিক ৪৬ রুপিতে বিক্রি হচ্ছে, বাংলাদেশি টাকায় যা ৮২ টাকার কিছু বেশি। পাকিস্তানে লিটারপ্রতি দুধ বিক্রি হচ্ছে ২১৩ দশমিক ৩৬ রুপিতে বা প্রায় ৯০ টাকায়

চীনে এক লিটার দুধের দাম বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ২৩৩ টাকা। চীনের প্রতিবেশি দেশ জাপানে দুধের দাম লিটারপ্রতি গড়ে ১৬১ টাকা। নেপালে ৯২, ভূটানে ১০০, ইন্দোনেশিয়ায় ১৪৬, ভিয়েতনামে ১৬৮, মালয়েশিয়ায় ১৭৮, শ্রীলঙ্কায় ১৮৭ টাকা, থাইলান্ডে ১৮৮, ফিলিপাইনে ১৯৮ টাকা, দক্ষিণ কোরিয়ায় ২৪১, তাইওয়ানে ৩৫০ ও সিঙ্গাপুরে ৩৩১ টাকায় লিটারপ্রতি ‍দুধ বিক্রি হচ্ছে।

এদিকে, মধ্যপ্রাচ্যের দেশুগলোর মধ্যে দুধের দাম সবচেয়ে বেশি সৌদি আরবে প্রায় ১৯৫ টাকায়। কাতারে ২৪৫ টাকা, সংযুক্ত আরব আমিরাতে ২৩১ টাকায়, ওমানে ২১৬ টাকা, ইসরায়েলে ২০৮, কুয়েতে ১৭৯ টাকা, জর্ডানে ১৭৩ টাকা, ইরাকে ১৪৬ টাকা, ইরানে ৭৬ টাকা, ফিলিস্তিনে ২০৫ টাকায়, বাহরাইনে ১৪০ টাকার আশেপাশে বিক্রি হচ্ছে।

তীব্র তাপপ্রবাহের মধ্যে লোডশেডিং, পাকিস্তানে বিক্ষোভ
                                  

ডিটিভি অনলাইন ডেস্ক:

লোডশেডিংয়ের বিরুদ্ধে ২০ মে পাকিস্তানের করাচিতে বিক্ষোভ।
পাকিস্তানে তীব্র তাপপ্রবাহের মধ্যে লোডশেডিং বেড়েছে ব্যাপকভাবে। এমন পরিস্থিতিতে দেশটির বিভিন্ন জায়গায় বিক্ষোভ করছে নাগরিকরা।

দীর্ঘ লোডশেডিংয়ের কারণে জীবন দুর্বিষহ হয়ে পড়ায় গত কয়েকদিন ধরে করাচি ও পেশোয়ারসহ অসংখ্য শহরে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে। সম্প্রতি পাকিস্তানে তাপপ্রবাহ বেড়েছে ও এ ধরনের আবহাওয়া আরও কিছুদিন থাকবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

করাচিতে গোলিমারের বাসিন্দারা দুই ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ করে। এতে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। যদিও পরে সেখানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়।

খাইবার জেলার ল্যান্ডি কোটালে লোডশেডিংয়ের কারণে বিপর্যস্ত নাগরিকরা একটি গ্রিড স্টেশনে হামলা চালায়। বিক্ষুব্ধ জনতা গ্রিড স্টেশনে ঢুকে অবস্থান কর্মসূচি পালন করে। এ সময় বিক্ষোভকারীরা ২০ ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে চলা লোডশেডিং বন্ধের দাবি জানান।

গিলগিট-বালতিস্তানের চিলাস এলাকায় অঘোষিত লোডশেডিংয়ের কারণে সেখানের বেশ কয়েকটি জায়গায় বিক্ষোভ হয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে সেখানের ব্যবসায়ীরা দোকান বন্ধ করে ধর্মঘট পালন করছে।

তাছাড়া বেলুচিস্তানের নাসিরাবাদ এলাকায় নাগরিকরা ১২ ঘণ্টা লোডশেডিংয়ের বিরুদ্ধে রাস্তায় নামে। সেখানে নাগরিকরা টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ ও হাইওয়ে অবরোধ করে।


   Page 1 of 29
     আন্তর্জাতিক
শরিকদের কোন কোন মন্ত্রণালয় দিলো বিজেপি
.............................................................................................
তীব্র গরমে নাজেহাল পশ্চিমবঙ্গবাসী
.............................................................................................
হামলার পর কেমন আছেন ড্যানিশ প্রধানমন্ত্রী?
.............................................................................................
অবশেষে ইসরায়েলকে ‘অপরাধী’ দেশের তালিকায় যুক্ত করলো জাতিসংঘ
.............................................................................................
লোহিত সাগরে গ্রিসের জাহাজে হুথিদের হামলা
.............................................................................................
দক্ষিণ আফ্রিকায় বন্যায় ২২ জনের মৃত্যু
.............................................................................................
কংগ্রেসের উত্থানে বিজেপিতে অস্বস্তি, বারানসিতে জয় পাবেন মোদী?
.............................................................................................
২৫৭ আসনে এগিয়ে বিজেপি
.............................................................................................
পশ্চিমবঙ্গে এগিয়ে তৃণমূল
.............................................................................................
যুক্তরাষ্ট্রে গোলাগুলিতে নিহত ১, আহত ২৪
.............................................................................................
সিরিয়ায় ইসরায়েলি হামলায় নিহত ১২
.............................................................................................
ধ্যান ভেঙেছেন মোদী, বুথফেরত জরিপে এগিয়ে বিজেপি
.............................................................................................
দুই ইসরায়েলি মন্ত্রীর জোট সরকার ভেঙে দেওয়ার হুমকি
.............................................................................................
চলছে শেষ দফার ভোটগ্রহণ, মোদীর ভাগ্য পরীক্ষা আজ
.............................................................................................
বিশ্বের বিভিন্ন দেশে তরল দুধের দাম
.............................................................................................
তীব্র তাপপ্রবাহের মধ্যে লোডশেডিং, পাকিস্তানে বিক্ষোভ
.............................................................................................
নির্বাচনী প্রচার শেষে ধ্যানে বসছেন মোদী
.............................................................................................
গাজায় ৭ মাসের সংঘাতে প্রাণ হারিয়েছেন ১০ হাজারের বেশি নারী
.............................................................................................
পশ্চিমাদের সতর্ক করলেন পুতিন
.............................................................................................
দিল্লিতে শিশু হাসপাতালে আগুন, ৭ নবজাতকের মৃত্যু
.............................................................................................
চীনে পৌঁছেছেন ‘পুরোনো বন্ধু’ পুতিন
.............................................................................................
ইসরায়েলি হামলায় ২৪ ঘণ্টায় ৮২ ফিলিস্তিনি নিহত
.............................................................................................
ইন্দোনেশিয়ায় বন্যায় ৫৮ জনের প্রাণহানি
.............................................................................................
গাজায় ইসরায়েলি হামলায় নিহত বেড়ে ৩৫১৭৩
.............................................................................................
কে হচ্ছেন রাশিয়ার নতুন প্রতিরক্ষামন্ত্রী
.............................................................................................
ইন্দোনেশিয়ায় বন্যায় মৃত্যু বেড়ে ৪১
.............................................................................................
প্লেনে নারী যাত্রীর আজব কাণ্ড
.............................................................................................
ব্রাজিলে ভয়াবহ বন্যায় মৃত্যু ১০০ ছাড়িয়ে গেছে
.............................................................................................
ইসরায়েলি বোমা হামলায় একই পরিবারের ৭ জন নিহত
.............................................................................................
কারাদণ্ড হতে পারে ট্রাম্পের: বিচারকের সতর্কবাণী
.............................................................................................
পুলিৎজার পেলো রয়টার্স-নিউইয়র্ক টাইমস-ওয়াশিংটন পোস্ট
.............................................................................................
গাজায় ইসরায়েলি হামলায় নিহত বেড়ে ৩৪৭৩৫
.............................................................................................
সোনা কিনতে দুবাই ছুটছেন ভারতীয়রা
.............................................................................................
হামাসের হামলার জবাবে রাফায় ইসরায়েলের হামলা, নিহত ১৯
.............................................................................................
ব্রাজিলে ভয়াবহ বন্যায় নিহত ৫৭, ঘরছাড়া ৭০ হাজার মানুষ
.............................................................................................
জম্মু-কাশ্মীরে বন্দুক হামলায় ভারতীয় বিমান সেনা নিহত, আহত ৫
.............................................................................................
রাজনৈতিক চাপে পড়েই ভারতকে দুষছে কানাডা: জয়শংকর
.............................................................................................
ইন্দোনেশিয়ায় দেড় বিলিয়ন ডলারের বেশি বিনিয়োগ করবে মাইক্রোসফট
.............................................................................................
পেঁয়াজ রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করলো ভারত
.............................................................................................
গরম থেকে বাঁচতে ট্রাফিক পুলিশদের এসি হেলমেট দিলো পশ্চিমবঙ্গ সরকার
.............................................................................................
চলতি বছর কলকাতায় হিট স্ট্রোকে প্রথম মৃত্যু
.............................................................................................
এবার মার্কিন সিনেটে ইউক্রেন-ইসরায়েলের জন্য সহায়তা বিল পাস
.............................................................................................
পৌষের শেষ দিন শীতে কাঁপছে কলকাতা
.............................................................................................
ড্রোন হামলার জবাবে ইরাকে যুক্তরাষ্ট্রের ক্ষেপণাস্ত্র হামলা
.............................................................................................
ভারতে ৭ মাসে সর্বোচ্চ সংক্রমণ, আরও একজনের মৃত্যু
.............................................................................................
চীনে শক্তিশালী ভূমিকম্পে মৃত্যু বেড়ে ১৩১
.............................................................................................
বিরোধীদের দমনপীড়ন-নির্বাচনের নিয়ম পরিবর্তন করে ফের ক্ষমতায় সিসি
.............................................................................................
ভারতে ফের বাড়ছে করোনা, বিভিন্ন রাজ্যে সতর্কতা
.............................................................................................
উচ্ছিষ্ট খাবার দিয়ে সাদা কাপড়ে লিখে সাহায্য চেয়েছিল জিম্মিরা
.............................................................................................
পিএমও কর্মকর্তা পরিচয়ে ৬ নারীকে বিয়ে, প্রতারক গ্রেফতার
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
চেয়ারম্যান: এস.এইচ. শিবলী ।
সম্পাদক, প্রকাশক: জাকির এইচ. তালুকদার ।
হেড অফিস: ২ আরকে মিশন রোড, ঢাকা ১২০৩ ।
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: বাড়ি নং ২, রোড নং ৩, সাদেক হোসেন খোকা রোড, মতিঝিল বা/এ, ঢাকা ১০০০ ।
ফোন: 01558011275, 02-৪৭১২২৮২৯, ই-মেইল: dtvbanglahr@gmail.com
   All Right Reserved By www.dtvbangla.com Developed By: Dynamic Solution IT Dynamic Scale BD & BD My Shop    
Dynamic SOlution IT Dynamic POS | Super Shop | Dealer Ship | Show Room Software | Trading Software | Inventory Management Software Computer | Mobile | Electronics Item Software Accounts,HR & Payroll Software Hospital | Clinic Management Software Dynamic Scale BD Digital Truck Scale | Platform Scale | Weighing Bridge Scale Digital Load Cell Digital Indicator Digital Score Board Junction Box | Chequer Plate | Girder Digital Scale | Digital Floor Scale