বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
   * স্পেনকে ভয় পাওয়ার কিছু নেই: গ্রিজম্যান   * গাজায় অভিযানে ৩২৪ ইসরায়েলি সেনা নিহত   * ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ, যুবককে পিটিয়ে হত্যা   * ঊর্ধ্বমুখী শেয়ারবাজার, আধাঘণ্টায় ১৫০ কোটি টাকার বেশি লেনদেন   * দীর্ঘমেয়াদে ক্ষমতা ভোগের স্বপ্ন জনগণ পূরণ হতে দেবে না: ফখরুল   * ট্রফির জন্য সমর্থকদের ধৈর্য ধরতে বললেন ব্রাজিল অধিনায়ক   * চিকিৎসক থেকে ইরানের প্রেসিডেন্ট, কে এই পেজেশকিয়ান?   * জামালপুরে পানিবন্দি লক্ষাধিক মানুষ, ২১৪ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ   * রপ্তানিতে নগদ সহায়তা কমানোর সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের দাবি   * ভারতের সঙ্গে ট্রানজিটে কিছু পাবে না বাংলাদেশ: সেলিমা  

   বিশেষ খবর -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
Kadamtali Thana Press Club greets newly-appointed Deputy Police Commissioner Iqbal Hossain

Staff Correspondent:

The newly-elected committee of Kadamtali Thana Press Club greeted Mohammad Iqbal Hossain for being promoted to Deputy Police Commissioner with floral bouquet recently.

Prior to this promotion, he was serving as an additional deputy commissioner (ADC) at the logistics department of Dhaka Metropolitan Police (DMP).

Kadamtali Thana Press Club founding president SH Sibly, executive president Sumon Chowdhury, general secretary Zakir H Talukder, organizing secretary SK Sabuj Ahmed, assistant organizing secretary Shahidul Islam, office secretary Nasir Mollah, publicity secretary Lion Mehedi Hasan, literature and publication secretary Nafis Milon, social welfare affairs secretary Asaduzzaman Asad, sports and cultural affairs secretary Kazi Aslam, executive members Nazmul Hasan, Srabon and Jashim Uddin, among others, were present on the occasion.

Newly-appointed Wari DC Mohammad Iqbal Hossain thanked the members of the club for greeting him. He sought co-operation from all quarters to overhaul the Wari division newly in future.

Kadamtali Thana Press Club greets newly-appointed Deputy Police Commissioner Iqbal Hossain
                                  

Staff Correspondent:

The newly-elected committee of Kadamtali Thana Press Club greeted Mohammad Iqbal Hossain for being promoted to Deputy Police Commissioner with floral bouquet recently.

Prior to this promotion, he was serving as an additional deputy commissioner (ADC) at the logistics department of Dhaka Metropolitan Police (DMP).

Kadamtali Thana Press Club founding president SH Sibly, executive president Sumon Chowdhury, general secretary Zakir H Talukder, organizing secretary SK Sabuj Ahmed, assistant organizing secretary Shahidul Islam, office secretary Nasir Mollah, publicity secretary Lion Mehedi Hasan, literature and publication secretary Nafis Milon, social welfare affairs secretary Asaduzzaman Asad, sports and cultural affairs secretary Kazi Aslam, executive members Nazmul Hasan, Srabon and Jashim Uddin, among others, were present on the occasion.

Newly-appointed Wari DC Mohammad Iqbal Hossain thanked the members of the club for greeting him. He sought co-operation from all quarters to overhaul the Wari division newly in future.

কদমতলী থানা প্রেসক্লাব ঢাকা এর সভাপতি হলেন এসএইচ শিবলী
                                  

স্টাফ রিপোর্টার:

ঢাকার কদমতলী থানার অন্তর্গত স্থানীয় সংবাদকর্মীদের সমন্বয়ে গঠিত কদমতলী থানা প্রেসক্লাব, ঢাকা এর ২০২৩-২০২৫ সময়ের নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। উক্ত সংগঠনে সভাপতি এসএইচ শিবলী এবং সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন জাকির এইচ. তালুকদার।

উল্লেখ্য ২০১৬ সালে ২১ সেপ্টেম্বর বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্যদিয়ে কদমতলী থানা প্রেসক্লাব, ঢাকা আনুষ্ঠানিক ভাবে উদ্ভোধন করা হয়েছিলো। যেখানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মৎস্য ও প্রাণীসম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বাবু নারায়ণ চন্দ্র চন্দ, উদ্ভোধক হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা ৪ আসনের সংসদ সদস্য আবু হোসেন বাবলা, প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা ০৫ আসনের সংসদ সদস্য মরহুম হাবিবুর রহমান মোল্লা এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা মেট্রো পলিটন পুলিশ ওয়ারী জোনের উপ-পুলিশ কমিশনার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন, এডিসি, এসি এবং সংশ্লিষ্ঠ থানার তৎকালীন ওসি ওয়াজেদ আলী মিয়া ।

এরই ধারাবাহিকতায় গতকাল মেরাজনগর গিয়াস সুপার মার্কেটের ২য় তলায় কদমতলী থানা প্রেসক্লাব, ঢাকা এর অফিসে সারাদিন উৎসব মূখর পরিবেশে ক্লাবের চতুর্থ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এতে সকল সদস্যদের সম্মতি সাক্ষরে ও ক্লাবের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপের জ্যুম মিটিংয়ের মাধ্যমে ২০২৩/২৫ ইং মেয়াদের ৩৫ বিশিষ্ট্য নবনির্বাচিত কার্যনির্বাহী কমিটি ঘোষণা করা হয়।

নতুন কমিটির সভাপতি হিসাবে চতুর্থ বারের মতো নির্বাচিত হন এস এইচ শিবলী (দৈনিক প্রভাত), নির্বাহী সভাপতি সুমন চৌধুরী (দৈনিক নতুন সময়) সিনিয়র সহসভাপতি আমির হোসেন আমু (মুক্তবিকাশ), সহ-সভাপতি আবুল কালাম আজাদ, (সাপ্তাহিক স্বদেশ বিচিত্রা), সহ-সভাপতি এম এ এইচ মাসুদ (সাপ্তাহিক বার্তা বিচিত্রা) সাধারণ সম্পাদক জাকির এইচ তালুকদার (দৈনিক দেশকাল), যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম জয় (দৈনিক আমাদের অর্থনীতি),সহ-সাধারণ সম্পাদক (এশিয়ান টিভি) অমর রঞ্জন মজুমদার, মো: কাউসার হোসেন (দৈনিক দিন প্রতিদিন) সাংগঠনিক সম্পাদক এস কে সবুজ আহামেদ (ক্রাইম ডিসকভারি) সহ- সাংগঠনিক সম্পাদক মো: জুবায়ের আলম (জীবন নিউজ ডট কম), মো: শহিদুল ইসলাম (আলোর জগত), দফতর সম্পাদক মোল্লা নাসির উদ্দীন (অপরাধ বিচিত্রা), আইন বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট ওয়াহিদুন নবী বিপ্লব (দৈনিক সকালের সময়) প্রচার সম্পাদক লায়ন মেহেদী হাসান, সাহিত্য ও প্রকাশনা সম্পাদক নাসিফ মিলন (ডেইলী ওমেন বাংলাদেশ), সহ-সাহিত্য ও প্রকাশনা সম্পাদক এনামুল হক (দৈনিক প্রতিদিনের খবর), তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক আব্দুর রহিম রিপন (চ্যানেল নিউজ ২১), ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক কাজী আসলাম (দৈনিক নতুন সময়), সমাজ কল্যাণ সম্পাদক মো: আসাদুজ্জামান আসাদ (দৈনিক বর্তমান দিন), নারী বিষয়ক সম্পাদক: হাজেরা আক্তার মুক্তা (মাসিক অবন্তিকা), যুগ্ন নারী বিষয়ক সম্পাদক; ফেরদৌসী হিরা (দ্য ইনভেস্টর), সহ্-নারী বিষয়ক সম্পাদক: তাসলিমা নাসির (ডেইলী প্রেজেন্ট টাইমস) এবং কার্যনির্বাহী সদস্য পদে নির্বাচিত হয়েছেন যথাক্রমে- পারভেজ ঈমাম (এটিএন বাংলা), এম এ হাসান (দৈনিক ঢাকা), এস এম মোহন (ডেইলী এশিয়ান এইজ), এড.আব্দুর রহমান পিন্টু (সরাসরি), শফিকুল ইসলাম (দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার), আব্দুল আইয়ুব আলী (সরাসরি), আব্দুল ওহাব শিবলু (ডিটিভি বাংলা), শেখ জামাল (ক্রাইম ডিসকভারি), আবু বকর মুহাম্মদ মুঈনুদ্দীন (দ্য প্রেজেন্ট টাইমস), রাকিব হোসেন মিলন (ডেইলী মর্নিং অবজারভার), ফায়সাল মোস্তফা-(দ্য ইনভেস্টর), নুরুল আমিন (চ্যানেল নিউজ২১)।

বিশেষভাবে উল্লেখ্য যে, কদমতলী থানা প্রেস ক্লাব, ঢাকা দীর্ঘ ১১ বছর অরাজনৈতিক সংবাদকর্মীদের সংগঠন হিসেবে স্থানীয় গণমাধ্যমকর্মীদের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছে। নব গঠিত কমিটির নেতৃবৃন্দ পূর্বের মতই বিভিন্ন সেবামূলক কাজের পাশাপাশি সংশ্লিষ্ঠ এলাকায় সময়োপযোগী কর্মকান্ডে দায়িত্বশীল ভুমিকা পালন অব্যাহত রাখার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেছে।

সেন্ট্রাল হাসপাতালে ভুল চিকিৎসা : নবজাতকের পর মারা গেলেন মা
                                  

Online desk (DTV BANGLA NEWS): রাজধানীর গ্রিন রোডে অবস্থিত সেন্ট্রাল হাসপাতালে ভুল চিকিৎসায় নবজাতকের মৃত্যুর পর মারা গেলেন লাইফ সাপোর্টে থাকা মা মাহবুবা রহমান আঁখি। রবিবার দুপুর ২টার দিকে তিনি ল্যাবএইড হাসপাতালে তিনি মারা যান। গতকাল শনিবার আঁখির স্বামী ইয়াকুব আলী গণমাধ্যমকে জানিয়েছিলেন, শরীরিক অবস্থা আরও অবনতি হয়েছে। সারা শরীরে ফোসকা পড়ে গেছে। শরীর সম্পূর্ণ কালো হয়ে গেছে। ডায়ালাইসিসে কোনো কাজ হচ্ছে না। প্রস্রাব বন্ধ হয়ে গেছে। এখনো জ্ঞান ফেরেনি। স্বামীর এমন ঘোষণার একদিন পরই চলে গেলেন স্ত্রী মাহবুবা রহমান আঁখি।নরমাল ডেলিভারি করাতে চেয়ে ফেসবুকে এ হাসপাতালের গাইনি চিকিৎসক ডা. সংযুক্তা সাহার নরমাল ডেলিভারি সংক্রান্ত ভিডিও ও পরামর্শ দেখে উদ্বুদ্ধ হয়েছিলেন তিনি। সেই চাওয়া অনুযায়ী ব্যবস্থা নেন তার স্বামী ইয়াকুব আলী। আর সেটাই যেন কাল হলো তার জন্য। জন্মের সময়ই মারা যায় নবজাতক আর আঁখি এখন মৃত্যুশয্যায়। তার শারীরিক অবস্থা আরও অবনতি হয়েছে। গত শুক্রবার (৯ জুন) প্রসব বেদনা শুরু হয় আঁখির। সেই রাতেই ডেলিভারির জন্য ডা. সংযুক্তা সাহার অধীনে প্রসূতি আঁখিকে সেন্ট্রাল হাসপাতালে ভর্তি করালে ডা. সংযুক্তা সাহার বদলে ডেলিভারি করতে যান ডা. মিলি।ডা. মিলি ওই প্রসূতির পেট কাটতে গিয়ে মূত্রনালি ও মলদ্বার কেটে ফেলেন। সঙ্গে সঙ্গে প্রচণ্ড রক্তক্ষরণ হয়ে রোগী জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। অজ্ঞান অবস্থায় সিজার করে বাচ্চা বের করার পর বাচ্চার হার্টবিট কমে গেলে তাকে আইসিইউতে নেয়া হয়। কিছুক্ষণ পর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ নবজাতককে মৃত ঘোষণা করে।এ ঘটনায় বুধবার (১৪ জুন) ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) ধানমন্ডি থানায় সেন্ট্রাল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে অবহেলাজনিত মৃত্যুর অভিযোগ এনে মামলা করেন ইয়াকুব আলী। মামলার আসামিরা হলেন- সেন্ট্রাল হাসপাতালের ডা. মুনা সাহা (২৮), ডা. শাহজাদী মুস্তার্শিদা সুলতানা (৩৮), অধ্যাপক ডা. সংযুক্তা সাহার সহকারী মো. জমির, ডা. এহসান, ডা. মিলি ও সেন্ট্রাল হাসপাতালের ম্যানেজার পারভেজসহ আরও অজ্ঞাত ৫-৬ জন।বুধবার এজাহার নামীয় দুই আসামি ডা. মুনা সাহা ও ডা. শাহজাদী মুস্তার্শিদা সুলতানাকে গ্রেফতার করে ধানমন্ডি থানা পুলিশ। গ্রেফতারকৃত আসামিদের বৃহস্পতিবার (১৫ জুন) আদালতে তুললে তাদের জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন আদালত।

ফতুল্লাার আদর্শনগরে ঈদের খাদ্য-সামগ্রী
                                  

স্টাফ রিপোর্টার:

নারায়নগঞ্জ জেলার ফতুল্লা থানার অন্তর্গত আদর্শনগর এলাকায় দারিদ্র, অসহায় এবং দুস্থ্যদের মাঝে ঈদসামগ্রী বিতরণ করেছে স্থানীয় আওয়ামী লীগের অঙ্গসংগঠন ও স্থানীয় গণ্যমাণ্য ব্যাক্তিবর্গ। বুধবার ১২ এপ্রিল তারিখে আদর্শনগর এলাকায় অনুষ্ঠিত এই ঈদ সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথী হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কুতুবপুর ইউনিয়নের বারবার নির্বাচিত জনপ্রিয় চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মনিরুল আলম সেন্টু। আয়োজকরা জানান, অসহায় দারিদ্র জনসাধারণের মাঝে এই খাদ্য সামগ্রী বিতরণের মাধ্যমে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগী করাই ছিলো তাদের মূল লক্ষ্য। অনুষ্ঠানটির সার্বিক তত্বাবধানে ছিলেন ফতুল্লা থানা যুবলীগের সহ সভাপতি আশরাফুল ইসলাম জাকির এবং সমাজ সেবক মামুনুর রশিদের সৌজন্যে এটি অনুষ্ঠিত হয়। এলাকার বিশিষ্টজনদের নিয়ে অসহায় দারিদ্রদের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ এই অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন স্থানীয় বাইতুল আমান কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের সভাপতি আলহাজ্ব আব্দুল মতিন।

কৃষ্ণপুর ডবল বিরিজ হাটে বিষাক্ত কেমিক্যাল দিয়ে বাঙ্গি পাকানোর অভিযোগ
                                  


নজরুল শেখ, স্টাফ রিপোর্টার:

ফরিদপুরের সদরপুর উপজেলার ৬ নং কৃষ্ণপুর ইউনিয়নের ডবল ব্রিরিজ নামক, এলাকায় ইফতারির ফল বাঙ্গি বিষাক্ত ধরনের কেমিক্যাল, দিয়ে পাকানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে । অভিযোগকারী নাম শিবু মৃধা, বাড়ি চর দড়ি কৃষ্ণপুর । মানুষ সারাদিন রোজা রেখে যদি এই বিষাক্ত ধরনের কেমিক্যাল দেয়া বাঙ্গি দিয়ে ইফতারি করে তাহলে এমনিতেই অসুস্থ হয়ে যাবে ।

এ খান থেকে দেশের বিভিন্ন জায়গায় পৌঁছে যাচ্ছে বাঙ্গি, আর এই বাঙ্গি খেয়ে মানুষের বড় ধরনের ক্ষতি হয়ে যেতে পারে । তাই বিষাক্ত মেডিসিন দেয়া বাঙ্গি কেনার আগে চিন্তা ভাবনা করে কিনবেন । এই বাঙ্গি দিয়ে ইফতারি করার আগে চিন্তা ভাবনা করবেন সকলের কাছে অনুরোধ রইল, আমি নজরুল শেখ । একটু ঘুরতে গিয়েছিলাম বাঙ্গিরহাটে আমার সামনে বাঙ্গিতে কেমিক্যাল মেশানো হয় আমি অবাক হয়ে গেলাম ।

বাঙ্গি ব্যবসায়ীদের বললাম ভাই এই বাঙ্গি দিয়ে রোজাদার ব্যক্তিরা ইফতার করবেন , এটা কেমিক্যাল দিবেন না তাতে সারাদেশে মানুষ অসুস্থ হয়ে যেতে পারে । বাঙ্গি ব্যাপারীরা বলেন, আপনি আমাদের হাট থেকে বেরিয়ে যান, আমরা কেমিক্যাল দিয়ে পাকাবো যা ভালো হয় তাই করবো আপনি যা পারেন তাই লেখালেখি করেন । আমি এ বিষয় সদরপুর উপজেলার প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করছি ।
 

মুক্তিযোদ্ধা আতিয়ার রহমানের বীর নিবাস নির্মাণে অনিয়মের অভিযোগ
                                  

নজরুল শেখ,স্টাফ রিপোর্টার:

ফরিদপুরের নগরকান্দায় বীর নিবাস তৈরীতে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে। সরেজমিনে গিয়ে উপজেলা শহীদ নগর ইউনিয়নের আটকাহনিয়া গ্রামের বীরমুক্তিযোদ্ধা আতিয়ার রহমান এর বীর নিবাস নির্মাণে ঠিকাদারীর বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ করেন বীর মুক্তিযোদ্ধা আতিয়ার রহমান।


আতিয়ার রহমান বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মুজিব বর্ষে যে বীর নিবাস বরাদ্ধ দিয়েছেন সেটা আমাদের জন্য বিরাট পাওয়া এটা মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি, সম্মান দুটোই বহন করবে। কিন্তু দুঃখের বিষয় এ আবাসন গুলো কিছু অর্থ লোভী ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান এমন ভাবে তৈরী করছে যেটা বসবাসের জন্য অনুপযোগী ও মরনফাঁদের মতই। আমার নীজ আবাসনের ক্ষেত্রে ও এর ব্যতিক্রম হয়নি। এসময় বীর মুক্তিযোদ্ধা আতিয়ার রহমান আরও বলেন দীর্ঘদিন ধরে ঠিকাদার মনির আমার বীরনিবাসটির তৈরীর কাজ করছে। কাজের নেই কোন নিয়ম নীয়মনিতি ধারাবাহিকতা। আমি নিজে অনেকদিন ধরে অসুস্হ বীর নীবাসের ঠিক মত দেখাশুনা করার সুযোগ পাই না।তাই ঠিকাদার এসুযোগে সরকারী নিয়মনিতীর তুয়াক্কা না করে বিল্ডিং এর ফাউন্ডেশন,ছাঁদ, সিড়ি, কিচেন রুম, বারান্দার চাল সহ বিভিন্ন কাজে অনিয়ম করেছে। আমি উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা ইকবাল কবির স্যারকে অনেক বার এবিষয়টি জানিয়েছি তিনি বিষয়টি গুরুত্ব দেননি, এখানে একবারের জন্য ও আসেননি। এসময় তিনি আরো বলেন বীর নিবাস একতলা বিল্ডিং এর ফ্লোরে হাতদিয়ে খিমচি দিলে পাকা পলেস্তারা খসে উঠে যাচ্ছে।


এবিষয় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের মালিক মনিরুজ্জামান কে কাজের স্থানে না পাওয়ায় ও তার ফোন বন্ধ থাকায় বক্তব্য জানা যায়নি তবে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা ইকবাল কবির বলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা আতিয়ার রহমান এর বীর নিবাস নির্মাণের কাজে কোন অনিয়ম হয়েছে কিনা তা আমার জানা নেই এমনকি সে কোন অভিযোগও করেনি, বিষয়টি আপনাদের মাজে জানলাম বীর নিবাস নির্মাণে কোন অনিয়ম বরদাস্ত করা হবেনা, পাশাপাশি অনিয়ম হলে ঠিকাদারিদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বড় ভূমিকম্পের ঝুঁকিতে সিলেট ও চট্টগ্রাম
                                  

Online Desk(DTV  BANGLA NEWS):  তুরস্ক ও সিরিয়ায় ব্যাপক প্রাণহানির পর বড় ধরনের ভূমিকম্পের আশঙ্কা থেকে বাদ যাচ্ছে না বাংলাদেশও। ভারত ও মিয়ানমার প্লেটের সংযোগস্থলে দীর্ঘসময় ধরে শক্তি সঞ্চয় হচ্ছে। আর এ সংযোগস্থলেই অবস্থান বাংলাদেশের। ফলে ভয়াবহ ঝুঁকিতে রয়ে যাচ্ছে এ দেশ বিশেষ করে এর সিলেট ও চট্টগ্রাম অঞ্চল। তুরস্ক ও সিরিয়ায় ঘটে যাওয়া ভূমিকম্পকে সাম্প্রতিক সময়ের সবচেয়ে ভয়াবহ ভূমিকম্পগুলোর একটি বলে মনে করছেন বিজ্ঞানীরা। তারা বলছেন, ওই এলাকার মাটির নিচে থাকা অ্যারাবিয়ান প্লেটটি উত্তর দিকে সরে গিয়ে আনাতোলিয়ান প্লেটে ধাক্কা দেয়ায় ভয়াবহ এ ভূমিকম্প হয়। ভূতত্ত্ব বিশেষজ্ঞরা বলছেন, তুরস্ক ও সিরিয়ার মতো বাংলাদেশও ভয়াবহ ভূমিকম্পের ঝুঁকিতে রয়েছে। উত্তরে তিব্বত সাব-প্লেট, ইন্ডিয়া প্লেট এবং দক্ষিণে বার্মা সাব-প্লেটের সংযোগস্থলে বাংলাদেশের অবস্থান। আর বাংলাদেশের সিলেট থেকে চট্টগ্রাম অঞ্চলে কয়েকটি প্লেট থাকার কারণে এসব এলাকা বড় ধরনের ঝুঁকিতে রয়েছে।  কলোম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয় এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক যৌথ গবেষণায় দেখা গেছে, ইন্ডিয়া প্লেট ও বার্মা প্লেটের সংযোগস্থলে দীর্ঘদিন ধরে শক্তি সঞ্চয় হচ্ছে। এখন পর্যন্ত সেই প্লেটে ধাক্কার সূত্রপাত হয়নি। এ কারণে সেখানে হাজার বছর ধরে শক্তি জমা হয়ে রয়েছে।  গবেষণায় আরও দেখা যায়, ইন্ডিয়া প্লেট পূর্ব দিকে বার্মা প্লেটের নিচে তলিয়ে যাচ্ছে। আর বার্মা প্লেট পশ্চিম দিকে অগ্রসর হচ্ছে। তাই সেখানে যে পরিমাণ শক্তি জমা হচ্ছে, তা আট মাত্রার বেশি ভূমিকম্পের কারণ হতে পারে।  বাংলাদেশের সুনামগঞ্জ ও জাফলং অংশে ডাউকি ফল্টের পূর্বপ্রান্তেও ভূমিকম্পের ঝুঁকি রয়েছে। এসব ফল্টে ভূমিকম্প হলে ঢাকাসহ সারা বাংলাদেশে বড় ধরনের ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা রয়েছে।

সূএ: সময় নিউজ

রাজধানীতে চালু হচ্ছে আরও ২ নতুন রুট
                                  

DTV BANGLA NEWS:   রাজধানীতে বাস রুট র‍্যাশনালাইজেশনের আওতায় চালু হতে যাচ্ছে আরও দুটি নতুন রুট।   ২৪ ও ২৫ নম্বর রুট দুটি আলাদা আলাদা যাত্রা পথে ঘাটারচর থেকে আবদুল্লাহপুর পর্যন্ত চলবে নগর পরিবহন। ২০২৩ সালের এপ্রিল থেকে নতুন এই রুট দুটি চালু হওয়ার ঘোষণা দেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস। মঙ্গলবার (১৩ ডিসেম্বর) ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের বুড়িগঙ্গা হলে বাস রুট র‍্যাশনালাইজেশনের ২৫তম সভা শেষে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানানো হয়। ফজলে নূর তাপস বলেন, এই সভা থেকে আগামী ৩১ জানুয়ারি থেকে ১শ’টি নতুন বাস নিয়ে ২৩ নম্বর যাত্রা পথ চালু হবে। ২৩ নম্বর রুট ঘাটারচর থেকে মোহাম্মদপুর, শ্যামলী, দৈনিক বাংলা হয়ে কাঁচপুর পর্যন্ত চলবে। ২৪ নম্বর রুট ঘাটারচর থেকে মিরপুর ১০ থেকে কালশী হয়ে আবদুল্লাহপুর যাবে। আর ২৫ নম্বর রুট ঘাটারচর থেকে মহাখালী হয়ে আবদুল্লাহপুর যাবে।

দুই জঙ্গি ছিনতাই: রাজধানীতে রেড অ্যালার্ট
                                  

DTV BANGLA NEWS: আদালত থেকে ছিনতাই করে নিয়ে যাওয়া দুই জঙ্গিকে গ্রেফতারে রাজধানীতে রেড অ্যালার্ট জারি করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)। রাজধানীর প্রতিটি থানা ও অন্যান্য ইউনিটকে চেকপোস্ট বসানোর নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। রোববার (২০ নভেম্বর) বিকেল সাড়ে ৩টায় ডিএমপি কমিশনার খন্দকার গোলাম ফারুক জাগো নিউজকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এর আগে দুপুর ১২টার দিকে ঢাকার চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত প্রাঙ্গণ থেকে পুলিশের চোখে স্প্রে করে প্রকাশক দীপন হত্যা মামলার মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত দুই আসামিকে ছিনিয়ে নিয়ে যায় জঙ্গিরা। ছিনিয়ে নেওয়া দুই আসামি হলেন মইনুল হাসান শামীম ও আবু সিদ্দিক সোহেল। শামীমের বাড়ি সুনামগঞ্জের ছাতকের মাধবপুর গ্রামে। সোহেলের বাড়ি লালমনিরহাটের আদিতমারীর ভেটোশ্বর গ্রামে। তাদের ধরতে রাজধানীর বিভিন্ন জায়গায় চেকপোস্ট বসানো হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। দুপুরে ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেসন্স বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) মো. ফারুক হোসেন বলেন, পুলিশকে স্প্রে করে আগে থেকে প্রস্তুত দুটি মোটরসাইকেলে দ্রুত পালিয়ে যান দুই জঙ্গি। পালিয়ে যাওয়া দুই জঙ্গি ও মোটরসাইকেলচালকদের ধরতে রাজধানীর বিভিন্ন জায়গায় চেকপোস্ট বসানো হয়েছে। এছাড়া আশপাশের একাধিক সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ দেখা হচ্ছে। ডিএমপির সিসিটিভি মনিটরিংয়ে লাইভ ফুটেজ দেখা হচ্ছে। ডিসি ফারুক হোসেন আরও বলেন, পালিয়ে যাওয়া দুই জঙ্গিকে ধরতে পুলিশের একাধিক ইউনিট মাঠে কাজ করছে। তারা যেন ঢাকার বাইরে না চলে যায় সে বিষয়েও নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

ডেঙ্গুর ভয়াবহতা বাড়ছে, বাগেরহাটে একদিনে শনাক্ত ১০
                                  

বাগেরহাটে দিন দিন ডেঙ্গুর ভয়াবহতা বাড়ছে। গত ২৪ ঘণ্টায় জেলায় নতুন করে আরও ১০ ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত হয়েছেন।
ডেঙ্গুর ভয়াবহতা বাড়ছে, বাগেরহাটে একদিনে শনাক্ত ১০, বুধবার (১৬ নভেম্বর) সকাল পর্যন্ত হাসপাতালে ২২ ডেঙ্গু রোগী চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এখন পর্যন্ত জেলায় ১২৩ রোগী শনাক্ত হয়েছে। এদিকে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ায় স্থানীয়দের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে। জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্য মতে, বাগেরহাট ২৫০ শয্যা রাজিয়া নাসের জেলা হাসপাতালে সাত রোগীসহ বিভিন্ন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ২২ জন ভর্তি রয়েছে। এদের মধ্যে ব্যবসায়ী, গৃহিণীসহ নানা পেশার মানুষ রয়েছেন। বাগেরহাট জেলার ২৫০ শয্যা রাজিয়া নাসের হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডা. মো. হুসাইন সাফায়াত বলেন, বর্তমানে যারা চিকিৎসাধীন রয়েছেন তারা আগের চেয়ে অনেকটা ভালো। আক্রান্তদের মধ্যে অনেকে ঢাকা থেকে এসেছেন। কেউ কেউ আবার স্থানীয়ভাবে আক্রান্ত হয়েছেন। ডেঙ্গু থেকে রক্ষা পেতে সাধারণ মানুষকে ঘরবাড়ি ও আশপাশ এলাকা পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখার পরামর্শ দিয়েছেন ডা. মো. হুসাইন সাফায়াত।

প্রধানমন্ত্রীর সংসদীয় আসনে প্রতিনিধি সাবেক সচিব শহিদ উল্লা
                                  

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্বাচনী এলাকা গোপালগঞ্জ-৩ (টুঙ্গিপাড়া-কোটালিপাড়া) এর উন্নয়ন কাজে তার পক্ষে প্রতিনিধিত্ব করবেন মো. শহীদ উল্লা খন্দকার। মঙ্গলবার (২৫ অক্টোবর) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এক আদেশে তাকে প্রতিনিধি নির্বাচন করেন। ওই আদেশে বলা হয়, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রীর রাষ্ট্রীয় দায়িত্ব পালনে ব্যস্ততার জন্য জাতীয় সংসদ সদস্য হিসেবে নির্বাচনী এলাকা ২১৭ গোপালগঞ্জ-৩ (টুঙ্গিপাড়া-কোটালিপাড়া) এর উন্নয়ন কার্যক্রমে আমার পক্ষে দায়িত্ব পালনের জন্য মো. শহিদ উল্লা খন্দকারকে প্রতিনিধি মনোনয়ন প্রদান করা হলো। মো. শহীদ উল্লা খন্দকার অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মকর্তা। তিনি ২৭ আগস্ট ২০১৯ থেকে ২০২২ সাল পর্যন্ত গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। শহীদ উল্লা খন্দকার গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ার নারিকেলবাড়ী গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি নারিকেলবাড়ী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি, বিএম কলেজ থেকে এইচএসসি ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন করেন। শহীদ উল্লা ২১ জানুয়ারি ১৯৮৬ সালে বিসিএস প্রশাসন ক্যাডারে চাকরিতে যোগদান করে প্রশাসন ক্যাডারের কর্মকর্তা হিসেবে সহকারী কমিশনার, উপজেলা ম্যাজিস্ট্রেট, কগনিজেন্স ম্যাজিস্ট্রেট, নেজারত ডেপুটি কালেক্টর, রেভিনিউ ডেপুটি কালেক্টর ও থানা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ সরকারি বিভিন্ন পদে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি উপসচিব, যুগ্মসচিব ও অতিরিক্ত সচিব হিসেবে অর্থ মন্ত্রণালয়, তথ্য মন্ত্রণালয় এবং গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের অধীন জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ১ সেপ্টেম্বর ২০১৪ সালে পদোন্নতি পেয়ে ভারপ্রাপ্ত সচিব হিসেবে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের বাস্তবায়ন পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগে যোগদান করেন। ২ মার্চ ২০১৫ সালে সচিব হিসেবে পদোন্নতি পান। ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ সালে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ে যোগদান করেন। এরপর ১৫ মার্চ ২০১৬ থেকে ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৭ পর্যন্ত গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করে অবসরোত্তর ছুটির পর ২৭ আগস্ট ২০১৯ সালে পুনরায় তাকে একই মন্ত্রণালয়ে চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ দেওয়া হয়। পাঁচ বছর চুক্তিভিত্তিক দায়িত্ব পালনের পর ২০২২ সালে তিনি অবসরে যান।

ঘূর্ণিঝড়ের শঙ্কায় বরিশালে প্রস্তুত স্বেচ্ছাসেবক-আশ্রয়কেন্দ্র
                                  

বরিশাল: বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট গভীর নিম্নচাপের প্রভাবে বরিশালসহ উপকূলীয় এলাকায় গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি শুরু হয়েছে। সেইসঙ্গে মেঘাচ্ছন্ন রয়েছে আকাশ। আগাম আবহাওয়ার পূর্ভাবাসে এরইমধ্যে উপকূলীয় এলাকায় সাধারণ মানুষ পড়েছেন দুঃশ্চিন্তায়। যদিও যানমালের হেফাজতে সম্ভাব্য বিপদগ্রস্ত মানুষকে সতর্ক করার পাশাপাশি দুর্যোগ পরবর্তী উদ্ধার তৎপরতার জন্য প্রস্তুতি নিয়েছে ঘূর্ণিঝড় প্রস্তুতি কর্মসূচি (সিপিপি)। ঘূর্ণিঝড় প্রস্তুতি কর্মসূচির (সিপিপি) বরিশাল বিভাগীয় উপ-পরিচালক মো. শাহাবুদ্দিন মিয়া জানান, ৪ নম্বর সিগন্যাল হলে সিপিপির স্বেচ্ছাসেবকরা পতাকা উত্তোলন এবং মাইকিং করবে। এ লক্ষ্যে বরিশাল অঞ্চলে ৩২ হাজার ৫শ’ স্বেচ্ছাসেবক প্রস্তুত রয়েছে। আপাতত স্বেচ্ছাসেবকরা লোকমুখে সম্ভাব্য দুর্যোগের বিষয়টি জনগণের মাঝে প্রচার করছে। অপরদিকে বিভাগীয় কমিশনার মো. আমিন-উল আহসান জানান, সম্ভাব্য ঘূর্ণিঝড়ের আশঙ্কায় উপকূলীয় মানুষকে নিরাপদে নেওয়ার জন্য বিভাগের ৩ হাজার ৯৭৪টি সাইক্লোন শেল্টার প্রস্তুত রাখা হয়েছে। সেই সঙ্গে পর্যাপ্ত বিশুদ্ধ পানি, শুকনা খাবার এবং ওষুধের ব্যবস্থা করা হয়েছে। বিশেষ করে বরগুনা এবং পটুয়াখালীর জেলা প্রশাসনকে যে কোনো পরিস্থিতির জন্য সতর্ক রাখা হয়েছে। আর এ লক্ষ্যে বিভাগে একটি কন্ট্রোল রুম চালু করা হয়েছে। বিভাগীয় প্রশাসন সার্বিক কার্যক্রম মনিটরিং করছে। এদিকে ২ নম্বর সতর্ক সংকেতের কারণে ৬৫ ফুটের কম দৈর্ঘ্যের লঞ্চ চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন বরিশাল নদী বন্দরের ট্রাফিক পরিদর্শক মো. কবির হোসেন। তবে বরিশালে ৬৫ ফুটের কম দৈর্ঘ্যের লঞ্চ নেই। মৎস্য বিভাগের পক্ষ থেকে প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে এবং সব ধরনের নৌকা ও ট্রলারগুলোকে নিরাপদে অবস্থান করতে বলা হয়েছে বলে জানিয়েছেন মৎস্য কর্মকর্তা। আর বরিশাল আবহাওয়া অধিদপ্তরের পর্যবেক্ষক মাসুদুর রহমান বলেন, সকাল থেকে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি হচ্ছে। সমুদ্র বন্দরে ৩ নম্বর ও নদী বন্দরে ২ নম্বর সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। রোববার বরিশালে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৫.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস বিরাজ করছে।

চিনি সংকট চরমে টাকা দিয়েও মিলছে না চিনি, হু হু করে বাড়ছে দাম
                                  

# গ্যাস সরবরাহ কম থাকায় উৎপাদন কমে অর্ধেকের নিচে
# দেশি কারখানা থেকে টিসিবির চিনি সংগ্রহও সংকটের কারণ
# ‘র’ সুগার আমদানিতেও রয়েছে সংকট
দেশের বৃহৎ পাইকারি বাজার চট্টগ্রামের খাতুনগঞ্জে এখন টাকা দিয়েও মিলছে না চিনি। চাহিদার অনুপাতে যোগান কম হওয়ায় চরম সংকট তৈরি হয়েছে চিনির সরবরাহ চেইনে। এতে হু হু করে বাড়ছে অন্যতম এ ভোগ্যণ্যের দাম। ১০ দিনের ব্যবধানে প্রতিমণ চিনিতে বেড়েছে ৩০০-৩৫০ টাকা। ব্যবসায়ীরা বলছেন, সরকার গ্যাসে রেশনিং করার কারণে শিল্পে গ্যাস সরবরাহ কমায় চিনির উৎপাদনে ধস নেমেছে। আবার নিত্যপণ্যের বাজারমূল্য নিয়ন্ত্রণ করতে সরকার টিসিবির জন্য চিনি সংগ্রহ করছে স্থানীয় বাজার থেকে। এতে চাহিদার সঙ্গে যোগানের দূরত্ব বাড়ছে। ডলার সংকটে আমদানি কম হওয়াকেও দায়ী করছেন উৎপাদকরা। বাজারে চিনির সংকট যেমন সাধারণ ভোক্তা পর্যায়ে প্রভাব তৈরি করছে, তেমনি খাদ্যপণ্য তৈরিতেও তৈরি করছে নেতিবাচক প্রভাব। স্বাভাবিক হিসাবে দেশে প্রায় ২০ লাখ টন চিনির চাহিদা রয়েছে। এর মধ্যে রাষ্ট্রীয় ১৫ চিনি কল থেকে বছরে আসে ৩০ হাজার টনের চেয়ে কম পরিশোধিত চিনি। যে কারণে বেসরকারি পর্যায়ে সিংহভাগ চিনি আমদানি করে দেশের চাহিদা মেটাতে হয়। এজন্য প্রায় ২২ লাখ টনের বেশি ‘র’ সুগার আমদানি করে সিটি গ্রুপ, মেঘনা গ্রুপ, আবদুল মোনেম কোম্পানি, দেশবন্ধু সুগার এবং এস আলম সুগার ইন্ডাস্ট্রিজ। বেসরকারি পর্যায়ে আমদানি করে নিজেদের কারখানায় রিফাইন করে তারা বাজারে বিক্রি করছে। চিনির বাজারে প্রায় ৪০ শতাংশের কাছাকাছি অংশীদারত্ব রয়েছে সিটি গ্রুপের, ৩১ শতাংশের বেশি বাজার রয়েছে মেঘনা গ্রুপের ফ্রেশ চিনির। তাছাড়া আবদুল মোনেম কোম্পানির প্রায় ১১ শতাংশ, দেশবন্ধু সুগারের ৯ শতাংশ ও চট্টগ্রামের এস আলম গ্রুপের রয়েছে ৯ শতাংশের মতো বাজার। খাতুনগঞ্জের আড়তদার ও ডিও ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, গত ১০ দিনের ব্যবধানে প্রতিমণ চিনির দাম বেড়েছে ৩০০-৩৫০ টাকা। আবার নগদ টাকা দিয়েও চাহিদামাফিক রেডি চিনি মিলছে না। ডিও কিনে কারখানার গেটে অবস্থানের পর মিলছে চিনি। এরমধ্যে এস আলমের চিনির ডিও কিনে কারখানা থেকে সরবরাহ পেতে দুই-তিন দিন সময় লাগছে। চিনির বড় বাজার যাদের দখলে সেই সিটি ও মেঘনা গ্রুপের চিনি পেতে কারখানার সামনে অবস্থান করতে হচ্ছে ১৫ দিনের মতো। বিশেষ করে গ্যাস সংকটের কারণে কারখানার উৎপাদন ব্যাহত হওয়ায় চিনিতে প্রভাব পড়ছে বলে মনে করছেন ব্যবসায়ীরা। খাতুনগঞ্জের ডিও ব্যবসায়ী মো. করিম বলেন, বর্তমানে বাজারে সামান্য কিছু রেডি চিনি রয়েছে। তা চাইলেও এক থেকে দুই টনের বেশি পাওয়া যাচ্ছে না। ঢাকায় দেশবন্ধুর রেডি চিনি থাকলেও প্রতিমণ ৩৭শ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। বাজারে শনিবার দুপুরে এস আলমের ডিও বিক্রি হয়েছে প্রতিমণ ৩৬৭০ টাকায়। এগুলো ইছানগর কারখানা থেকে ডেলিভারি নিতে দুই থেকে তিন দিন লাগছে। আবার ঢাকার সিটি ও মেঘনার চিনি ডেলিভারি পেতে লাগছে ১৫ দিনের মতো। আরেক ডিও ব্যবসায়ী সিরাজুল ইসলাম বলেন, ‘শনিবার খাতুনগঞ্জে সিটি ও ফ্রেশ চিনির ডিও বিক্রি হয়েছে ৩৪শ ৭৫ টাকায়। কিন্তু ডেলিভারি অনেক দেরিতে। ১০ দিন আগেও বাজারে দাম ৩০০-৩৫০ টাকা কম ছিল। এখন বাজারে রেডি চিনি মিলছে না। চাইলেও টাকা দিয়ে এক ট্রাক রেডি চিনি ম্যানেজ করা সম্ভব হচ্ছে না। ঢাকার চট্টলা ট্রান্সপোর্টের মালিক মিজানুর রহমান বলেন, ‘সিটি ও মেঘনা চিনি মিলে আজ (শনিবার) গাড়ি দিলে ডেলিভারি পাওয়া যাচ্ছে ৫ নভেম্বর। যারা এই সময় মানছেন তারা সিটি ও মেঘনা মিলে গাড়ি পাঠাচ্ছেন। তবে খাতুনগঞ্জের আড়তদার ব্যবসায়ী বলছেন, গ্যাসের কারণে বড় বড় মিলগুলোতে চিনি উৎপাদন হচ্ছে না। খাতুনগঞ্জের চিনির আড়তদার ব্যবসায়ী ইমাম শরীফ ব্রাদার্সের মালিক মো. আকবর বলেন, ‘বাজারে চাহিদা অনুযায়ী যোগান না থাকলেও নিয়ম অনুযায়ীই দাম বেড়ে যাবে। আগে ঢাকার প্রত্যেক মিল দিনে ২শ গাড়ি করে চিনি ডেলিভারি দিতো। এখন তারা ৫০ গাড়িও দিতে পারছে না। কিন্তু মানুষতো চিনি খাওয়া ছেড়ে দেয়নি। চিনির চাহিদা কখনো কমবে না। যোগান কমে গেলেই সংকট তৈরি হবে। এখন বাজারে চিনির যোগান সংকট রয়েছে। তাছাড়া রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ, ডলারের দাম বৃদ্ধিসহ নানান বৈশ্বিক কারণেও চিনি আমদানিতে প্রভাব তৈরি করছে। ফলে বাজারে সংকট তৈরি হচ্ছে, দামও বাড়ছে। খাতুনগঞ্জে তেল-চিনির বড় ব্যবসায়ী আর এম এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী আলমগীর পারভেজ বলেন, ‘কারখানাগুলোতে গ্যাসের সরবরাহ কমে যাওয়ায় তারা চিনির উৎপাদন স্বাভাবিক রাখতে পারছে না। আগে দিনে ৫শ ট্রাক চিনি বাজারে আসতো। এখন দুইশ ট্রাকও আসছে না। যে কারণে চিনির সংকট তৈরি হচ্ছে, বাজারে দাম বাড়ছে। এই ব্যবসায়ী আরও বলেন, ‘শুধু গ্যাস সংকট নয়। সরকার টিসিবির মাধ্যমে ভর্তুকিমূল্যে বাজারে চিনি বিক্রি করছে। কিন্তু টিসিবি এসব চিনি সংগ্রহ করছে দেশি কারখানাগুলো থেকে। এতে চিনির যোগান সংকট কাটছে না। তারা বিদেশ থেকে চিনি আমদানি করে বাজারে ছাড়লে এ সংকট অনেকটা সামাল দেওয়া যেত। কথা হলে ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিবিসি) তথ্য প্রদানকারী কর্মকর্তা মো. হুমায়ুন কবির বলেন, ‘আমরা উন্মুক্ত টেন্ডারের মাধ্যমে চিনি সংগ্রহ করি। ট্রেন্ডারে সর্বনিম্ন দরদাতার কাছ থেকে এসব চিনি সংগ্রহ করা হয়। বর্তমানে এস আলম, সিটি ও মেঘনা গ্রুপ থেকে চিনি সংগ্রহ করা হচ্ছে। একেকটি কার্যাদেশ তিন-পাঁচ হাজার টনের হয়। গ্যাসের সংকট বাদেও ডলার সংকটসহ আন্তর্জাতিক বাজারে দাম বেশি এবং আমদানিতে শুল্ক বেশি হওয়া চিনির দাম বাড়ার প্রভাবক হিসেবে কাজ করছে বলে মনে করছেন উৎপাদন সংশ্লিষ্টরা। বেসরকারি চিনি উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান আবদুল মোনেম কোম্পানির বাণিজ্যিক বিভাগের প্রধান আজিজুর রহমান চৌধুরী বলেন, বর্তমানে কয়েকটি কারণে বাজারে দাম বাড়ছে। গ্যাসের কারণে কারখানার উৎপাদন স্বাভাবিক রাখা যাচ্ছে না। বর্তমানে যে গ্যাস পাওয়া যাচ্ছে তাতে ৫০ শতাংশ উৎপাদন করা সম্ভব হচ্ছে না। এতে যোগানে সমস্যা হচ্ছে। আন্তর্জাতিক বাজারে চিনির বুকিং রেটও এখন বেশি। গত মাসে মাত্র একটি জাহাজ এসেছে। তিনি আরও বলেন, ‘এখন ডলার সংকটও আরেকটি কারণ। আমরা বিগত কয়েক মাসে কোটি কোটি টাকা লোকসান দিয়েছি।

৩৬ ঘণ্টা পর বাগেরহাটে গণপরিবহন চলাচল শুরু
                                  

বাগেরহাট: দীর্ঘ ৩৬ ঘন্টা পরে বাগেরহাটে গণপরিবহন চলাচল শুরু হয়েছে। শনিবার (২২ অক্টোবর) বিকেল পাঁচটায় বাগেরহাট কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল থেকে দূরপাল্লা ও স্থানীয় সব রুটে বাস চলাচল হয়। সেই সঙ্গে মাহিন্দ্রা, ইজিবাইক, অটোরিকশাসহ অন্যান্য পরিবহনের চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। এর আগে বিএনপির সমাবেশকে কেন্দ্র করে নছিমন-করিমন বন্ধের দাবিতে মালিক সমিতির ডাকা দুই দিনের ধর্মঘটের অংশ হিসেবে শুক্রবার (২১ অক্টোবর) ভোর থেকে বাগেরহাটে যানবাহন চলাচল বন্ধ ছিল। এদিকে বিএনপি বলছে, সমাবেশ পণ্ড করতে না পেরে বাধ্য হয়েই ধর্মঘট প্রত্যাহার করেছেন সরকার দলীয় লোকেরা। আর  ৩৬ ঘণ্টা পরে হলেও বাস চলাচলে খুশি সাধারণ মানুষ। শনিবার বিকেল সাড়ে পাঁচটায় সরেজমিনে কেন্দ্রীয় বাসস্ট্যান্ড ঘুরে দেখা যায় যাত্রী আকর্ষণে হাক-ডাক দিচ্ছেন পরিবহন শ্রমিকরা। সেখানে স্থানীয় ও দূরপাল্লার যাত্রীদের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো। যশোর এমএম কলেজের প্রভাষক মো. ফেরদাউস বলেন, দুই দিনের ছুটিতে বাড়ি এসেছিলাম। পরিবহন ধর্মঘটের কারণে কর্মস্থলে পৌঁছানো নিয়ে শঙ্কায় ছিলাম। ভ্যানে করে বাসস্ট্যান্ডে এসে দেখি যানবাহন চলাচল শুরু হয়েছে। আশাকরি ভোগান্তি ছাড়াই যশোর পৌঁছাতে পারব। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) শিক্ষার্থী লাবিবা উম্মে তাসনিম বলেন, রোববার সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ে পৌঁছানো নিয়ে দুশ্চিন্তায় ছিলাম। দুপুরের পর খবর পাই বিকেল থেকে বাস চলাচল স্বাভাবিক হবে। দ্রুত এসে টিকিট নিলাম। আশাকরি সময়মত গন্তব্যে পৌঁছাতে পারব। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ঢাকাগামী এক সরকারি কর্মকর্তা বলেন, রাজনৈতিক ফায়দা লোটার জন্য সাধারণ মানুষকে এভাবে জিম্মি করা ঠিক নয়। যারা রাজনীতি থেকে লাভবান হবেন, শুধু তাদের মধ্যে প্রতিযোগিতা হওয়া উচিত। সাধারণ মানুষকে এসবের বাইরে রাখার দাবি জানান তিনি। বাগেরহাট জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি এমএ সালাম বলেন, খুলনায় বিএনপির গণসমাবেশে যাতে নেতাকর্মীরা না যেতে পারেন, সেই কারণে এই ধর্মঘট ডাকা হয়েছিল। কিন্তু তাদের ধর্মঘটে সমাবেশে যখন কোনো প্রভাব পড়েনি, তখন বাধ্য হয়ে তারা যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক করেছেন। বাগেরহাট বাস মিনিবাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক তালুকদার আব্দুল বাকি বলেন, প্রশাসনের আশ্বাসে আমরা ধর্মঘট প্রত্যাহার করেছি। বাগেরহাট কেন্দ্রীয় বাসস্ট্যান্ড থেকে সব রুটে গণপরিবহন চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে।

সারা দেশ থেকে বিচ্ছিন্ন খুলনা
                                  

দ্বিতীয় দিনের পরিবহন ধর্মঘটে খুলনায় ঢুকতে পারছে না দূরপাল্লার বাস। চলছে না লঞ্চও। শ্রমিক নেতাদের দাবি, মহাসড়কে অবৈধ যান চলাচল বন্ধের দাবিতে তাদের এই কর্মসূচি। বিএনপির সমাবেশের সঙ্গে ধর্মঘটের কোনো সম্পর্ক নেই। খুলনার সোনাডাঙ্গা বাস টার্মিনালে সারি সারি দাঁড়িয়ে আছে বাস। বন্ধ রয়েছে পরিবহনের কাউন্টারগুলো। মহাসড়কে ইজিবাইক, মাহেন্দ্রা, সিএনজি, নসিমনসহ অবৈধ যানবাহন বন্ধের দাবিতে খুলনায় ঘুরছে না গাড়ির চাকা। শুক্রবার সকাল থেকে সোনাডাঙ্গা বাস টার্মিনালে যাত্রীদের আনাগোনা থাকলেও কোনো বাস ছেড়ে যায়নি, আবার কোনো বাস খুলনাতে প্রবেশ করেনি। এতে যাত্রীরা পড়েছেন দুর্ভোগে। একই সঙ্গে লঞ্চ শ্রমিকদের বেতন বৃদ্ধি, নৌরুটে চাঁদাবাজি বন্ধসহ ১০ দফা দাবিতে দুই দিনের ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে বাংলাদেশ নৌযান শ্রমিক ফেডারেশন। এতে সকাল থেকেই ভোগান্তিতে নদী পথের যাত্রীরা। এদিকে বাস ও যাত্রীবাহী লঞ্চ চলাচল বন্ধের পর এবার বন্ধ করা হয়েছে নগরে প্রবেশের প্রধান দুই খেয়াঘাট। শুক্রবার রাতে যাত্রীপ্রতি ভাড়া বাড়ানোর দাবিতে ২৪ ঘণ্টার জন্য রূপসা ও জেলাখানা ঘাট বন্ধের ঘোষণা দেন নৌকা মাঝি সমিতির নেতারা। এতে ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে সাধারণ যাত্রীদের। এদিকে বিএনপি নেতারা অভিযোগ করেছেন, শনিবারের বিভাগীয় সমাবেশ কেন্দ্র করেই এসব ধর্মঘটের ডাক দেয়া হয়েছে। অভিযোগ অস্বীকার করে সংগঠনের নেতারা জানান, রুটি রুজির জন্যই ধর্মঘটের ডাক দিয়েছেন তারা। খুলনা জেলা বাস মিনিবাস মালিক সমিতির সহ-সভাপতি কাজী এনায়েত হোসেন জানান, সড়ক ও মহাসড়কে অবৈধভাবে নছিমন, করিমন, মাহেন্দ্রা, ইজিবাইক চলাচল করছে। এতে পর্যাপ্ত যাত্রী পাওয়া যাচ্ছে না। অন্যদিকে তেলের দাম বাড়ায় লোকসান গুণতে হচ্ছে। তাই ২০ অক্টোবরের মধ্যে এসব অবৈধ যান চলাচল বন্ধ না হওয়ায় পরিবহন ধর্মঘটের ডাক দেয়া হয়েছে। এর সাথে সমাবেশের কোনো সম্পর্ক নেই। খুলনার বিআইডব্লিউটিএ পুরাতন লঞ্চ ঘাট থেকে প্রতিদিন ভোর ছয়টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত ছয়টি লঞ্চ ছেড়ে যায়। আর খুলনা সোনাডাঙ্গা বাস টার্মিনাল থেকে প্রতিদিন শতাধিক যাত্রীবাহী বাস বিভিন্ন স্থানে ছেড়ে যায়। 

তেলের দাম কমলেও ভোক্তারা সুবিধা পাবেন আগামী সপ্তাহ থেকে
                                  

ঢাকা: বোতলজাত ও খোলা সয়াবিন তেলের দাম মঙ্গলবার থেকে কমার কথা থাকলেও খুচরা বাজারে তা কার্যকর হয়নি। আগের দামেই বিক্রি হচ্ছে সয়াবিন তেল। বুধবার (৫ অক্টোবর) রাজধানীর বেশ কয়েকটি এলাকার বাজার ঘুরে এবং ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে এমনটি জানা গেছে। দোকানিরা জানিয়েছেন, তেলের মজুদ শেষ হলে ভোক্তারা আগামী সপ্তাহ থেকে দাম কমার সুবিধা পাবেন। তবে ডিলার ও খুচরা দোকানিদের মজুদ শেষ না হওয়া পর্যন্ত ভোক্তারা এ সুবিধা পাচ্ছেন না। কারণ মজুদ করা তেলগুলো বেশি দামে কেনা হয়েছে। তাই সেগুলো কম দামে বিক্রি সম্ভব নয়। বাজার ও পাড়া মহল্লা ঘুরে দেখা গেছে, বোতল জাত সয়াবিন তেল লিটার প্রতি বিক্রি হচ্ছে ১৯২ টাকা এবং ৫ লিটারের বোতল বিক্রি হচ্ছে ৯৪০ থেকে ৯৪৫ টাকায়। একই সঙ্গে খোলা সয়াবিন প্রতি লিটার ১৭৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। নতুন দাম সমন্বয় হতে কয়েকদিন সময় লাগবে বলেও জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা। এ বিষয়ে মিরপুর শেওড়াপাড়ার পাবনা জেনারেল স্টোরের রেজাউল করিম রেজা  বলেন, গতকাল ডিলার এসে বলে গেছে আগামী সপ্তাহ থেকে কম দামে তেল পাবো। শুধু তাই নয় ডিলারদের কাছে যেমন তেল মজুদ রয়েছে, তেমনি আমরাও সাত দিনের তেল মজুদ করি। এগুলো বিক্রি না হলে নতুন তেল কেনা সম্ভব নয়। পূর্ব কাজীপাড়ার তেল বিক্রেতা শওকত হোসেন বলেন, দোকানে খুব একটা তেল নেই, যা আছে সর্বোচ্চ দুই থেকে তিনদিন চলবে। এগুলো শেষ না হলে নতুন দামে তেল উঠাবো না। তিনি বলেন, আগের তেলগুলো শেষ হলেই নতুন দামে তেল নিব ডিলারদের কাছ থেকে। কেননা বেশি দামে কিনে কম দামে তো বিক্রি করা সম্ভব না। এদিকে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন ডিলার  বলেন, মিলারদের কাছ থেকে আমরা কয়েকদিনের তেল নিয়ে আসি। সব তো একদিনে বিক্রি সম্ভব হয় না। আর আমাদের লাভ সীমিত। তাই মজুদ থাকা তেল শেষ হলেই নতুন দামে তেল দোকানদাররা পাবেন।অন্যদিকে ভোক্তারা অভিযোগ করে বলেন, কোনো পণ্যের দাম বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ব্যবসায়ীরা দাম বাড়িয়ে বিক্রি করেন। অনেক ক্ষেত্রে গায়ে লেখা পণ্যের দামও মুছে ফেলেন। কিন্তু কমার ক্ষেত্রে সেটি পুরোটাই উল্টো। এখানে সরকারের উচিত কোনো পণ্যের দাম কমা-বাড়ার ক্ষেত্রে সময় বেঁধে দেওয়া বা বাজারে কি পরিমাণ পণ্য রয়েছে সেগুলোর দামের সঙ্গে সমন্বয় করা। মিরপুরের গৃহিণী মমতাজ বেগম বাংলানিউজকে বলেন, বাসায় ভোজ্য তেল শেষ হয়ে গেছে। ৫ লিটার তেল ৯৪০ টাকায় কিনলাম। গতকাল থেকে দাম কমার কথা বলা হলো, কই আমি কয়েকটি দোকান ঘুরেও কম দামে তেল পেলাম না। তবে দাম বাড়ার ঘোষণা থাকলে সেটা সঙ্গে সঙ্গেই কার্যকর হয়ে যায় বলে ক্ষোভ প্রকাশ করেন তিনি। গত সোমবার (৩ অক্টোবর) বাংলাদেশ ভেজিটেবল অয়েল রিফাইনার্স অ্যান্ড বনস্পতি ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যাসোসিয়েশনের নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নুরুল ইসলাম মোল্লার সই করা এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, বোতলজাত সয়াবিন তেলের দাম লিটারপ্রতি ১৪ টাকা ও খোলা সয়াবিন তেলের দাম লিটারপ্রতি ১৭ টাকা কমছে। প্রতি লিটার বোতলজাত সয়াবিন তেলের নতুন দাম ১৭৮ টাকা এবং খোলা সয়াবিন তেলের নতুন ১৫৮ টাকা নির্ধারণ করা হয়। সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ভোজ্যতেল ব্যবসায়ীদের সংগঠনের নেতারা ডলারের মূল্যবৃদ্ধি ও ঋণপত্র খোলার জটিলতার বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান ও প্রধানমন্ত্রীর সিনিয়র সচিব তোফাজ্জল হোসেন মিয়ার সঙ্গে বৈঠক করেন। সেই বৈঠক শেষে ভোক্তাদের সুবিধার্থে ভোজ্যতেলের দাম লিটারপ্রতি ১৪ টাকা কমিয়ে পুনর্নির্ধারণ করা হয়েছে। তবে খোলা সয়াবিনের দাম কমেছে লিটারপ্রতি ১৭ টাকা। সংগঠনটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, প্রতি লিটার খোলা সয়াবিন তেলের নতুন দাম হবে ১৫৮ টাকা। বর্তমানে বাজারে খোলা সয়াবিন প্রতি লিটার ১৭৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। আর ৫ লিটারের বোতলজাত সয়াবিন তেলের দাম ৯৪৫ টাকা থেকে ৬৫ টাকা কমিয়ে করা হয়েছে ৮৮০ টাকা। যা মঙ্গলবার থেকে কার্যকর করা হবে।এর আগে, গত ১৭ জুলাই সয়াবিন ও পাম তেলের দাম কমায় তেল বিপণনকারী কোম্পানিগুলো। এরপর গত ২৩ আগস্ট আবার সয়াবিনের দাম লিটারপ্রতি ৭ টাকা বৃদ্ধি করে। দেড় মাসের ব্যবধানে সেই দাম কমানো হলো।


   Page 1 of 22
     বিশেষ খবর
Kadamtali Thana Press Club greets newly-appointed Deputy Police Commissioner Iqbal Hossain
.............................................................................................
কদমতলী থানা প্রেসক্লাব ঢাকা এর সভাপতি হলেন এসএইচ শিবলী
.............................................................................................
সেন্ট্রাল হাসপাতালে ভুল চিকিৎসা : নবজাতকের পর মারা গেলেন মা
.............................................................................................
ফতুল্লাার আদর্শনগরে ঈদের খাদ্য-সামগ্রী
.............................................................................................
কৃষ্ণপুর ডবল বিরিজ হাটে বিষাক্ত কেমিক্যাল দিয়ে বাঙ্গি পাকানোর অভিযোগ
.............................................................................................
মুক্তিযোদ্ধা আতিয়ার রহমানের বীর নিবাস নির্মাণে অনিয়মের অভিযোগ
.............................................................................................
বড় ভূমিকম্পের ঝুঁকিতে সিলেট ও চট্টগ্রাম
.............................................................................................
রাজধানীতে চালু হচ্ছে আরও ২ নতুন রুট
.............................................................................................
দুই জঙ্গি ছিনতাই: রাজধানীতে রেড অ্যালার্ট
.............................................................................................
ডেঙ্গুর ভয়াবহতা বাড়ছে, বাগেরহাটে একদিনে শনাক্ত ১০
.............................................................................................
প্রধানমন্ত্রীর সংসদীয় আসনে প্রতিনিধি সাবেক সচিব শহিদ উল্লা
.............................................................................................
ঘূর্ণিঝড়ের শঙ্কায় বরিশালে প্রস্তুত স্বেচ্ছাসেবক-আশ্রয়কেন্দ্র
.............................................................................................
চিনি সংকট চরমে টাকা দিয়েও মিলছে না চিনি, হু হু করে বাড়ছে দাম
.............................................................................................
৩৬ ঘণ্টা পর বাগেরহাটে গণপরিবহন চলাচল শুরু
.............................................................................................
সারা দেশ থেকে বিচ্ছিন্ন খুলনা
.............................................................................................
তেলের দাম কমলেও ভোক্তারা সুবিধা পাবেন আগামী সপ্তাহ থেকে
.............................................................................................
আজ থেকে সয়াবিন তেলের দাম কমছে
.............................................................................................
সয়াবিন তেলের দাম লিটারে কমছে ১৪ টাকা
.............................................................................................
একদিনে রেকর্ড ৬৩৫ ডেঙ্গুরোগী হাসপাতালে ভর্তি
.............................................................................................
নগরকান্দায় সরকারি বই ঝোপঝাড়ে
.............................................................................................
এসএসসির প্রশ্নফাঁস আতঙ্কে শিক্ষার্থীরা, নতুন পথ খুঁজছে বোর্ড
.............................................................................................
ডেঙ্গুতে একজনের মৃত্যু, হাসপাতালে ৫২৪
.............................................................................................
দফায় দফায় বাড়ছে গুঁড়া দুধের দাম
.............................................................................................
লোডশেডিং নিয়ে সুখবর দিল ডিপিডিসি
.............................................................................................
ডেঙ্গুতে আক্রান্ত ৪৬০, মৃত্যু ১
.............................................................................................
বিশ্ব বাজারে জ্বালানি তেলের দাম আরও কমলো
.............................................................................................
নৌকা ডুবে ২৪ জনের মৃত্যু, ২০ হাজার করে টাকা পাবে প্রত্যেকের পরিবার
.............................................................................................
তুষারধারায় অপরাধ দমন ও আইনশৃঙ্খলা উন্নয়ন বিষয়ক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত।
.............................................................................................
সরকারি চাকরিতে নিয়োগ পরীক্ষার ফি নির্ধারণ
.............................................................................................
জি কে শামীম ও তার ৭ দেহরক্ষীর যাবজ্জীবন
.............................................................................................
মায়ের সন্ধান পেয়ে ফেসবুকে যা লিখলেন মরিয়ম মান্নান
.............................................................................................
সরকারি চাকরির আবেদনে ৩৯ মাস ছাড়
.............................................................................................
ঢাকার ২৭টি ওয়ার্ড ডেঙ্গুতে বেশি ঝুঁকিপূর্ণ
.............................................................................................
সরকারি কর্মকর্তারা বিদেশ সফরে যেতে পারবেন, তবে...
.............................................................................................
২৪ ঘণ্টায় ৩৯২ ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে
.............................................................................................
মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূতকে তলব করে কড়া প্রতিবাদ
.............................................................................................
হ্যান্ড ফুট অ্যান্ড মাউথ রোগের প্রকোপ, আক্রান্ত হচ্ছে শিশুরা
.............................................................................................
রানি এলিজাবেথের জন্য ঢাকায় শোক বই
.............................................................................................
এসবির প্রধান কার্যালয়ে অগ্নিকাণ্ড
.............................................................................................
ডিমের দাম ফের ঊর্ধ্বমুখী, ডজনে বাড়ল ১০ টাকা
.............................................................................................
ভারতে গেল বরিশালের ৭ টন ইলিশ
.............................................................................................
ঢাকা-নয়াদিল্লি ৭ সমঝোতা স্মারক সই
.............................................................................................
একদিনে ডেঙ্গুতে ৫ জনের মৃত্যু, হাসপাতালে ২৮৪
.............................................................................................
মেট্রোরেলে ভাড়া নির্ধারণ
.............................................................................................
চার দিনের সফরে ঢাকা ছাড়লেন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
অতিভারি বৃষ্টির আভাস, তাপমাত্রা আরও কমতে পারে
.............................................................................................
বেকুটিয়ায় বঙ্গমাতার নামে সেতু উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
এবার মিয়ানমারের যুদ্ধবিমানের গোলা বাংলাদেশে
.............................................................................................
ভর্তুকি কমাতে তেলের দাম বাড়ালো ইন্দোনেশিয়া, পেট্রল ৬৪ টাকা
.............................................................................................
এশিয়ার মধ্যে সবচেয়ে বিনিয়োগবান্ধব অবকাঠামো বাংলাদেশে
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
চেয়ারম্যান: এস.এইচ. শিবলী ।
সম্পাদক, প্রকাশক: জাকির এইচ. তালুকদার ।
হেড অফিস: ২ আরকে মিশন রোড, ঢাকা ১২০৩ ।
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: বাড়ি নং ২, রোড নং ৩, সাদেক হোসেন খোকা রোড, মতিঝিল বা/এ, ঢাকা ১০০০ ।
ফোন: 01558011275, 02-৪৭১২২৮২৯, ই-মেইল: dtvbanglahr@gmail.com
   All Right Reserved By www.dtvbangla.com Developed By: Dynamic Solution IT Dynamic Scale BD & BD My Shop    
Dynamic SOlution IT Dynamic POS | Super Shop | Dealer Ship | Show Room Software | Trading Software | Inventory Management Software Computer | Mobile | Electronics Item Software Accounts,HR & Payroll Software Hospital | Clinic Management Software Dynamic Scale BD Digital Truck Scale | Platform Scale | Weighing Bridge Scale Digital Load Cell Digital Indicator Digital Score Board Junction Box | Chequer Plate | Girder Digital Scale | Digital Floor Scale