| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
   * রেমিট্যান্স পাঠানোয় ঘোপলা প্রবাসীদের ব্যাংকে   * ফরিদপুরে পৃথক তিনটি সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত ১০, আহত ২৫   * রাজবাড়ী থেকে মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার   * রাজবাড়ীতে নতুন ৮ জন ডেঙ্গু রোগী ভর্তি   * গোয়ালন্দে মাইক্রোবাসের ধাক্কায় বাস চালকের মৃত্যু   * ফরিদপুর জেলার নগরকান্দায় আদালতের আদেশ অমান্য করে নির্মান হচ্ছে গ্রামীনফোন টাওয়ার   * ভারত থেকে মানহীন বাস-ট্রাক আমদানি করছে বিআরটিসি   * ‘জয় শ্রী রাম’ বলেও জীবন বাঁচাতে পারল না মুসলিম ছেলেটা   * ভালোবাসা হৃদয় না বিজ্ঞানের খেলা!   * ব্যাংক বুথে ডিজিটাল জালিয়াতি: ৬ বিদেশি রিমান্ডে  

   দেশজুড়ে
  স্বজনদের সামনেই রোহিঙ্গা নারীদের ধর্ষণ করা হয়েছে
  12, December, 2017, 1:53:59:PM

রোহিঙ্গা নারীদের ওপর মিয়ানমার সেনাবাহিনীর যৌন নিপীড়নের ঘটনা অনুসন্ধান করতে গিয়ে সংঘবদ্ধ ও পরিকল্পিত ধর্ষণের তথ্য পাওয়া গেছে। এক অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে জানা গেছে, কখনো সামনে স্বামীকে বেঁধে রেখে, কখনো আবার স্বামী-সন্তানকে হত্যার পর ধর্ষণ করা হয় ওই নারীদের। ধর্ষণের আগে-পরে রোহিঙ্গা নারীদের যোনিতে বন্দুকের নল ঢুকিয়ে দেওয়ার মতো ঘটনাও জানা গেছে।

বাংলাদেশের শরণার্থীশিবিরে অবস্থানরত ২৯ রোহিঙ্গা নারীর সঙ্গে পৃথক পৃথক সাক্ষাৎকারের ভিত্তিতে এই প্রতিবেদন তৈরি করা হয়েছে। ধর্ষণের শিকার হওয়া নারীদের সংখ্যা বিস্মিত করেছে। তবে নিজেদের অনুসন্ধান সম্পর্কে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর অবস্থান জানার চেষ্টা করলেও তাদের কাছে কোনো সাড়া মেলেনি। জাতিসংঘ এবং দুই ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি ও গার্ডিয়ানের পৃথক অনুসন্ধানে একই রকম বাস্তবতা উঠে এসেছে।

২৫ আগস্টের পর রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতনের চিত্র উঠে আসে সবার সামনে। মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর নিধনযজ্ঞ থেকে বাংলাদেশে পালিয়ে আসে ছয় লাখেরও বেশি রোহিঙ্গা। তাদের মুখে উঠে আসে সেনাবাহিনীর বর্বরতার চিত্র। পালিয়ে আসা এমন ২৯ জন নারীর সঙ্গে কথা বলেছে এপি। তাদের বয়স ১৩ থেকে ৩৫-এর মধ্যে। ২০১৬ সালের অক্টোবর থেকে চলতি বছর সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি পর্যন্ত এই নিপীড়ন চলে। পৃথকভাবে তাদের সাক্ষাৎকার নেওয়া হলেও সবার ঘটনা প্রায় একই বলে জানান তারা। প্রত্যেকেই নিজের নামের প্রথম অক্ষর বলতে রাজি হয়েছেন। কুতুপালং আশ্রয়কেন্দ্রে থাকা রোহিঙ্গারা জানান, তাদের ঝি-বউদের ওপর ধর্ষণ ছিল পরিকল্পিত ও সংঘবদ্ধ।

পুলিৎজার সেন্টার অন ক্রাইসিস রিপোর্টিংয়ের অর্থায়নে বিশেষ এই প্রতিবেদন তৈরি করা হয়। জাতিসংঘ রোহিঙ্গাদের বিশ্বের সবচেয়ে নিপীড়িত জনগোষ্ঠী বলে চিহ্নিত করেছে। রোহিঙ্গাদের বেশির ভাগেই বসবাস এখন বাংলাদেশে। তাদের সঙ্গেই কথা বলা হয়েছে। তারা নাম প্রকাশ করতে রাজি হননি। তাদের আশঙ্কা এতে করে তাদের পরিবারকে খুন করতে পারে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী। ‘এফ’ নামে একজন বলেন, জুন মাসের এক রাতে ঘুমাচ্ছিলেন তিনি ও তার স্বামী। হঠাৎ মাঝরাতে তাদের দরজা ভেঙে ঢুকে পড়ে সাতজন সেনা। তখনই বুঝে যান কী ঘটতে চলেছে তার সঙ্গে। তার বাবা-মা ও ভাই খুন হয়েছে এই সেনাসদস্যদের হাতে। আর এবার এলো তার জন্য। এসেই তার স্বামীকে বেঁধে ফেলে, মুখে কাপড় গুঁজে দেয়। অসহায় হয়ে পড়েন দুজনই। এরপর সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হন ওই নারী। একই সঙ্গে চলতে থাকে বেত্রাঘাত। একটা সময় মুখের কাপড় ফেলে চিৎকার করতে সক্ষম হয় তার স্বামী। কিন্তু তখনই সেনারা গুলি করেন। একজন কেটে ফেলেন গলা। আর ধর্ষণের পর তাকে বাইরে এনে পুড়িয়ে দেন বাড়ি। দুই মাস পর এফ জানতে পারেন তিনি গর্ভবতী।

নিপীড়নের শিকার প্রত্যেক নারীই বলেন, মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর একদল কর্মী এই কাজে যুক্ত ছিল। একজন বাদে প্রত্যেক নারীই বলেছেন যে হামলকারীদের পরনে সেনাবাহিনীর মতো ইউনিফর্ম ছিল। যে-ই একজন বলেছিলেন যে হামলাকারী সামরিক পোশাকে ছিলেন না, তাকেও সেনাঘাঁটিতে দেখেছেন প্রতিবেশীরা। অনেক নারী জানান, হামলাকারীদের পোশাকে তারা, তীর কিংবা সামরিক বাহিনীর অন্যান্য চিহ্ন দেখতে পেয়েছেন। ‘এফ’-এর মতোই ধর্ষণের শিকার হয়েছেন প্রায় সবাই। প্রথমে পুরুষদের কাছ থেকে তাদের আলাদা করে ফেলা হয়। এর পর অন্য কোথাও নিয়ে গিয়ে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ করা হয় তাকে।

ধর্ষণের শিকার নারীরা জানান, চোখের সামনেই হত্যা করা হয় তাদের সন্তানদের। স্বামীকে গুলি করে বা পিটিয়ে মেরে ফেলা হয়। প্রিয়জনকে মাটি দিয়ে রাতের অন্ধকারেই পালিয়ে আসতে হয় সবাইকে। নিপীড়নের কথা বলতেই থাকেন নারীরা। সেই কষ্ট নিয়েই হেঁটে লম্বা পথ পাড়ি দিয়ে আসেন বাংলাদেশে। ‘এন’ নামে একজন বলেন, তিনি ধর্ষণের পর বেঁচে গেছেন। কিন্তু নিজের স্বামী, দেশ ও শান্তি হারিয়েছেন। তার পরও তিনি কথা বলেন হয়তো কেউ তার কথা শুনবেন। তিনি বলেন, ‘আমার কিছুই নেই। আমি শুধু কথাই বলতে পারি।’

এ ধর্ষণ ও নির্যাতনের ব্যাপারে সেনাবাহিনীর সঙ্গে কথা বলতে চাওয়া হলেও বারবার প্রত্যাখ্যান করেছে তারা। তবে সরকারি এক গবেষণায় তারা দাবি করেছে যে, সেনাবাহিনী কোনো নিধনযজ্ঞে জড়িত ছিল না। এমনটি সেনা কর্মকর্তা তিন্ত সোয়ে বলেছিলেন, রোহিঙ্গা নারীরা ধর্ষণের মতো আকর্ষণীয় না। তবে চিকিৎসক ও ত্রাণকর্মীরা জানিয়েছেন, তারা ধর্ষণের সংখ্যা দেখে বিস্মিত। মূল সংখ্যার অল্প কয়েকজনই হয়তো সামনে এসেছেন। মেডিসিন স্যানস ফ্রন্টিয়ার জানায়, তারা ধর্ষণের শিকার ১১৩ জনের চিকিৎসা করেছেন। তাদের এক-তৃতীয়াংশই ১৮ বছরের নিচে। সবচেয়ে কম বয়সীজনের বয়স ৯ বছর।

ড. মিসবাহ উদ্দিন একজন সরকারি স্বাস্থ্য কর্মকর্তা। তার স্বাস্থ্যকেন্দ্রে প্রচুর নারী ও শিশু চিকিৎসা নিতে আসে। ব্যাপারটি নিয়ে খুবই উদ্বিগ্ন তিনি। তিনি রোগীদের ফাইল বের করে দেখাতে থাকেন, কীভাবে ধর্ষণের শিকার হয়েছেন তারা। ৫ সেপ্টেম্বর সাত মাসের একজন গর্ভবতী নারীকে ধর্ষণ করে তিন সেনা। আরেকজন জানান, ঘুমিয়ে থাকা অবস্থায় তার বাড়িতে হামলা চালায় তিন সেনা এবং ধর্ষণ করে। অপর এক নারী জানান, দুই-এক মাস আগে দুই সেনা তার বাড়িতে হামলা চালিয়ে তার স্বামীকে মারতে থাকে। এর পর তাকে ধর্ষণ করে। মিসবাহ আহমেদ বলেন, যারা চিকিৎসা নিতে আসে, তারা কোনো উপায় না পেয়ে আসে। আর বাকিরা নীরবে কষ্ট সহ্য করে যায়।

হামলার মাত্রা এখন অনেক তীব্র হলেও মিয়ানমারের সেনারা নতুন করে এটি করছে না। অং সান সু চি নিজেও নির্বাচিত হওয়ার আগে সেনাবাহিনীর সমালোচনা করেন। ২০১১ সালে এক ভিডিও বার্তায় তিনি বলেছিলেন, ‘ধর্ষণই রাইফেল। এটাই হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করছে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী।’ আর এখন সু চি সরকার সেনা বর্বরতা নিন্দা জানাতে শুধু ব্যর্থই হননি বরং অভিযোগগুলো মিথ্যা বলে উড়িয়ে দিয়েছেন। আহমেদ বলেন, এই নারীদের অবিশ্বাস করার কোনো সুযোগই নেই। এরপর একের পর এক ফাইল দেখাতে থাকেন তিনি।

গাইনোকোলজিস্ট আরজিনা আখতার এই হত্যাযজ্ঞের ফল দেখেছেন। আগস্টের পর থেকে এত নারী তার হাসপাতালে আসতে শুরু করে যে, তিনি ফরম পূরণ করতে না করেছেন। এতে করে দ্রুত চিকিৎসা করার সুযোগ পাচ্ছেন তিনি। সেপ্টেম্বর ও অক্টোবরে অন্যান্য নারীদের সঙ্গে ২০-৩০ জন ভর্তি হয়েছেন, যারা ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। ক্ষতের কথা বলতে গিয়ে তিনি জানান, বন্দুকের নল নারীদের যোনির ভেতর প্রবেশ করানো হয়। প্রবেশ করানো হয় ধারালো বস্তুও। সাম্প্রতিক সময়ে অনেকে গর্ভপাতের জন্য আসেন। আরজিনা জানান, এখন সেটা সম্ভব না। তবে শিশুদের দায়িত্ব নেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন তিনি।

কিন্তু এখনো অনেক রোহিঙ্গা বাচ্চা নিতে চাইছেন না বলে জানান আরজিনা। তবে ২৫ আগস্ট পরিস্থিতি আরো খারাপ হয়। ধর্ষণের পর তার প্রতিবেশীরা ‘এফ’-এর সেবা করেছিলেন। তিন মাস পরেও তার দুর্দশা কাটেনি। তার বাড়ি পুড়ে গেছে। স্বামী মারা গেছে। পেটের সন্তান নিয়ে নিশ্চিত নন। তার চাওয়া ছিল পরিস্তিতি যেন আর খারাপ না হয়। তবে সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি পরিস্থিতি আবারও খারাপ হয়। প্রতিবেশীর বাড়িতে ঘুমিয়ে থাকার সময় সেনারা বাড়িতে হামলা চালায়। এবার ছিলেন পাঁচজন। ঢুকেই ৫ বছরের ছেলেকে জবাই করে সেনারা। হত্যা করে পুরুষকে। এরপর তার স্ত্রী ও এফ-এ এগোতে থাকে সেনারা।

আবারও সেই দুঃস্বপ্ন শুরু হয় ‘এফ’-এর। দুজন সেনা এফ-এর পেট চেপে ধরে। অন্য নারী প্রতিরোধের চেষ্টা করলে তাকেও মারতে থাকে সেনারা। একটা সময় হাল ছেড়ে দেওয়া ছাড়া উপায় ছিল না তার। সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হন সে নারী। এরপর তাদের ফেলে চলে যায় হামলাকারীরা।



       
   শেয়ার করুন
Share Button
   আপনার মতামত দিন
     দেশজুড়ে
আড়াই লাখ ডলারে নাজিবের জামিন
.............................................................................................
পুনরায় ভোট গণনার পক্ষে রায় দিয়েছে ইরাকের সর্বোচ্চ আদালত
.............................................................................................
উত্তর প্রদেশে বাস দুর্ঘটনায় ১৭ জন নিহত
.............................................................................................
পারমাণবিক চুক্তি নিয়ে রাশিয়া ও চীনের সাথে ইরানের সম্মেলন
.............................................................................................
কাল কানাডা যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
কাশ্মিরে যুদ্ধবিরতিতে সম্মত ভারত ও পাকিস্তান
.............................................................................................
পরিবেশ বাঁচাতে ঘাসের কাগজ!
.............................................................................................
বাগমারায় সুইপারদের হাতে মেয়র কালাম লাঞ্ছিত!
.............................................................................................
স্বাধীনতার মহানায়ক
.............................................................................................
২৫ মার্চ ‘গণহত্যা দিবস’ পালনে আওয়ামী লীগের আলোচনা সভা
.............................................................................................
মামলায় আমরাও জর্জরিত : রুহুল আমিন হাওলাদার
.............................................................................................
বাহুবলে বাস-অটোরিকশার সংঘর্ষে নিহত ২
.............................................................................................
স্বাধীনতার মাসে পাকিস্তানি সেনার আদলে ভাস্কর্য!
.............................................................................................
রাঙামাটিতে ইউপিডিএফের দুই নেত্রীকে অপহরণ, গুলিবিদ্ধ ১
.............................................................................................
কর দিলেই ট্যাক্স কার্ড : অর্থমন্ত্রী
.............................................................................................
বরিশালে নদী থেকে আরো ১ মরদেহ উদ্ধার, সংখ্যা বেড়ে ৭
.............................................................................................
রাঙ্গাবালীতে পুকুরে বৃদ্ধের লাশ!
.............................................................................................
সাপাহারে মৎস্যচাষ প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত
.............................................................................................
জাতীয়তাবাদী শক্তিকে নির্বাচন থেকে বিরত রাখার চক্রান্ত করছে সরকার: ফখরুল
.............................................................................................
সাপাহারে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে গণস্বাক্ষর কর্মসূচী পালিত
.............................................................................................
খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে গণস্বাক্ষর কর্মসূচিতে বিএনপি
.............................................................................................
প্যারাডাইস পেপারসের নতুন তালিকায় মুসা বিন শমসেরসহ ২০ বাংলাদেশির নাম
.............................................................................................
মানবাধিকারকর্মী আসমা জাহাঙ্গীরের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক
.............................................................................................
আদালতে ক্যামেরা নিয়ে সাংবাদিকদের প্রবেশে বাধা কেন ?: মওদুদ
.............................................................................................
সড়ক দুর্ঘটনায় বাড়ছে মৃত্যু, পুড়ছে স্বপ্ন
.............................................................................................
ভালুকায় বিশ কোটি টাকা মূল্যের জমি জবর দখলের অভিযোগ
.............................................................................................
‘মাদরাসার ছাত্ররা জঙ্গি হতে পারে না’
.............................................................................................
আজ সরস্বতী পূজা
.............................................................................................
সালথা নগরকান্দায় অসহায়ের মধ্যে যুবলীগ নেতার শীতবস্ত্র বিতরন
.............................................................................................
মিয়ানমারের বিরুদ্ধে রোহিঙ্গাদের সংগ্রাম ছাড়া কোনো বিকল্প নেই: আরসা
.............................................................................................
বিএসএফের নির্যাতনে বাংলাদেশির মৃত্যু
.............................................................................................
জয়পুরহাট হানাদার মুক্ত দিবস কাল
.............................................................................................
স্বজনদের সামনেই রোহিঙ্গা নারীদের ধর্ষণ করা হয়েছে
.............................................................................................
সখীপুরে খেজুর রস সংগ্রহে ব্যস্ত গাছিরা
.............................................................................................
ঢাকা-টাঙ্গাইল সড়কে দীর্ঘ যানজট
.............................................................................................
৫ ঘণ্টা পর ফেরি চলাচল শুরু
.............................................................................................
আজ ২৬তম আন্তর্জাতিক প্রতিবন্ধী দিবস
.............................................................................................
সিলেটের সাথে সারাদেশের রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক
.............................................................................................
দিনাজপুর সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশি নিহত
.............................................................................................
ভৈরবের দু’পাড়ে দর্শনার্থীর ঢল
.............................................................................................
নওগাঁয় বাস খাদে, নিহত ২
.............................................................................................
চুয়াডাঙ্গায় দুই মালবাহী ট্রেনের সংঘর্ষ, চালকসহ আহত ৪
.............................................................................................
ছাত্র-শ্রমিক সংঘর্ষ : দিনাজপুরে পরিবহন ধর্মঘট
.............................................................................................
৮ মাসের শিশুকে গলা কেটে হত্যা!
.............................................................................................
৫২ বছর পর সরাসরি খুলনা-কলকাতা রুটে ট্রেন চলাচল শুরু
.............................................................................................
‘নির্বাচনে রোহিঙ্গাদের ব্যবহার হতে পারে’
.............................................................................................
চার বছরের শিশুও মুক্তিযোদ্ধা তালিকায়!
.............................................................................................
সুন্দরবন থেকে ৩ ‘বনদস্যু’ আটক
.............................................................................................
কর্পোরেট ট্যাক্স কমাতে পদক্ষেপ নেবে আগামী সরকার : অর্থমন্ত্রী
.............................................................................................
বর্তমান সরকারকে ফের ক্ষমতায় আনতে হবে’
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
সম্পাদক : জাকির এইচ. তালুকদার ।     [সম্পাদক মন্ডলী ]
সম্পাদক কর্তৃক ২ আরকে মিশন রোড থেকে প্রকাশিত।
ফোন: ০১৭১৩৫৯২৬৯৬ , ই-মেইল: dtvbanglahr@gmail.com
   All Right Reserved By www.dtvbangla.com Developed By: Dynamicsolution IT [01686797756]