| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
   * সুযোগ আছে বিএসসি অ্যারোনটিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে   * উন্নয়নের জন্য প্রয়োজন ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গী ....ড. এফ এইচ আনসারী   * সবার মতামত নিয়েই গণতন্ত্রের ধারাবাহিকতা রক্ষায় ব্যবস্থা :প্রধানমন্ত্রী   * ডুবোচরে আটকে আছে ১৫টি মালবাহী জাহাজ   * নিম্নকক্ষে নিয়ন্ত্রণ হারালেন ট্রাম্প   * শেখ হাসিনার অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব ---ব্যারিষ্টার নাজমুল হুদা   * আমার সংসার টিকে আছে এইতো বেশি   * গোপালগঞ্জে মোবাইলে প্রেমের ফাঁদ চক্রের ৫ সদস্য গ্রেফতার   * সাটুরিয়ায় দলিল হাতে ঘুরছে ভূমিহীন ২০ পরিবার   * এ্যরোনটিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং পেশায় আসতে চাইলে  

   ইসলাম
  নবীজি যেভাবে রোজা রাখতেন
  26, May, 2018, 1:13:6:PM

ডিটিভি বাংলা নিউজঃ
রমজান বরকতময় মাস। এ মাসে শয়তানকে শৃঙ্খলাবদ্ধ করা হয়। আকাশের দরজাসমূহ খুলে দেওয়া হয়। জাহান্নামের দরজাগুলো বন্ধ করে দেওয়া হয়। এ মাসে এমন একটি মহিমান্বিত রাত রয়েছে যা হাজার মাসের চেয়েও শ্রেষ্ঠ।
রসুলে পাক (সা.)-এর রোজাগুলো কেমন ছিল? তিনি সাহরিতে কী খেতেন, ইফতার করতেন কোন ফলটি দিয়ে? আর তাঁর সাহাবিরাই বা রোজা করতেন কোন নিয়মে? সব মুসলমানের মধ্যেই এ সম্পর্কে আগ্রহ থাকাই স্বাভাবিক। রমজানের প্রস্তুতির জন্য শাবান থেকেই নফল রোজা শুরু করতেন নবীজী (সা.)। হজরত আয়শা (রা.) বলেন, ‘আমি রসুল (সা.)-কে শাবান মাস ছাড়া আর কোনো মাসেই এত বেশি নফল রোজা রাখতে দেখিনি। (বুখারি) তিনি (সা.) সাহাবিদেরও রোজার প্রস্তুতির জন্য উৎসাহ দিতেন।

হজরত ইমরান ইবনে হুসাইন (রা.) থেকে বর্ণিত, রসুল (সা.) কোনো একজনকে বলছিলেন, হে অমুকের পিতা! তুমি কি শাবান মাসের শেষ দিকে রোজা রাখনি? তিনি বললেন, না। রসুল (সা.) বললেন, তাহলে তুমি রমজানের পরে দুটি রোজা পূর্ণ কর। (বুখারি)

রমজানের ঠিক আগে আগেই রসুল (সা.) রমজানের ফজিলত এবং বরকত সম্পর্কে সাহাবিদের জানিয়ে দিতেন। এ সম্পর্কে অনেক হাদিসের মধ্যে একটি হাদিস উল্লেখ করছি। রসুল (সা.) বলেছেন, ‘রমজান বরকতময় মাস। এ মাসে শয়তানকে শৃঙ্খলাবদ্ধ করা হয়। আকাশের দরজাসমূহ খুলে দেওয়া হয়। জাহান্নামের দরজাগুলো বন্ধ করে দেওয়া হয়। এ মাসে এমন একটি মহিমান্বিত রাত রয়েছে যা হাজার মাসের চেয়েও শ্রেষ্ঠ।’ (মুসলিম) বিভিন্ন হাদিস থেকে জানা যায় রসুল (সা.) চাঁদ দেখে রোজা শুরু করতেন। হাদিসের বর্ণনা থেকে পাওয়া কেউ এসে তাকে সংবাদ দিত তিনি তা ঘোষণা করার অনুমতি দিতেন। তিনি (সা.) ইরশাদ করেছেন, ‘তোমরা চাঁদ দেখে রোজা রাখ এবং চাঁদ দেখেই রোজা ছাড়।’ (বুখারি)

জাঁকজমকহীন অনাড়ম্বর রোজা পালন করতেন রসুল (সা.)। নবীজী (সা.)-এর সাহরি ও ইফতার ছিল সাধারণের চেয়েও সাধারণ। হজরত আনাস (রা.) বলেন, ‘রসুল (সা.) কয়েকটি ভিজা খেজুর দিয়ে ইফতার করতেন। ভিজা খেজুর না থাকলে শুকনো খেজুর দিয়ে ইফতার করতেন। ভিজা কিংবা শুকনো খেজুর কোনোটাই না পেলে পানিই হতো তার ইফতার।’ (তিরমিজি) রসুল (সা.) সূর্যাস্তের সঙ্গে সঙ্গেই ইফতার করতে পছন্দ করতেন। ইফতারে দেরি করা তিনি পছন্দ করতেন না। তেমনিভাবে রসুল (সা.)-এর সাহরিও ছিল খুব সাধারণ। তিনি (সা.) দেরি করে একেবারে শেষ সময়ে সাহরি খেতেন। সাহরিতে তিনি দুধ ও খেজুর পছন্দ করতেন। এ সম্পর্কে সময়োপযোগী একটি হাদিস উল্লেখ করতে হয়। আহলে সুফফার অন্যতম সদস্য, সাহাবি হজরত আবু হুরায়রা (রা.) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, রসুল (সা.) বলেছেন, ‘তোমাদের কেউ যখন আজান শুনে, আর এ সময় তার হাতে খাবারের পাত্র থাকে, সে যেন আজানের কারণে খাবার বন্ধ না করে, যতক্ষণ না সে নিজের প্রয়োজন পূর্ণ না করে। আবু হুরায়রা (রা.) বলেন, মুয়াজ্জিন এ আজান দিতেন ফজর উদ্ভাসিত হওয়ার পরই। (সুনানে আবু দাউদ, সাওম অধ্যায়, হাদিস নং ২৩৪২; মুসনাদে আহমাদ; ২য় খণ্ড, হাদিস নং ৫১০, সনদ হাসান।)
অন্যান্য সময়ের চেয়ে রমজানে রসুল (সা.)-এর ইবাদতের পরিমাণ বেড়ে যেত। বুখারির বর্ণনা অনুযায়ী তিনি (সা.) প্রবাহিত বাতাসের মতো দান করতেন। রমজানে রসুল (সা.) জিবরাইল (আ.)-কে কোরআন শুনাতেন। আবার জিবরাইল (আ.) হজরত (সা.)-কে কোরআন শুনাতেন। রমজানের রাতে তিনি (সা.) খুব কম সময় বিশ্রাম নিয়ে বাকি সময় নফল নামাজে কাটিয়ে দিতেন। নির্ভরযোগ্য হাদিস থেকে জানা যায়, রসুল (সা.) তিন দিন সাহাবিদের নিয়ে তারাবি পড়েছেন। চতুর্থ দিন থেকে তিনি ঘরে আর সাহাবিরা বাইরে নিজেদের মতো নামাজ পড়তেন। খলিফা ওমর (রা.)-এর সময় জামাতে তারাবি পড়ার প্রচলন হয়। আমাদের দেশে রমজান এলেই তারাবি নিয়ে তর্ক-বিতর্ক শুরু হয়ে যায়। যা মোটেই কাম্য নয়। তারাবি সুন্নত নামাজ। আর বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করা হারাম। আমাদের সুবিধামতো আমরা নামাজ পড়ব, অসুবিধা থাকলে না পড়ব। কিন্তু সমাজে ফেতনা সৃষ্টি করার অধিকার আমাদের কারও নেই।
শেষ দশ দিন ইতিকাফ করা রসুল (সা.)-এর নিয়মিত সুন্নত ছিল। ইতিকাফে কদরের রাত তালাশ করাই মূল উদ্দেশ্য। অত্যন্ত দুঃখজনক হলেও সত্য! শেষ দশকে আমাদের মসজিদগুলো মুসল্লিশূন্য থাকে। রসুল (সা.) শাওয়ালের চাঁদ দেখে রোজা ছাড়তেন।



       
   শেয়ার করুন
Share Button
   আপনার মতামত দিন
     ইসলাম
নবীজি যেভাবে রোজা রাখতেন
.............................................................................................
৬৫ হাজার টাকায় ওমরাহ
.............................................................................................
২৫ এতিম রোহিঙ্গা শিশুর দায়িত্ব নিলো মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ
.............................................................................................
মক্কী ও মাদানী সুরা কাকে বলে?
.............................................................................................
রজব মাসের প্রথম রাতে দোআ কবুল হয়
.............................................................................................
কাকে ঘৃণা করবেন পাপকে না পাপীকে?
.............................................................................................
আজ চাঁদ দেখা কমিটির সভা
.............................................................................................
সারাদেশে মসজিদের সংখ্যা ২ লাখ ৫০ হাজার ৩৯৯
.............................................................................................
মক্কা মসজিদে শিয়া নেতা হাসান রোহানিকে স্বাগত জানালো ভারতের সুন্নিরা
.............................................................................................
এতিমের ভরণপোষণকারী জান্নাতে নবীজির সবচেয়ে কাছে থাকবে
.............................................................................................
মেরিকে অবমাননায় তিন মুসলিমকে কুরআন মুখস্তের শাস্তি খ্রিস্টান বিচারকের
.............................................................................................
বাবার খুশিতে আল্লাহর সন্তুষ্টি
.............................................................................................
পুরুষদের এক স্ত্রী’তেই সন্তুষ্ট থাকা উচিত: সৌদি আলেম
.............................................................................................
শয়তানের সবচেয়ে প্রিয় কাজ
.............................................................................................
সৌদির জবাবদিহিতা ও মুসলিম বিশ্ব
.............................................................................................
মানবজীবনে রাসুলুল্লাহ (সা.) আদর্শের প্রয়োজনীয়তা
.............................................................................................
আপনার দায়িত্ব সম্পর্কে সচেতন হোন
.............................................................................................
‘বিশ্বশান্তির পক্ষে ইসলাম ধর্ম বড়ই বিপজ্জনক’
.............................................................................................
অজুতে আল্লাহর সন্তুষ্টি
.............................................................................................
শিশুদের প্রতি মহানবী (সা.) এর মমতা
.............................................................................................
ইসলামে পবিত্রতার তাৎপর্য
.............................................................................................
তাবলীগ জামায়াতে আলেমদের ব্যাপক অংশ গ্রহণ প্রয়োজন
.............................................................................................
শ্রেণি ও বর্ণবৈষম্যহীন সমাজ গঠনে মহানবী (সা.)
.............................................................................................
দুনিয়া ও আখেরাতের সবচেয়ে সুখের জায়গা
.............................................................................................
কসমের কাফফারা কী আবশ্যক?
.............................................................................................
মদিনার আনসারদের প্রতি ভালোবাসা ইমানের দাবি
.............................................................................................
খেজুর গর্ভবতীদের জন্য আয়রন ক্যাপসুল
.............................................................................................
গরুর গোস্ত সম্পর্কে যা বলেছেন মোহাম্মদ (স.)
.............................................................................................
মৃত্যুকালে যা বলে গেলেন বিশ্বনবী সা. ও দুই খলিফা
.............................................................................................
আদমকে শিক্ষাদান এবং ফেরেশতাদের অপারগতার স্বীকৃতি
.............................................................................................
মদ পান সম্পর্কে কুরআনের সতর্কতা
.............................................................................................
উম্মুল মুমিনীন হজরত সাওদা বিনতে জামআ (রা.) এর জীবনগল্প
.............................................................................................
নবীজির প্রতি দুরূদ ও সালাম পেশ করা ঈমানের দাবি
.............................................................................................
ইসলামে পুরুষের তুলনায় নারীর সম্মান !
.............................................................................................
কাবা সম্পর্কে অজানা ১০টি তথ্য
.............................................................................................
যে দুয়া পড়ে রাসূল সা. ঘুমাতেন
.............................................................................................
কন্যা সন্তানদের বাবা মার জন্য জান্নাত অবধারিত!
.............................................................................................
বিয়ের সর্বাধিক উপযুক্ত নারী কে?
.............................................................................................
আল্লাহর ওয়াদা অবশ্যই পূর্ণ হবে
.............................................................................................
মুমিনের গুণ বর্ণনায় যেভাবে মুক্ত হলেন ক্রীতদাসী
.............................................................................................
গীবতের ভয়াবহ পরিণাম
.............................................................................................
বেশি লোক একসঙ্গে নামাজ পড়ার ফজিলত
.............................................................................................
কন্যা সন্তান লালন পালনের জন্য ছয়টি পরামর্শ[
.............................................................................................
জাযাকাল্লাহু খাইরান’ বলায় যে কল্যাণ অর্জিত হয়
.............................................................................................
মহররম মাস ও আশুরার ফজিলত
.............................................................................................
আরাকানের ইতিহাস
.............................................................................................
জামা-কাপড় পরিধানে যে দোয়া পড়বেন
.............................................................................................
যৌবনের ইবাদত যে কারণে মর্যাদাবান
.............................................................................................
১৫ হাজার ৪১৯ হাজি দেশে ফিরেছেন
.............................................................................................
আল্লাহর কাছে সব সময় যে দোয়া করা জরুরি
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
সম্পাদক : জাকির এইচ. তালুকদার ,
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : এস এইচ শিবলী ,
    [সম্পাদক মন্ডলী ]
সম্পাদক কর্তৃক ২ আরকে মিশন রোড থেকে প্রকাশিত।
ফোন: ০১৫৫৮০১১২৭৫, ই-মেইল:dailybortomandin@gmail.com
   All Right Reserved By www.dtvbangla.com Developed By: Dynamicsolution IT [01686797756]