| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
   * রেমিট্যান্স পাঠানোয় ঘোপলা প্রবাসীদের ব্যাংকে   * ফরিদপুরে পৃথক তিনটি সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত ১০, আহত ২৫   * রাজবাড়ী থেকে মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার   * রাজবাড়ীতে নতুন ৮ জন ডেঙ্গু রোগী ভর্তি   * গোয়ালন্দে মাইক্রোবাসের ধাক্কায় বাস চালকের মৃত্যু   * ফরিদপুর জেলার নগরকান্দায় আদালতের আদেশ অমান্য করে নির্মান হচ্ছে গ্রামীনফোন টাওয়ার   * ভারত থেকে মানহীন বাস-ট্রাক আমদানি করছে বিআরটিসি   * ‘জয় শ্রী রাম’ বলেও জীবন বাঁচাতে পারল না মুসলিম ছেলেটা   * ভালোবাসা হৃদয় না বিজ্ঞানের খেলা!   * ব্যাংক বুথে ডিজিটাল জালিয়াতি: ৬ বিদেশি রিমান্ডে  

   দেশজুড়ে
  স্বাধীনতার মহানায়ক
  27, March, 2018, 1:19:57:PM

 দেওয়ান জাহাঙ্গীর:বাংলাদেশের ইতিহাসে মার্চ মাস অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এ মাসের ৭, ১৭ ও ২৬ তারিখে এমন সব গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা ঘটেছে, যা আমাদের জাতিসত্তার সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়িত। ১৭ মার্চের কারণে ৭ মার্চ এবং ২৬ মার্চ সম্ভব হয়েছে। ১৭ মার্চ বাংলাদেশের নিভৃত এক পল্লী টুঙ্গিপাড়ায় যদি সেই রাখাল বালকের জন্ম না হতো, তাহলে ৭ ও ২৬ মার্চের ঘটনা কে ঘটাত? বটের ক্ষুদ্র বীজ থেকে চারাগাছ হিসেবে জন্ম নিয়ে বটগাছে মহীরুহে আকার ধারণ করে। সে দিনের সেই রাখাল বালক ক্রমাগত অগ্রগতির পথে চলতে চলতে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালিতে রূপান্তরিত হন।

এখন স্পষ্ট করেই বলা যায়, বঙ্গবন্ধুর জন্ম হয়েছিল বলেই আজ আমরা স্বাধীন। বাংলাদেশ একটা স্বাধীন-সার্বভৌম রাষ্ট্র। আজকের বাংলাদেশই ছিল পাকিস্তান আমলের পূর্ব পাকিস্তান। বাঙালির ভোটেই পাকিস্তানের জন্ম। আর সেই পাকিস্তানেই বাঙালিরা ছিল নিপীড়িত, নির্যাতিত ও নিগৃহীত। ওরা আমাদের মায়ের ভাষায় কথা বলার অধিকার কেড়ে নিতে চেয়েছিল। পূর্ব বাংলার বাঙালিদের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা না করেই পাকিস্তানের গভর্নর জেনারেল উর্দুকে একমাত্র পাকিস্তানের রাষ্ট্রভাষা করার ঘোষণা দেন। পূর্ব পাকিস্তানের মাটিতে দাঁড়িয়েই ১৯৪৮ সালে ওই ঘোষণা দেওয়া হয়। প্রতিবাদমুখর হয় বাঙালির দামাল ছেলেরা। নো, নো বলে গর্জে ওঠে তারা। সেদিনের সেই নো, নো যার কণ্ঠে উচ্চারিত হয়েছিল, তিনি হচ্ছেন প্রলয়ঙ্করী যুবক মুজিব ভাই। তখনো তিনি বঙ্গবন্ধু হয়ে ওঠেননি। জাতির পিতা হওয়ার ব্যাপারটা ছিল স্বপ্নস্বরূপ। আর সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালির কথা তো চিন্তাই করা যেত না।

রাখাল রাজার অসাধারণ ঘটনাবহুল জীবনের মূল কারণ ছিল তাঁর আমৃত্যু দেশপ্রেম, সাহসিকতা, সততা ও সাধারণ মানুষের জন্য অকৃত্রিম ভালোবাসা। ঔপনিবেশিক ব্রিটিশ ও পাকিস্তানের আধা ঔপনিবেশিক বাংলাদেশকে প্রায় ২০০ বছর শাসন করে যে চরম বিপর্যয়ে নিপতিত করেছিল, তা উপলব্ধি করে শেখ মুজিবের হৃদয় কেঁদে ওঠে। মুক্তির বৈপ্লবিক চিন্তায় তিনি উদ্বুদ্ধ হয়ে ওঠেন। কী করে দেশের মানুষকে স্বাধীন, শোষণমুক্ত ও সমৃদ্ধিশালী করা যায়, এটাই ছিল তার জীবনের স্বপ্ন-সাধনা। শোষিত, বঞ্চিত ও নিপীড়িত মানুষের কল্যাণে তিনি তাঁর জীবন উৎসর্গ করেছিলেন। শোষিত, বঞ্চিত ও নিপীড়িত মানুষের জন্যই ছিল তাঁর রাজনীতি। বিশ্ব মানবতা তিনি দুভাগে ভাগ করেছেন একটি শোষক ও অন্যটি শোষিত। তিনি দৃঢ়তার সঙ্গে ঘোষণা দিয়েছিলেন, তিনি শোষিতের পক্ষে। আর ওই শোষিত, বঞ্চিত ও নিপীড়িত মানুষের মুক্তির লক্ষ্যেই অবশেষে তাঁর জীবন দিতে হয়।

অনেকে বলেন, তিনি একদলীয় শাসন করে গণতন্ত্র হত্যা করেছেন। ৭২-এর সংবিধান প্রণয়ন ও ৭৩-এর সেই সংবিধানভিত্তিক নির্বাচন। সেই নির্বাচন ও সেই জাতীয় নির্বাচনে একচ্ছত্রভাবে বিজয়ী হয়ে তিনিই প্রথম সংসদীয় গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করেন। প্রায় তিন বছর সেই গণতন্ত্র কার্যকর ছিল এবং সেই গণতন্ত্রের সুবাদে স্বাধীনতার শত্রুরা এমন এক বিপর্যয়কর পরিস্থিতির সৃষ্টি করেছিল, তাঁকে সাময়িকভাবে গণতন্ত্র সীমিত করে একটা জাতীয় দল গঠন করে স্বাধীনতার স্বপক্ষের শক্তির সর্বাত্মক শক্তি জাতীয় ঐক্য প্রতিষ্ঠিত করে তিনি যুদ্ধবিধ্বস্ত স্বাধীন বাংলাদেশকে দ্রুত অগ্রগতির পথে এগিয়ে নিতে চেয়েছিলেন এবং সে কারণে তাঁকে রাষ্ট্রীয় অর্থে সামাজিক ও রাজনৈতিক ক্ষেত্রে এমন কিছু বিষয় পরিবর্তন করতে হয়েছিল, যা গণতন্ত্রের সঙ্গে ছিল বেশ কিছুটা অসামঞ্জস্যপূর্ণ। ওটা ছিল একটা সাময়িক ব্যবস্থাপনা। তিনি বলেছিলেন, বাস্তব অবস্থা স্বাভাবিক হলেই তিনি পূর্ণ গণতান্ত্রিক অবস্থায় দেশকে ফিরিয়ে নেবেন। ওই কর্মসূচিকে তিনি দ্বিতীয় বিপ্লব বলে অভিহিত করেছিলেন এবং ওই কর্মসূচি বাস্তবায়নের আগেই স্বাধীনতার শত্রুরা আন্তর্জাতিক সাম্রাজ্যবাদীর চক্রান্তের সহযোগিতায় তাঁকে স্বগৃহে প্রায় সব পারিবারিক সদস্যসহ নির্মমভাবে হত্যা করল। এরপর শুরু হলো উল্টোপথের যাত্রা।

জিয়া, এরশাদ, খালেদা, সায়েম ও সাত্তার সুদীর্ঘ ১৫ বছর একটানা মুক্তিযুদ্ধের চেতনাবিরোধীদের পরামর্শে রাজাকার, আলবদর ও আল-শামসদের সরকার ও রাজনীতিতে অংশীদারিত্ব দিয়ে প্রায় পাকিস্তানের কাছাকাছি রূপে একটা রাষ্ট্রে রূপান্তর করল। যাকে তারা মুসলিম বাংলা বলে অভিহিত করার চেষ্টা করেছেন। এই প্রতিবিপ্লবী চক্র ধর্ম নিরপেক্ষ, অসাম্প্রদায়িক ও গণতান্ত্রিক বাংলাদেশকে স্বৈরাচারকবলিত করে ঠিক পাকিস্তানি কায়দার প্রক্রিয়া ধারায় এগিয়ে নেওয়ার চেষ্টা চালান। সাম্প্রদায়িকতা, ধর্মান্ধতা ও সামাজিক-সাংস্কৃতিক কুসংস্কারকে প্রশ্রয় দিয়ে তারা বাংলাদেশকে পাকিস্তানের অনুরূপ একটা সাম্প্রদায়িক প্রগতিবিরোধী রাষ্ট্রে রূপান্তরিত করলেন। ঠিক এমনি সময় বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা দেশের বাইরে থেকে বিশেষ কাউন্সিলে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি নির্বাচিত হয়ে বাংলাদেশে ফিরে আসেন এবং তার বাবার স্বাধীন করা বাংলাদেশকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করেন।

মাত্র তিন বছরে স্বাধীন বাংলাদেশ অর্থাৎ পূর্ব পাকিস্তান যা পাকিস্তানের একটা প্রদেশ ছিল ও সেখানে কেন্দ্রীয় সরকারের কোনো প্রতিষ্ঠানই ছিল না। বাংলাদেশকে একটা স্বাধীন ও সার্বভৌম রাষ্ট্রে রূপান্তর করার লক্ষ্যে তিনি সব অবকাঠামো তৈরির প্রস্তাব দিলেন। বর্তমান শাসকরা নতুন করে সেখানেই হাত দিচ্ছেন, বিশেষ করে জননেত্রী শেখ হাসিনার অভিমত হচ্ছে, রাষ্ট্রীয় প্রশাসনের এমন কোনো ক্ষেত্র নেই যেখানে বঙ্গবন্ধু সূচনা করেননি। একটা প্রাদেশিক সরকারকে জাতীয় সরকারে রূপান্তর করা সহজসাধ্য ছিল না। ব্যাংকে টাকা ছিল না, গুদামে শস্য ছিল না, বাজারে নিত্যব্যবহারযোগ্য পণ্যও ছিল না। এ ছাড়া স্কুল, কলেজ, শিল্প-কারখানা, হাটবাজার, কৃষিকার্য এমনকি যানবাহন পর্যন্ত সম্পূর্ণভাবে অকার্যকর ছিল। এক কোটি মানুষ অনাহারে শরণার্থী দেশে ফিরে আসছিল আর দেশের অভ্যন্তরে ছিল আরো দুই কোটি মানুষ। তাদের প্রায় এক বছর খাদ্য সরবরাহ করতে হয়েছিল। বসবাস করার মতো কোনো আশ্রয়ও ছিল না। লাখ লাখ পরিবারকে আশ্রয় স্থান নির্মাণ করে দিতে হয়েছিল। কৃষিব্যবস্থা চালু করার জন্য প্রত্যেকটি পরিবারকে বেশ কয়েক হাজার টাকা অনুদান ও ঋণ দেওয়া হয়েছিল। প্রত্যেকটা যুদ্ধে নিহত মানুষদের কমপক্ষে দুই হাজার টাকা দেওয়া হয়েছিল। এরূপ ভয়াবহ পরিস্থিতি মোকাবিলা করার জন্য জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাড়ে তিন বছর স্বাধীন বাংলাদেশ রাষ্ট্রের নাগরিক হিসেবে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে সক্ষম হলেন। দেশকে স্বাধীন করার জন্য বঙ্গবন্ধুকে দীর্ঘ ২৩ বছর নিরবচ্ছিন্নভাবে সংগ্রাম করতে হয়েছে।

৫২-৭১ এই ১৯ বছরই বঙ্গবন্ধুর জীবন ছিল সংগ্রামমুখর। একটা দিনের জন্যও তাঁকে হানাদার পাকিস্তানিরা স্বস্তি দেয়নি। ১৪ বছর কারাগারে কাটিয়েছেন। জীবন ও যৌবন উৎসর্গ করেছেন এ দেশের মানুষের জন্য। বারবার ফাঁসির কাষ্ঠে দাঁড়িয়েছেন কিন্তু জনগণের স্বার্থ বিসর্জন দেওয়ার আপস করেননি। নিজের জীবনের চেয়েও তিনি সাধারণ মানুষের স্বার্থকে বড় করে দেখতেন ও তাদের জন্য চরম আত্মত্যাগে প্রস্তুত ছিলেন। এ দেশের মানুষের রক্তের ঋণ শোধ করার যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন, তা অক্ষরে-অক্ষরে পালন করেছেন। এ কারণেই আজ বঙ্গবন্ধুর সম্পর্কে জনগণের মূল্যায়ন হচ্ছে : তিনিই স্বাধীনতা, তাঁর নামের অর্থই হচ্ছে বাংলাদেশ। বাংলাদেশের বিকল্প হিসেবে একমাত্র তাঁকেই বোঝায়।

পৃথিবীর অনেক দেশ আছে, যারা বাংলাদেশকে না চিনলেও বঙ্গবন্ধুকে চিনে ও তাঁর স্বাধীন করা দেশ চিনে। তিনি শুধু বাঙালির নেতা নন, বিশ্বের মুক্তিকামী মানুষের নেতা। জয় বাংলা বলতে তিনি শুধু বাঙালির বিজয়কে বোঝাননি, পৃথিবীর যেকোনো দেশের সাধারণ মানুষের বিজয়ের প্রতীক হিসেবে তিনি জয় বাংলা বলেছেন। সব শোষিত-বঞ্চিত মানুষের কণ্ঠস্বর তিনি। সব কৃষক, শ্রমিক ও মেহনতি মানুষের মুক্তিই ছিল তার একমাত্র লক্ষ্য। এমনকি বাংলাদেশের স্বাধীনতার চেতনায় প্রথমে মুক্তি ও পরে স্বাধীনতার কথা বলেছেন। অর্থনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিকসহ সর্বাত্মক মুক্তির কথাই তাঁর কণ্ঠ থেকে উচ্চারিত হয়েছে। তাঁর বজ্রকণ্ঠে যে জয় বাংলা বাণী নিঃসৃত হয়েছিল, এর ওপর ভর করেই আমরা জাতীয় স্বাধীনতা অর্জন করেছি। জাতীয়তাবাদী চেতনাকে জাতিসত্তায় রূপান্তর করে জাতি রাষ্ট্রে প্রতিষ্ঠিত করার কৃতিত্ব একমাত্র তাঁরই। তাই তো তিনি সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি। তাঁর বিকল্প কেউ বর্তমান নেই, আগামীতেও হবে না। তিনি একজন চিরঞ্জীব, বাংলার মানুষের মুক্তিদাতা ।  দেওয়ান জাহাঙ্গীর:



       
   শেয়ার করুন
Share Button
   আপনার মতামত দিন
     দেশজুড়ে
আড়াই লাখ ডলারে নাজিবের জামিন
.............................................................................................
পুনরায় ভোট গণনার পক্ষে রায় দিয়েছে ইরাকের সর্বোচ্চ আদালত
.............................................................................................
উত্তর প্রদেশে বাস দুর্ঘটনায় ১৭ জন নিহত
.............................................................................................
পারমাণবিক চুক্তি নিয়ে রাশিয়া ও চীনের সাথে ইরানের সম্মেলন
.............................................................................................
কাল কানাডা যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
কাশ্মিরে যুদ্ধবিরতিতে সম্মত ভারত ও পাকিস্তান
.............................................................................................
পরিবেশ বাঁচাতে ঘাসের কাগজ!
.............................................................................................
বাগমারায় সুইপারদের হাতে মেয়র কালাম লাঞ্ছিত!
.............................................................................................
স্বাধীনতার মহানায়ক
.............................................................................................
২৫ মার্চ ‘গণহত্যা দিবস’ পালনে আওয়ামী লীগের আলোচনা সভা
.............................................................................................
মামলায় আমরাও জর্জরিত : রুহুল আমিন হাওলাদার
.............................................................................................
বাহুবলে বাস-অটোরিকশার সংঘর্ষে নিহত ২
.............................................................................................
স্বাধীনতার মাসে পাকিস্তানি সেনার আদলে ভাস্কর্য!
.............................................................................................
রাঙামাটিতে ইউপিডিএফের দুই নেত্রীকে অপহরণ, গুলিবিদ্ধ ১
.............................................................................................
কর দিলেই ট্যাক্স কার্ড : অর্থমন্ত্রী
.............................................................................................
বরিশালে নদী থেকে আরো ১ মরদেহ উদ্ধার, সংখ্যা বেড়ে ৭
.............................................................................................
রাঙ্গাবালীতে পুকুরে বৃদ্ধের লাশ!
.............................................................................................
সাপাহারে মৎস্যচাষ প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত
.............................................................................................
জাতীয়তাবাদী শক্তিকে নির্বাচন থেকে বিরত রাখার চক্রান্ত করছে সরকার: ফখরুল
.............................................................................................
সাপাহারে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে গণস্বাক্ষর কর্মসূচী পালিত
.............................................................................................
খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে গণস্বাক্ষর কর্মসূচিতে বিএনপি
.............................................................................................
প্যারাডাইস পেপারসের নতুন তালিকায় মুসা বিন শমসেরসহ ২০ বাংলাদেশির নাম
.............................................................................................
মানবাধিকারকর্মী আসমা জাহাঙ্গীরের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক
.............................................................................................
আদালতে ক্যামেরা নিয়ে সাংবাদিকদের প্রবেশে বাধা কেন ?: মওদুদ
.............................................................................................
সড়ক দুর্ঘটনায় বাড়ছে মৃত্যু, পুড়ছে স্বপ্ন
.............................................................................................
ভালুকায় বিশ কোটি টাকা মূল্যের জমি জবর দখলের অভিযোগ
.............................................................................................
‘মাদরাসার ছাত্ররা জঙ্গি হতে পারে না’
.............................................................................................
আজ সরস্বতী পূজা
.............................................................................................
সালথা নগরকান্দায় অসহায়ের মধ্যে যুবলীগ নেতার শীতবস্ত্র বিতরন
.............................................................................................
মিয়ানমারের বিরুদ্ধে রোহিঙ্গাদের সংগ্রাম ছাড়া কোনো বিকল্প নেই: আরসা
.............................................................................................
বিএসএফের নির্যাতনে বাংলাদেশির মৃত্যু
.............................................................................................
জয়পুরহাট হানাদার মুক্ত দিবস কাল
.............................................................................................
স্বজনদের সামনেই রোহিঙ্গা নারীদের ধর্ষণ করা হয়েছে
.............................................................................................
সখীপুরে খেজুর রস সংগ্রহে ব্যস্ত গাছিরা
.............................................................................................
ঢাকা-টাঙ্গাইল সড়কে দীর্ঘ যানজট
.............................................................................................
৫ ঘণ্টা পর ফেরি চলাচল শুরু
.............................................................................................
আজ ২৬তম আন্তর্জাতিক প্রতিবন্ধী দিবস
.............................................................................................
সিলেটের সাথে সারাদেশের রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক
.............................................................................................
দিনাজপুর সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশি নিহত
.............................................................................................
ভৈরবের দু’পাড়ে দর্শনার্থীর ঢল
.............................................................................................
নওগাঁয় বাস খাদে, নিহত ২
.............................................................................................
চুয়াডাঙ্গায় দুই মালবাহী ট্রেনের সংঘর্ষ, চালকসহ আহত ৪
.............................................................................................
ছাত্র-শ্রমিক সংঘর্ষ : দিনাজপুরে পরিবহন ধর্মঘট
.............................................................................................
৮ মাসের শিশুকে গলা কেটে হত্যা!
.............................................................................................
৫২ বছর পর সরাসরি খুলনা-কলকাতা রুটে ট্রেন চলাচল শুরু
.............................................................................................
‘নির্বাচনে রোহিঙ্গাদের ব্যবহার হতে পারে’
.............................................................................................
চার বছরের শিশুও মুক্তিযোদ্ধা তালিকায়!
.............................................................................................
সুন্দরবন থেকে ৩ ‘বনদস্যু’ আটক
.............................................................................................
কর্পোরেট ট্যাক্স কমাতে পদক্ষেপ নেবে আগামী সরকার : অর্থমন্ত্রী
.............................................................................................
বর্তমান সরকারকে ফের ক্ষমতায় আনতে হবে’
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
সম্পাদক : জাকির এইচ. তালুকদার ।     [সম্পাদক মন্ডলী ]
সম্পাদক কর্তৃক ২ আরকে মিশন রোড থেকে প্রকাশিত।
ফোন: ০১৭১৩৫৯২৬৯৬ , ই-মেইল: dtvbanglahr@gmail.com
   All Right Reserved By www.dtvbangla.com Developed By: Dynamicsolution IT [01686797756]