বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
   * থানচিতে সড়ক নির্মাণে ব্যবহৃত ট্রাকে সন্ত্রাসীদের গুলি   * ঢাকায় পথচারীদের মাঝে বিএনপির পানীয় বিতরণ   * রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের পাশে আছে ভারত: ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী   * টেন্ডুলকারের ৫১তম জন্মদিন আজ   * এবার মার্কিন সিনেটে ইউক্রেন-ইসরায়েলের জন্য সহায়তা বিল পাস   * কাপ্তাই লেকে পানি কমে নৌ চলাচল ব্যাহত   * বাংলাদেশ-কাতারের বাণিজ্য জোরদারে জয়েন্ট বিজনেস কাউন্সিল গঠন   * ভোটার আকৃষ্ট করতে প্রচারপত্র বিলাবে আওয়ামী লীগ   * ৬ দিনের সফরে আজ ব্যাংকক যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী   * নয়াপল্টনে রিজভীর নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিল  

   অর্থ-বাণিজ্য -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
বাংলাদেশ-কাতারের বাণিজ্য জোরদারে জয়েন্ট বিজনেস কাউন্সিল গঠন

ডিটিভি অনলাইন ডেস্ক:

বাংলাদেশ ও কাতারের মধ্যে বাণিজ্যিক ও অর্থনৈতিক সম্পর্ক আরও মজবুত ও জোরদার করার পাশাপাশি ব্যবসায়িক সহযোগিতা বৃদ্ধিতে জয়েন্ট বিজনেস কাউন্সিলের (জেবিসি) প্রতিষ্ঠা করেছে বাংলাদেশ ও কাতার।

মঙ্গলবার (২৩ এপ্রিল) প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আল থানির উপস্থিতিতে এ উপলক্ষ্যে চুক্তি সই করেছে দেশের শীর্ষ বাণিজ্য সংগঠন দি ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (এফবিসিসিআই) এবং কাতারের শীর্ষ বাণিজ্য সংগঠন কাতার চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (কিউসিসিআই)।

এফবিসিসিআই সভাপতি মাহবুবুল আলম এবং কিউসিসিআই চেয়ারম্যান শেখ খলিফা বিন জসিম আল থানি নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে চুক্তিতে সই করেন। মূলত বাংলাদেশ ও কাতারের মধ্যে বাণিজ্য ও অর্থনৈতিক সহযোগিতা বাড়াতে দুই দেশের ব্যবসায়ী সম্প্রদায়ের মধ্যে বাণিজ্য জোরদার করতে এ চুক্তি সই হয়।

এফবিসিসিআই সভাপতি মাহবুবুল আলম এ প্রসঙ্গে বলেন, বাংলাদেশ ও কাতারের মধ্যে জেবিসি প্রতিষ্ঠা দুই দেশের ব্যবসায়ীদের জন্য একটি নতুন সম্ভাবনা উন্মোচন করেছে। এ চুক্তির আওতায় কাতারের ব্যবসায়ীরা যেমন উপকৃত হবে তেমনি বাংলাদেশী ব্যবসায়ী সম্প্রদায়ের পক্ষেও কাতারের রপ্তানি বাজার ধরা আরও সহজতর হবে এবং কাতার থেকে জ্বালানিসহ প্রয়োজনীয় পণ্য আমদানি সহজ হবে। একই সঙ্গে জেবিসির মাধ্যমে কাতারের বিনিয়োগকারীদের বাংলাদেশে বিনিয়োগে উদ্বুদ্ধ করা হবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

এফবিসিসিআই ও কিউবিসিসিআই’র মধ্যে সম্পাদিত চুক্তি অনুযায়ী, বাংলাদেশ ও কাতারের ব্যবসায়ী ও শিল্পপতিদের বাণিজ্য, বিনিয়োগ, প্রযুক্তি হস্তান্তর, সেবা এবং অন্যান্য শিল্প খাতে বাণিজ্য কার্যক্রম জোরদারের একটি প্ল্যাটফর্ম হয়ে উঠবে জয়েন্ট বিজনেস কাউন্সিল।

এফবিসিসিআই এবং কিউসিসিআই উভয়ই দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্য, অর্থনৈতিক সহযোগিতা এবং পরিষেবা সম্পর্কিত তথ্য বিনিময়ের মাধ্যমে উপকৃত হবে। পাশাপাশি দুই দেশের ব্যবসায়ীক তথ্যের আদান-প্রদান, সংশ্লিষ্ট সরকারের কাছে সুপারিশ জমা দেওয়া, প্রদর্শনীতে অংশগ্রহণকে উৎসাহিত করাসহ অন্যান্য কার্যক্রম পরিচালনা করবে জেবিসি।

এছাড়া উভয় পক্ষই বাণিজ্য উন্নয়ন ও অর্থনৈতিক সহযোগিতা সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে আলোচনার জন্য যৌথ বৈঠক আয়োজন করতে পারবে। চুক্তি অনুযায়ী প্রয়োজনে এফবিসিসিআই ও কিউসিসিআই সাব-কমিটি ও টাস্কফোর্স গঠন করতে পারবে।

বাংলাদেশ-কাতারের বাণিজ্য জোরদারে জয়েন্ট বিজনেস কাউন্সিল গঠন
                                  

ডিটিভি অনলাইন ডেস্ক:

বাংলাদেশ ও কাতারের মধ্যে বাণিজ্যিক ও অর্থনৈতিক সম্পর্ক আরও মজবুত ও জোরদার করার পাশাপাশি ব্যবসায়িক সহযোগিতা বৃদ্ধিতে জয়েন্ট বিজনেস কাউন্সিলের (জেবিসি) প্রতিষ্ঠা করেছে বাংলাদেশ ও কাতার।

মঙ্গলবার (২৩ এপ্রিল) প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আল থানির উপস্থিতিতে এ উপলক্ষ্যে চুক্তি সই করেছে দেশের শীর্ষ বাণিজ্য সংগঠন দি ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (এফবিসিসিআই) এবং কাতারের শীর্ষ বাণিজ্য সংগঠন কাতার চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (কিউসিসিআই)।

এফবিসিসিআই সভাপতি মাহবুবুল আলম এবং কিউসিসিআই চেয়ারম্যান শেখ খলিফা বিন জসিম আল থানি নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে চুক্তিতে সই করেন। মূলত বাংলাদেশ ও কাতারের মধ্যে বাণিজ্য ও অর্থনৈতিক সহযোগিতা বাড়াতে দুই দেশের ব্যবসায়ী সম্প্রদায়ের মধ্যে বাণিজ্য জোরদার করতে এ চুক্তি সই হয়।

এফবিসিসিআই সভাপতি মাহবুবুল আলম এ প্রসঙ্গে বলেন, বাংলাদেশ ও কাতারের মধ্যে জেবিসি প্রতিষ্ঠা দুই দেশের ব্যবসায়ীদের জন্য একটি নতুন সম্ভাবনা উন্মোচন করেছে। এ চুক্তির আওতায় কাতারের ব্যবসায়ীরা যেমন উপকৃত হবে তেমনি বাংলাদেশী ব্যবসায়ী সম্প্রদায়ের পক্ষেও কাতারের রপ্তানি বাজার ধরা আরও সহজতর হবে এবং কাতার থেকে জ্বালানিসহ প্রয়োজনীয় পণ্য আমদানি সহজ হবে। একই সঙ্গে জেবিসির মাধ্যমে কাতারের বিনিয়োগকারীদের বাংলাদেশে বিনিয়োগে উদ্বুদ্ধ করা হবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

এফবিসিসিআই ও কিউবিসিসিআই’র মধ্যে সম্পাদিত চুক্তি অনুযায়ী, বাংলাদেশ ও কাতারের ব্যবসায়ী ও শিল্পপতিদের বাণিজ্য, বিনিয়োগ, প্রযুক্তি হস্তান্তর, সেবা এবং অন্যান্য শিল্প খাতে বাণিজ্য কার্যক্রম জোরদারের একটি প্ল্যাটফর্ম হয়ে উঠবে জয়েন্ট বিজনেস কাউন্সিল।

এফবিসিসিআই এবং কিউসিসিআই উভয়ই দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্য, অর্থনৈতিক সহযোগিতা এবং পরিষেবা সম্পর্কিত তথ্য বিনিময়ের মাধ্যমে উপকৃত হবে। পাশাপাশি দুই দেশের ব্যবসায়ীক তথ্যের আদান-প্রদান, সংশ্লিষ্ট সরকারের কাছে সুপারিশ জমা দেওয়া, প্রদর্শনীতে অংশগ্রহণকে উৎসাহিত করাসহ অন্যান্য কার্যক্রম পরিচালনা করবে জেবিসি।

এছাড়া উভয় পক্ষই বাণিজ্য উন্নয়ন ও অর্থনৈতিক সহযোগিতা সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে আলোচনার জন্য যৌথ বৈঠক আয়োজন করতে পারবে। চুক্তি অনুযায়ী প্রয়োজনে এফবিসিসিআই ও কিউসিসিআই সাব-কমিটি ও টাস্কফোর্স গঠন করতে পারবে।

ফরচুন বরিশালকে নগদের ২০ লাখ টাকা উপহারের চেক হস্তান্তর
                                  

ডিটিভি অনলাইন ড্স্কে:

সদ্য শেষ হওয়া বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) চ্যাম্পিয়ন হওয়ায় প্রতিশ্রুতি মতো ফরচুন বরিশালের খেলোয়াড়-কর্মকর্তাদের হাতে ২০ লাখ টাকা উপহার তুলে দিয়েছে মোবাইল আর্থিক সেবা প্রতিষ্ঠান নগদ লিমিটেড।

সদ্য শেষ হওয়া বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে চ্যাম্পিয়ন হওয়ায় প্রতিশ্রুতিমতো ফরচুন বরিশালের খেলোয়াড়-কর্মকর্তাদের হাতে ২০ লাখ টাকা উপহার তুলে দিয়েছে মোবাইল আর্থিক সেবা প্রতিষ্ঠান নগদ লিমিটেড।

সম্প্রতি রাজধানীর একটি পাঁচ তারকা হোটেলে এ চেক হস্তান্তর করা হয়। নগদের পক্ষে এ চেক তুলে দেন প্রতিষ্ঠানটির প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা তানভীর এ মিশুক। আর ফরচুন বরিশালের পক্ষে চেক গ্রহণ করেন ফরচুন বরিশালের স্বত্বাধিকারী মিজানুর রহমান এবং অধিনায়ক তামিম ইকবাল।

এ সময় ফরচুন ফরচুন বরিশালের স্বত্বাধিকারী মিজানুর রহমানের পরিবারের সদস্যরাও উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া অনুষ্ঠানে মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মেহেদী হাসান মিরাজ, সৌম্য সরকার, তাইজুল ইসলাম, কামরুল ইসলাম রাব্বি, সাইফউদ্দিন, শামীমসহ বরিশাল দলের খেলোয়াড়েরা এবং দলটির অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বরিশাল ফরচুনের সঙ্গে নগদের সরাসরি কোনো সংশ্লিষ্টতা না থাকলেও এ দলেরই অধিনায়ক তামিম ইকবাল বেশ কয়েক বছর ধরে নগদের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর। তা ছাড়া মুশফিকুর রহিম যুক্ত আছেন নগদ ইসলামিকের সঙ্গে। মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ও মেহেদী হাসান মিরাজও নানাভাবে নগদের প্রচারের জন্য কাজ করছেন। মূলত নগদের উদ্ভাবনী শক্তি এবং চমকপ্রদ সেবা দেশসেরা তারকাদের নগদের ডেরায় ভিড়িয়েছে। তা ছাড়া এবারের আসরের ‘পাওয়ার্ড বাই’ ক্যাটাগরিতে বিপিএলের সঙ্গে যুক্ত ছিল নগদ।

অধিনায়ক তামিম ইকবাল ও ফরচুন বরিশাল দলের আমন্ত্রণে এবারের বিপিএল ফাইনালে খেলাও দেখতে গিয়েছিলেন নগদের প্রধান নির্বাহী তানভীর এ মিশুক। ফাইনালের আগে ব্যাট করা কুমিল্লা ছয় উইকেটে ১৫৪ রান করে। জবাবে চার উইকেট হারিয়ে লক্ষ্যে পৌঁছে যায় বরিশাল। অধিনায়ক তামিম ইকবাল ২৬ বলে ৩৯ রানের ইনিংস খেলেন। তামিম টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক হন।

বরিশাল বেশ কয়েকবার ফাইনালে গিয়েও এর আগে শিরোপা জিততে পারেনি। এবারও তাদের নিয়ে কোনো হইচই ছিল না। বরং তাদের ‘বুড়োদের দল’ হিসেবেও বলেছে অনেকে। তবে টুর্নামেন্ট শুরু হতেই সব আলোচনা বদলে দিয়েছেন তারা। প্রবল দাপট দেখিয়ে উঠে এসেছে ফাইনালে।

চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পরেই আত্মহারা আনন্দে মেতে ওঠে বরিশাল। সেখান থেকে ভিডিও কলে তানভীর এ মিশুককে যুক্ত করেন দলের অধিনায়ক তামিম ইকবাল। তানভীরও তামিম এবং তার দলকে শুভেচ্ছা জানান এবং বিশ লাখ টাকা অর্থ পুরস্কারের ঘোষণা দেন। ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গে চ্যাম্পিয়ন দলের মধ্যে উচ্ছ্বাসের জোয়ার বয়ে যায়।

তিন বিদায়ী জাপানী বিনিয়োগকারীকে সংবর্ধনা দিলো নোভো কার্গো
                                  

স্টাফ রিপোর্টার:
সম্প্রতি নোভো কার্গো সার্ভিসেস লিমিটেড জাপানের তিন বিশিষ্ঠ্য বিনিয়োগকারীকে আনুষ্ঠানিকভাবে বিদায়ী সংবর্ধনা দিয়েছে। এরা হলেন মিটসুবিসি কর্পোরেশনের জেনারেল ম্যানেজার মি. মাইয়ানগু লী, ইটোসু কর্পোরেশনের জেনারেল ম্যানেজার মি. টেটসুরো কানো, টয়োটা টিসুশো কর্পোরেশনের চীপ রিপ্রেসেন্টেটিভ অফিসার মি. তরু মৌরী প্রমূখ। এ উপলক্ষ্যে প্রতিষ্ঠানটি ঢাকার নোভো কনভেনশন হলে এক বিশেষ আয়োজনের ব্যবস্থা করে। অনুষ্ঠানে বিভিন্ন দেশের বিনিয়োগকারী, বিদেশী কূটনৈতিক ব্যাক্তিবর্গ, ব্যবসায়ী সংগঠক, সাংবাদিকসহ বিশিষ্ঠ্যজনেরা উপস্থিত ছিলেন।

বিশেষ বক্তব্যে আয়োজক প্রতিষ্ঠান নোভো কার্গো সর্ভিসেস লিমিটেডের ম্যানেজিং ডিরেক্টর সৈয়দ মুস্তাফিজুর রহমান বলেন, জাপান বাংলাদেশের উন্নয়নে অকৃতিম বন্ধু। এদেশে বিনিয়োগের বিশাল একটি অংশ রয়েছে জাপানিদের। এবং এই বিনিয়োগ সহ বিভিন্ন সহযোগীতা ও ইতিবাচক কর্মকান্ড বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে। তিনি বলেন, বাংলাদেশও বন্ধু হিসেবে তাদের প্রয়োজনীয় সহযোগীতা করে আসছে এবং তাদের পাশে আছে। তিনি জাপানের এই অব্যাহত সহযোগীতার ভূয়সী প্রশংসা করেন। সৈয়দ মুস্তাফিজুর রহমান এদেশে জাপানের এই তিন বিশিষ্ঠ্য ব্যাক্তির আন্তরিক কর্মকান্ডের স্মৃতিচারণ করে তাঁদের কথা বাংলাদেশ কৃতজ্ঞতার সাথে মনে রাখবে বলে উল্লেখ করেন।

এমন সুন্দর আয়োজনের মাধ্যমে তাদের সংবর্ধনা দেওয়ার জন্যে মি. টেটসুরো কানো, মি. মাইয়ানগু লী, মি. তরু মৌরী সৈয়দ মুস্তাফিজুর রহমান এবং তাদের প্রতিষ্ঠান নোভো কার্গো সর্ভিসেস লিমিটেডের প্রতি মুগ্ধ হয়ে আন্তরিক ধন্যবাদ ও সন্তষ্টিবোধ প্রকাশ করেন। তাঁরা এধরনের অনুষ্ঠানকে খুবই গুরুত্বপূর্ণ বলে উল্লেখ করেন। অনুষ্ঠান শেষে আগত অতিথীবৃন্দ নৈশভোজে অংশগ্রহণ করে।

ভরা মৌসুমে বাড়ছে চালের দাম
                                  

ডিটিভি অনলাইন ডেস্ক:

আমনের ভরা মৌসুমে মোকাম, পাইকারি বাজার, খুচরা বাজার- সবখানে চালের দাম বেড়েছে। গত ৮-১০ দিনের ব্যবধানে বিভিন্ন পর্যায়ে চালের দাম বেড়েছে কেজিতে ৩ থেকে ৫ টাকা পর্যন্ত।

বাজারে এখন সরু (মিনিকেট) চালের কেজি বিক্রি হচ্ছে ৬৮ থেকে ৭০ টাকা দরে। যা ৬৫ থেকে ৬৬ টাকা ছিল। মাঝারি (বিআর-২৮, পায়জাম) চালের দাম কেজিতে সর্বোচ্চ তিন টাকা বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ৫৫ থেকে ৫৬ টাকা। দুই টাকা বেড়ে মোটা চাল বিক্রি হচ্ছে ৫০ থেকে ৫২ টাকায়।

চালের দাম বাড়ার কারণ হিসেবে মালিবাগে কুমিল্লা রাইস এজেন্সির ফরিদ হোসেন বলেন, ভোটের কারণে গাড়ি কম এসেছে। তাই সরবরাহ ঘাটতির কারণে চালের দাম বেড়েছে।

তিনি জানিয়েছেন, মানভেদে প্রতি বস্তা চালের দাম দেড়শ থেকে আড়াইশ টাকা পর্যন্ত বেড়েছে।

মোকামমালিক, আড়তদার ও পাইকারি ব্যবসায়ীরা বলছেন, এ মৌসুমে পর্যাপ্ত ধান উৎপাদন হয়েছে। কোথাও চালের কোনো সংকট নেই। কিন্তু বিভিন্ন পর্যায়ে আমন ধানের মজুত গড়ে তোলা হয়েছে। মজুতের কারণে বাজারে চালের দাম বাড়ছে।

রামপুরা বাজারে খুচরা চাল বিক্রেতা ইউনুস হোসেন বলেন, গত এক সপ্তাহের ব্যবধানে চালের দাম কেজিতে সর্বোচ্চ ৫ টাকা পর্যন্ত বেড়েছে। আগে প্রতি কেজি মিনিকেটের দাম ছিল ৬৬ টাকা, বর্তমানে তা ৭০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। ৪৬ টাকার পায়জাম বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকায়।

তবে রাষ্ট্রায়ত্ত বিপণন সংস্থা কৃষি বিপণন অধিদপ্তরের হিসাব অনুযায়ী, এক মাসের ব্যবধানে সরু চালের দাম বেড়েছে ১ দশমিক ৮০ শতাংশ ও মাঝারি চালের দাম বেড়েছে ২ দশমিক ৬৫ শতাংশ।

ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশ, টিসিবির হিসাবেও সরু চালের দাম এক মাসের ব্যবধানে ৫ টাকা পর্যন্ত বেড়েছে।

কোরিয়ান ওয়েভ পুরস্কার পেলেন সৈয়দ মুস্তাফিজুর রহমান
                                  

স্টাফ রিপোর্টার:

কোরিয়ায় অনুষ্ঠিত ১১ তম কোরিয়ান ওয়েভ অ্যাওয়ার্ডে ভূষিত হয়েছেন বাংলাদেশের বিশিষ্ঠ শিল্পোদ্যোক্তা, ব্যবসায়ী সংগঠক ও বিনিয়োগ সহযোগী ব্যক্তিত্ব সৈয়দ মুস্তাফিজুর রহমান। নোভো কার্গো সার্ভিসেস লি: এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর জনাব রহমান এদেশে ব্যবসা-বাণিজ্যে বিশেষ অবদানের জন্য কোরিয়ার অন্যতম শীর্ষস্থানীয় জাতীয় পর্যায়ের এই পুরস্কার লাভ করেন।


কোরিয়ান ওয়েভ কালচার ইন্ডাস্ট্রি ফোরামের চেয়ারম্যান আহন ডাই-বাইওক এবছর ১১ তম কোরিয়ান ওয়েভ অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানের তত্ত্বাবধান করেন তিনি বলেন, এর দীর্ঘ ইতিহাসের মধ্যে, কোরিয়ান ওয়েভের চেতনা, শৈলী এবং প্রতিভা এখন ৪র্থ কোরিয়ায় অবস্থান তৈরি করছে। তরঙ্গ সংস্কৃতি যা কোরিয়ার জাতীয় শক্তি বৃদ্ধিতে নেতৃত্ব দেবে। তিনি আশা করেন যে, এটি কোরিয়ান ওয়েভ সাংস্কৃতিক শিল্পের আরও বিকাশের সুযোগ হিসেবে কাজ করবে।


হ্যলিউ কালচার ইন্ডাস্ট্রি ফোরামের চেয়ারম্যান আহন দাই-বাইওকের স্মারক বক্তৃতার পরে জাতীয় পরিষদের সদস্যদের অভিনন্দন জানান ও বক্তৃতার পরে মঞ্চে পুরস্কার প্রাপ্তদের মূল্যায়ন ঘোষণা করেন। এরপর হালিউ গ্র্যান্ড প্রাইজ বিজয়ীদের অভ্যর্থনা জানাতে নির্বাচন কমিটির চেয়ারম্যান চা জায়ে-কিউং যান।


এই কোরিয়ান ওয়েভ অ্যাওয়ার্ডে ট্র্যাডিশনাল কালচার গ্র্যান্ড প্রাইজ, পপ কালচার গ্র্যান্ড প্রাইজ, পিওর কালচার গ্র্যান্ড প্রাইজ, কালচার ট্যুরিজম গ্র্যান্ড প্রাইজ, কালচারাল প্রাইজ, কালচারাল গ্রান্ড প্রাইজ সহ ৭টি বিভাগে মোট ২৮ জন গ্র্যান্ড প্রাইজ বিজয়ী নির্বাচিত হয়েছেন। আন্তর্জাতিক বিনিময় গ্র্যান্ড প্রাইজ এবং বিশেষ পুরস্কার বিজয়ীদের মধ্যে সম্মানের সাথে সনদপত্র ও ফলক প্রদান করা হয়।

প্রবাসী আয়ে বিশ্বে সপ্তম বাংলাদেশ, বেশি আসে যুক্তরাষ্ট্র থেকে
                                  

ডিটিভি অনলাইন ডেস্ক:

প্রবাসী আয়ের দিক থেকে বাংলাদেশ বিশ্বের সপ্তম এবং এই আয় সব থেকে বেশি আসে যুক্তরাষ্ট্র থেকে। ৭ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হয়ে বৈধ চ্যানেলে বাংলাদেশের মোট প্রবাসী আয়ের পরিমাণ দাঁড়াতে পারে ২৩ বিলিয়ন বা ২ হাজার ৩০০ কোটি ডলার।

সম্প্রতি বিশ্বব্যাংক ও নোমাডের মাইগ্রেশন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট শীর্ষক প্রতিবেদনে এসব তথ্য উঠে এসেছে।

যুক্তরাষ্ট্রের পরেই দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স আসে সৌদি আরব থেকে। এ ছাড়া গালফ কো অপারেশন কাউন্সিলভুক্ত (জিসিসি) বেশ কয়েকটি দেশ থেকে উল্লেখযোগ্য পরিমাণে প্রবাসী আয় আসছে। এর মধ্যে রয়েছে কুয়েত,বাহারাইন, কাতার, ওমান, সংযুক্ত আরব আমিরাত, ইরাকসহ বেশ কয়েকটি দেশ । ২০২২ সালে বাংলাদেশের রেমিট্যান্স বা প্রবাসী আয়প্রাপ্তিতে নেতিবাচক ধারা থাকলেও এ বছরে প্রবৃদ্ধি অর্জনের পূর্বাভাস দিয়েছে বিশ্বব্যাংক।

প্রবাসী আয়ে শীর্ষ দেশ ভারত। চলতি বছর দেশটির প্রবাসী আয়ের পরিমাণ দাঁড়াতে পারে ১২৫ বিলিয়ন বা ১২ হাজার ৫০০ কোটি ডলার। যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপের শ্রমবাজারের চাঙা ভাব, উচ্চ আয়ের দেশগুলোতে মূল্যস্ফীতি কমার কারণে প্রবাসী আয়প্রবাহ বাড়বে বছর শেষে। তবে সৌদি আরব ও কুয়েতের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিতে রীতিমতো ধস নামার কারণে বাংলাদেশের প্রবাসী আয়ে নেতিবাচক প্রভাব পড়বে।

দেশভিত্তিতে প্রবাসী আয়প্রাপ্তিতে দ্বিতীয় স্থানে থাকবে মেক্সিকো। দেশটি মোট ৬ হাজার ৭০০ কোটি ডলারের প্রবাসী আয় পেতে পারে। ৫ হাজার কোটি ডলারের প্রবাসী আয় নিয়ে তৃতীয় স্থানে থাকবে চীন। চতুর্থ স্থানে থাকবে ফিলিপাইনস, তারা পাবে ৪ হাজার কোটি ডলার।

মিশর ও পাকিস্তান উভয় দেশই ২ হাজার ৪০০ কোটি ডলার যথাক্রমে পঞ্চম ও ষষ্ঠ স্থানে থাকবে। সপ্তম স্থানে থাকবে বাংলাদেশ। নাইজেরিয়া, গুয়েতেমালা ও উজবেকিস্তান যথাক্রমে ২ হাজার ১০০ কোটি, ২ হাজার কোটি ও ১ হাজার ৬০০ কোটি ডলারের প্রবাসী আয় নিয়ে অষ্টম, নবম ও দশম স্থানে থাকবে।

প্রথমবারের মতো প্রার্থীর সক্ষমতা যাচাইয়ে সাক্ষাৎকার
                                  

ডিটিভি অনলাইন ডেস্ক:

দেশের বেসরকারি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও পদে নিয়োগের লক্ষ্যে প্রথমবারের মত প্রার্থীর সক্ষমতা যাচাইয়ে সাক্ষাৎকার নিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। সংশ্লিষ্ট প্রার্থীকে নিয়োগের পরে ব্যাংক পরিচালনার মডেল প্রদর্শন, উদ্ভাবনী কৌশল, দেশের অর্থনীতির বাস্তবতায় ব্যাংক নির্বাহী প্রধান হিসেবে গৃহীত কর্মসূচি, ব্যাংকের পর্ষদ সদস্যদের সঙ্গে মিলেমিশে কাজ করার মানসিকতা বিষয়ে জিজ্ঞাসা করা হয়।

সম্প্রতি বাংলাদেশ ব্যাংক কর্তৃপক্ষ ব্যাংক এশিয়ার পরিচালনা পর্ষদের সুপারিশ করা এমডি পদে প্রার্থী সোহেল আর কে হুসেইনের সাক্ষাৎকার নেয়। সেখানে গভর্নর আব্দুর রউফ তালুকদার, ডেপুটি গভর্নর এবং ব্যাংকিং নীতি ও প্রবিধি বিভাগের নির্বাহী পরিচিলক এবং পরিচালকসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, কেন্দ্রীয় ব্যাংকে সাক্ষাৎকারে প্রার্থী তার অতীত অভিজ্ঞতার আলোকে সক্ষমতা প্রমাণের যাবতীয় কৌশল অবলম্বনের সুযোগ পেয়ে থাকেন। প্রার্থীর জবাবে সন্তুষ্টি সাপেক্ষে বাংলাদেশ ব্যাংক নিয়োগের চূড়ান্ত অনুমোদন দেবেন।

প্রথমবার সাক্ষাৎকারে অংশ নেন মেঘনা ব্যাংকের বর্তমান সিইও সোহেল আর কে হুসেইন। তিনি ব্যাংক এশিয়ার এমডি পদে মৌখিক পরীক্ষার প্রার্থী ছিলেন। সোহেল আর কে হুসেইন গণমাধ্যমকে বলেন, এটা কোন ভাইভা ছিল না। অভিজ্ঞতা ও কর্মকৌশল প্রভৃতি বিষয়ে জানতে চাওয়া হয়েছিল।

বাংলাদেশ ব্যাংকের এক কর্মকর্তা বলেন, বিধি অনুযায়ী কোনো বেসরকারি ব্যাংকের এমডি পদ শূন্য হলে ওই ব্যাংকের এমডি নিয়োগ চূড়ান্ত অনুমোদন দেয় কেন্দ্রীয় ব্যাংক। যাকে নিয়োগ দেওয়া হয় তার নিয়োগের জন্য নাম প্রস্তাব করে সংশ্লিষ্ট ব্যাংক। প্রার্থীর যোগ্যতা, সম্মানী ও আনুষাঙ্গিক সুবিধা, প্রয়োজনীয় কাগজপত্র যাচাই-বাছাই করতো কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সংশ্লিষ্ট বিভাগ। কাগজপত্র যাচাইয়ের বাইরে কিছুই করার ছিল না।

আইএমএফর পরামর্শে নতুন নীতিমালায় বাংলাদেশ ব্যাংকে প্রার্থীর সক্ষমতা যাচাইয়ের নতুন অধিকার দিয়েছে। সক্ষমতা যাচাইয়ে পরীক্ষায় ব্যর্থ হলে নিয়োগ বন্ধের ক্ষমতা পেয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। সে ক্ষেত্রে বিকল্প প্রার্থীর জন্য চিঠি লিখতে পারবে বাংলাদেশ ব্যাংক।

দেশের ব্যাংক খাতে অব্যবস্থাপনা রোধে আইএমএফ যে সংস্কার প্রস্তাব দেয়, সেই আলোকে ব্যাংক কোম্পানি আইন সংশোধন করা হয়। যেখানে এমডির সক্ষমতা যাচাইয়ের ক্ষমতা পায় বাংলাদেশ ব্যাংক। চলতি বছরে (২০২৩) সংশোধিত ব্যাংক কোম্পানি আইন-১৯৯১ অনুযায়ী, ব্যাংকের এমডি পদে নিয়োগে কেন্দ্রীয় ব্যাংক সংশ্লিষ্ট ব্যাংকের সক্ষমতা যাচাইয়ের সুযোগ পাবে। যদি কোন প্রার্থী যোগ্য বিবেচ্য না হয় সেক্ষেত্রে নতুন প্রার্থীর তালিকা চাইতে পারবে বাংলাদেশ ব্যাংক।

বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মো. মেজবাউল হক বলেন, সংশোধিত ব্যাংক কোম্পানি নীতিমালার আলোকে কেন্দ্রীয় ব্যাংক এমডি নিয়োগে যোগ্য প্রার্থী বাছাই করবে। তবে এটা সাক্ষাৎকার না, প্রার্থীর তথ্য পর্যালোচনা বলা যেতে পারে। খারাপ পারফরমেন্স করলে নতুন প্রার্থীর তালিকা চাওয়া হবে।

দাম বেড়েছে ডিম-মুরগির, সবজি স্থিতিশীল
                                  

ডিটিভি অনলাইন ডেস্ক:

রাজধানীর বিভিন্ন কাঁচাবাজারে প্রতিটি দোকানেই থরে থরে সাজানো রয়েছে নানান রকমের শীতের সবজি। সরবরাহ বাড়ায় দামও নাগালের মধ্যে রয়েছে। বেশিরভাগ সবজি ৫০ টাকা বা তার কাছাকাছি দরে বিক্রি হচ্ছে।

তবে আবারও আলুর দাম নিয়ে অস্বস্তি। বিশেষ করে নতুন আলুর দাম বাড়তি। দুদিন আগেও যে আলু ৫০ থেকে ৬০ টাকায় পাওয়া যাচ্ছিল তা এখন বেড়ে (আকারভেদে) ৬০ থেকে ৮০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

তবে স্থিতিশীল রয়েছে পেঁয়াজ ও মাছের বাজার। কেজিতে ১০ থেকে ১৫ টাকা বেড়েছে মুরগির দাম। বাড়তি রয়েছে ডিমের বাজারও।

বিক্রেতারা বলছেন, বাজার সরবরাহের ওপরে নির্ভর করে দরদাম। আর ক্রেতার অভিযোগ, ভরা মৌসুমেও ৫০ টাকায় শীতের সবজি কেনা মানে সাধারণকে জিম্মি করে বিক্রি করা।

রোববার (১৭ ডিসেম্বর) রাজধানীর মগবাজার বনলতা মার্কেট, মালিবাগ বাজার, মালিবাগ রেলগেট, শান্তিনগর ও সেগুনবাগিচা বাজার ঘুরে এসব চিত্র উঠে এসেছে।

বাজারগুলোতে শালগম, মুলা, ফুলকপি, বাঁধাকপি, পেঁপে ৪০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। গ্রীষ্মের সবজি ঝিঙা, চিচিঙা, পটল বিক্রি হচ্ছে ৭০ থেকে ৮০ টাকা। বাজারে পুরোনো আলু ৫০ টাকায় পাওয়া গেলেও নতুন আলুর দাম বেড়েছে কেজিতে ১০ টাকা। এখন এসব বাজারে আকারভেদে নতুন আলু বিক্রি হচ্ছে ৬০ থেকে ৮০ টাকার মধ্যে।

বাজারে এখন দেশি পুরোনো পেঁয়াজের কেজি ১৪০ থেকে ১৬০, ভারতীয় পেঁয়াজের কেজি ১২০ থেকে ১৩০ এবং মুড়িকাটা পেঁয়াজের কেজি ৯০ থেকে ১০০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। এখনো চড়া দামেই বিক্রি হচ্ছে আদা-রসুন। দেশি রসুন প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে ২৭০ থেকে ২৮০ টাকা, যা সপ্তাহ খানেক আগে ছিল ২০০ থেকে ২২০ টাকা। চায়না রসুনের কেজি পাওয়া যাচ্ছে ২৩০ থেকে ২৪০ টাকায়। এ মানের রসুনের কেজিতে সপ্তাহের ব্যবধানে ৩০ থেকে ৪০ টাকা বেড়েছে।

গত কয়েকদিন কিছুটা বাড়তে শুরু করেছে মুরগির দাম। গত দুদিনে কেজিতে ১৫-২০ টাকা বেড়েছে ব্রয়লার মুরগির দাম। একই সঙ্গে বেড়েছে ডিমের দামও। কেজিতে ১৫ থেকে ২০ টাকা দাম বেড়ে এখন ব্রয়লারের কেজি বিক্রি হচ্ছে ১৯০ থেকে ২০০ টাকা দরে। ডজনপ্রতি ৫ থেকে ১০ টাকা বেড়ে লাল ও সাদা ডিম বিক্রি হচ্ছে ১৩০ থেকে ১৪০ টাকা দরে। আর ডজনে ২০ টাকা বেড়ে হাঁসের ডিম বিক্রি হচ্ছে ২২০ টাকা। আগের দামেই বিক্রি হচ্ছে গরু ও খাসির মাংস।

বনলতা বাজারের সবজি বিক্রেতা আলী বলেন, এখন শীতের সবজির দাম তুলনামূলক কম রয়েছে। কিন্তু গ্রীষ্মের অনেক সবজি পাওয়া যাচ্ছে যেগুলোর দাম বেশি। পেঁয়াজ-রসুনের দামও গত দুই-তিন দিন একই ধরনের রয়েছে।

শান্তিনগর বাজারে আসা একজন ক্রেতা বলেন, শীতের সবজি বাজারে আসা মানেই ৩০ টাকার মধ্যেই সবকিছু বেচা-বিক্রি হওয়া। এর ওপর দর নেওয়া মানেই কোনো এক সিন্ডিকেটের কবলে পড়েছে এটাই ধরতে হবে।

আদানি পোর্টফোলিওর প্রথমার্ধে প্রবৃদ্ধি ৪৭ শতাংশ
                                  

ডিটিভি অনলাইন ডেস্ক:

চলতি অর্থবছরের প্রথমার্ধের আর্থিক বিবরণী প্রকাশ করেছে আদানি পোর্টফোলিও। ভারতের অবকাঠামো উন্নয়নকে শক্তিশালীকরণে অসামান্য অবদান রাখা আদানি পোর্টফোলিও তাদের সব ব্যবসায়িক ফলাফলেই ইতিবাচক ধারা অব্যাহত রেখেছে।

২০২৩-২৪ অর্থ বছরে প্রতিষ্ঠানটির মোট মুনাফা বা ইবিআইটিডিএ (আর্নিংস বিফোর ইন্টারেস্ট, ট্যাক্সেস, ডেপ্রিসিয়েশন অ্যান্ড অ্যামোর্টাইজেশন) ৪৭ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। টাকার অঙ্কে যা প্রায় ৫৭ হাজার ৬৫০ কোটি টাকা। এখন পর্যন্ত এটি প্রতিষ্ঠানের জন্য সর্বোচ্চ ইবিআইটিডিএ-এর অর্জনকে নির্দেশ করে।

আদানির এ ব্যবসায়িক আর্থিক প্রবাহ দেশটির টেকসই ভবিষ্যত প্রবৃদ্ধির ভিত্তি স্থাপনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। এ প্রবৃদ্ধি পোর্টফোলিওর ঐতিহাসিক পাঁচ বছরের ‘কম্পাউন্ড অ্যানুয়াল গ্রোথ রেট (সিএজিআর) অর্থ্যাৎ চক্রবৃদ্ধি বার্ষিক বৃদ্ধির হার ২৬.৩ শতাংশকেও ছাড়িয়ে গেছে।

আর্থিক বিবরণীতে দেখা যায়, এ বছরের প্রথমার্ধের রাজস্বের পরিমাণ ইবিআইটিডিএ’র ক্ষেত্রে ২০২২ সালের পুরো বছরের রাজস্বের প্রবৃদ্ধিকে ছাড়িয়ে গেছে। এছাড়া গত এক বছরের মোট মুনাফার পরিমাণ উল্লেখযোগ্যভাবে বেড়ে ২০১৯ সালের প্রায় ৩ গুণ হয়েছে।

আদানির যেসব ব্যবসায়ের কারণে এ প্রবৃদ্ধি অর্জন করা সম্ভব হয়েছে, সেগুলো হলো আদানি গ্রিন এনার্জি, আদানি এনার্জি সল্যুশন্স, আদানি পাওয়ার ও আদানি টোটাল গ্যাস। এছাড়া পরিবহন খাতে রয়েছে আদানি পোর্টস অ্যান্ড এসইজেড। অন্যান্য অবকাঠামো খাতে রয়েছে গ্রিন হাইড্রোজেন সমন্বিত উৎপাদন, বিমানবন্দর ও রাস্তা-ঘাটের প্রকল্প যা আদানি এন্টারপ্রাইজ পরিচালনা করে।

এ প্রবৃদ্ধি অর্জন সম্ভব হয়েছে আদানির অবকাঠামো ব্যবসায়ের অসাধারণ পারফরম্যান্সের জন্য, যা ৫২ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪৯ হাজার ৩৩০ কোটিরও বেশি টাকায়। প্রতিষ্ঠানের রাজস্ব প্রবৃদ্ধিতে গ্রিন হাইড্রোজেনের অবদান ১০ গুণ বেড়ে হয়েছে ২১২ শতাংশ। আর্থিক বিবরণীর প্রথমার্ধে বিমানবন্দর ব্যবসায়ের প্রবৃদ্ধি হয়েছে ২৯ শতাংশ। মূল রাজস্ব আয়ে যার অবদান ৪২ শতাংশ।

বার্ষিক হিসাবে সিমেন্ট ব্যবসায়ে (আম্বুজা অ্যান্ড এসিসি) আদানি পোর্টফোলিওর রাজস্ব বেড়েছে দ্বিগুণেরও বেশি। আদানি গ্রিনের নবায়নযোগ্য প্রকল্পে বার্ষিক প্রবৃদ্ধি হয়েছে ৭৬ শতাংশ। এটি প্রায় ১০ হাজার ৯৮৭ হাজার কোটি টাকা মুনাফার মাধ্যমে ১২ মাসের ভিত্তিতে প্রথমবারের মতো একটি মাইলফলক অর্জন করেছে।

অন্যদিকে ২০০ এমএমটি সমৃদ্ধ আদানি পোর্টস অ্যান্ড এসইজেড বন্দর ব্যবসায়ের ক্ষেত্রে দ্বিগুণেরও বেশি প্রবৃদ্ধি অর্জনের মাধ্যমে আরেকটি উল্লেখযোগ্য মাইলফলক স্পর্শ করেছে।

আদানি গ্রুপের চিফ ফাইন্যান্সিয়াল অফিসার (সিএফও) জুগেশিন্দর (রবি) সিং বলেন, বিমানবন্দর, গ্রিন হাইড্রোজেন ও অন্যান্য ইনকিউবেটিং প্রকল্পের মাধ্যমে ইনকিউবেশনকে শক্তিশালী করে আমরা সাফল্যের গল্প রচনা করে চলেছি। এটি বর্তমানে পোর্টফোলিওর ইবিআইটিডিএ-তে প্রায় ৮ শতাংশ অবদান রাখছে। সামষ্টিক অর্থনৈতিক ও অন্যান্য চ্যালেঞ্জ থাকা সত্ত্বেও আদানি পোর্টফোলিও সময়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে অনন্য প্রবৃদ্ধি অর্জনে উল্লেখযোগ্য রেকর্ড করেছে।

পেঁয়াজের দাম নিয়ন্ত্রণে চট্টগ্রামে অভিযান, ১৬ মামলা
                                  

ডিটিভি অনলাইন ডেস্ক:

পেঁয়াজসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম নিয়ন্ত্রণে চট্টগ্রামের পাইকারি থেকে খুচরা পর্যায়ের বাজারে অভিযান পরিচালনা করেছে জেলা প্রশাসন। জেলা প্রশাসনের ছয়জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পরিচালিত এ অভিযানে ১৬ মামলায় ৬৪ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।

মঙ্গলবার (১২ ডিসেম্বর) দিনভর এ অভিযান পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটরা।

জেলা প্রশাসন জানায়, নগরীর আগ্রাবাদ চৌমুহনীর কর্ণফুলী মার্কেটে অভিযানে নেতৃত্ব দেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তৌহিদুল ইসলাম। পাহাড়তলি বাজারে অভিযানে নেতৃত্ব দেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হিমাদ্রি খীসা। এসময় আট মামলায় ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেন তিনি। নগরীর ২নম্বর গেট কর্ণফুলী বাজারে অভিযান চালান নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. উমর ফারুক। এসময় ক্রয়-বিক্রয় রশিদ সংরক্ষণ না করা এবং উচ্চমূল্যে পেঁয়াজ বিক্রির দায়ে চার প্রতিষ্ঠানকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করেন তিনি।

অন্যদিকে, নগরীর চাক্তাই এলাকায় অভিযান পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রাকিবুল ইসলাম। তিনি এক প্রতিষ্ঠানকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেন। একই সময়ে রিয়াজউদ্দিন বাজারে অভিযানে নেতৃত্ব দেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট খায়রুল ইসলাম। তিনি দুই দোকানকে ৮ হাজার টাকা জরিমানা করেন। নগরীর কাজীর দেউড়ি এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৩ দোকানকে ৬ হাজার টাকা জরিমানা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফেরদৌস আরা।

সাউথইস্ট ব্যাংকের ৫০০ কোটি টাকার বন্ড অনুমোদন
                                  

ডিটিভি অনলাইন ডেস্ক:

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত সাউথইস্ট ব্যাংকের ৫০০ কোটি টাকার বন্ড অনুমোদন করেছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।

মঙ্গলবার (১২ ডিসেম্বর) অনুষ্ঠিত বিএসইসির কমিশন সভায় এই অনুমোদন দেওয়া হয়। কমিশন সভায় সভাপতিত্ব করেন বিএসইসির চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম।

কমিশন সভা শেষে বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মোহাম্মদ রেজাউল করিম জানান, ‘সাউথইস্ট ব্যাংক ফার্স্ট পারপেচুয়াল বন্ড’ নামে সাউথইস্ট ব্যাংকের ৫০০ কোটি টাকার বন্ডের প্রস্তাব অনুমোদন করেছে কমিশন।

বন্ডটি প্রাইভেট প্লেসমেন্টের মাধ্যমে বিক্রি করে ৪৫০ কোটি টাকা উত্তোলন করা হবে। বাকি ৫০ কোটি টাকা পাবলিক অফারের মাধ্যমে বিক্রি করা হবে। বন্ডের প্রতি ইউনিটের অভিহিত মূল্য ৫ হাজার টাকা।

বন্ডটির কুপন হার ৬ থেকে ১০ শতাংশ। এই বন্ড ইস্যুর মাধ্যমে উত্তোলন করা অর্থ দিয়ে সাউথইস্ট ব্যাংকের টায়ার-১ মূলধন ভিত্তি শক্তিশালী করা হবে।

বন্ডটির ট্রাস্টি হিসেবে আইডিএলসি ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড কাজ করছে। এছাড়া অ্যারেঞ্জার হিসেবে রয়েছে আইডিএলসি ফাইন্যান্স লিমিটেড, সিটি ব্যাংক ক্যাপিটাল রিসোর্স ও সাউথইস্ট ব্যাংক ক্যাপিটাল সার্ভিস।

বন্ডটির ইস্যু ম্যানেজার হিসেবে কাজ করছে সাউথইস্ট ব্যাংক ক্যাপিটাল সার্ভিস ও ইউসিবি ইনভেস্টমেন্ট। আন্ডার রাইটার হিসেবে কাজ করছে রূপালী ইনভেস্টমেন্ট। বন্ডটি স্টক এক্সচেঞ্জে তালিকাভুক্ত হবে।

সরবরাহ বাড়লেও কমছে না আলুর দাম
                                  

ডিটিভি অনলাইন ডেস্ক:

বাজারে নতুন আলুর সরবরাহ বাড়ছে। কিছু আমদানি করা আলুও রয়েছে। এরপরও কমছে না এ নিত্যপণ্যের দাম।

বিক্রেতারা বলছেন, সাধারণত ডিসেম্বরের শুরুতে বাজারে নতুন আলু আসতে শুরু করলে পুরাতন আলুর দামও কমতে থাকে। কিন্তু এবার তার ব্যতিক্রম দেখা যাচ্ছে। বাজারে এখনো পুরাতন আলু ৪৫ থেকে ৫৫ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

এদিকে চলতি বছরের সেপ্টেম্বরে বাজার নিয়ন্ত্রণে আলু আমদানির উদ্যোগ নেয় সরকার। এরপর এখন পর্যন্ত আলু আমদানি হয়েছে ৩৮ হাজার টন। তবে আমদানির সিদ্ধান্তের পরও বাজারে তার বড় কোনো প্রভাব দেখা যায়নি। উচ্চ মূল্যেই স্থিতিশীল হয়ে আছে পণ্যটি।

রামপুরা মালিবাগ তালতলা বাজার ঘুরে দেখা গেছে, বাজারে খুচরায় পুরোনো আলুর কেজি ৪৫ থেকে ৫৫ টাকা। নতুন আসা আলুর ৬০ থেকে ৮০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

তালতলা বাজারে আলু ব্যবসায়ী আবুল হোসেন বলেন, বাজারে নতুন আলু আসা শুরু করলেও এখনো তা পরিমাণে যথেষ্ট নয়। এ কারণে দামে বড় কোনো প্রভাব পড়ছে না। তবে সরবরাহ আরও বাড়লে দাম কিছুটা কমতে পারে।

এদিকে একজন আমদানিকারক বলেন, এখন বাজারে যেসব আলু বিক্রি হচ্ছে, তার বেশির ভাগ ভারত থেকে আমদানি করা। ডলারের বাড়তি দামের কারণে আমদানি খরচও বেশি। তাই আমদানি করা আলু কম দামে বিক্রি করা যাচ্ছে না।

সরকারি সংস্থা ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) হিসাবে, বাজারে এখন প্রতি কেজি আলুর দাম ৪৫ থেকে ৫৫ টাকা। গত বছরের একই সময়ে দাম ছিল ২২ থেকে ২৫ টাকা। সেই হিসাবে এক বছরের ব্যবধানে বাজারে এখন আলুর দাম দ্বিগুণের বেশি।

এক কোটি কার্ডের সুবিধা পাবে পাঁচ কোটি মানুষ: বাণিজ্যমন্ত্রী
                                  

ডিটিভি অনলাইন ডেস্ক:

প্রধানমন্ত্রী দেশের সার্বিক দিক বিবেচনা করে প্রায় এক কোটি মানুষকে স্মার্ট ফ্যামিলি কার্ড দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। তিনি বলেন, ‘কোটি মানুষ মানে এর মাধ্যমে পাঁচ কোটি মানুষ এই সুবিধা পাবেন। কার্ডধারীরা ছাড়াও অন্যরা এই মালামাল নিতে পারবেন।’

বুধবার (৬ ডিসেম্বর) রাজধানীর তেজগাঁওয়ের নাবিস্কো মোড় এলাকায় দেশব্যাপী এক কোটি স্মার্ট ফ্যামিলি কার্ড বিতরণ ও ডসেম্বর মাসের টিসিবি পণ্য বিক্রয় কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। টিসিবির ঢাকা আঞ্চলিক কার্যালয় এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

টিপু মুনশি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় আমরা সার্বিক কার্যক্রম পরিচালনা করছি, যাতে দেশের মানুষ উপকৃত হন। স্বাধীনতার পর বঙ্গবন্ধু এই কার্যক্রম শুরু করেছিলেন। সেই ধারায় আমরা এই কার্যক্রম পরিচালনা করছি। আমরা সবার সহযোগিতা চাই, যেন দ্রুত সাধারণ মানুষকে কার্ড পৌঁছে দিতে পারি এবং সুন্দরভাবে পরিচালনা করতে পারি। এক কোটি মানুষকে টিসিবির পণ্য দেওয়া বেশ কঠিন কাজ। তবুও এই কাজ সম্পন্ন করা হচ্ছে।’

অনেক সময় দেখা যায় মানুষকে দেওয়ার আগেই পণ্য শেষ হয়ে যায়। এবার কী সেই সমস্যার সমাধান হবে? জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, ‘সবকিছুরই তো সীমাবদ্ধতা আছে। আমরা যেহেতু এখন কার্ডের মাধ্যমে দেই, তাই যাদের কার্ড আছে তারা পাবেই। ৩০টি ট্রাকে ঢাকা শহরের প্রায় নয় হাজার মানুষকে আমরা দেই (পণ্য), এটা স্বল্প হলেও একটি সুন্দর প্রক্রিয়া। নয় হাজার জনকে দিলে কেউ হয়তো পাবেন না। একটি ট্রাকে ৩০০ জনকে দেওয়া যায়। এরপর যিনি আসবেন তিনি হয়তো পাবেন না। আমরা চেষ্টা করছি এটি বাড়ানোর। এখন ট্রাকের মাধ্যমে যেগুলো দেওয়া হচ্ছে তা কার্ডের বাইরেই আমরা দিচ্ছি। অন্যদিকে আমরা কার্ডের মাধ্যমে প্রায় এক কোটি মানুষকে মালামাল দিচ্ছি। শুধু ঢাকা নয় ঢাকার বাইরেও তিনটি বড় শহরে আমরা টিসিবির পণ্য দিচ্ছি।’

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন- বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব তপন কান্তি ঘোষ, আইআইএফসি’র ভারপ্রাপ্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) মো. আনোয়ার হোসেন, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সেলিম রেজা, ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) চেয়ারম্যান ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. আরিফুল হাসান, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ২৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আবদুল্লাহ আল মঞ্জুর।

দেশে উৎপাদিত লোহা রপ্তানিতে বড় সম্ভাবনা দেখছেন উদ্যোক্তারা
                                  

ডিটিভি অনলাইন ডেস্ক:

স্থানীয় চাহিদা মিটিয়ে দেশে উৎপাদিত স্টিল বা লোহা এবং লোহা থেকে তৈরি পণ্য বিদেশেও রপ্তানির সম্ভাবনা দেখছেন ব্যবসায়ী ও উদ্যোক্তারা। তাদের হিসাবে, সরকারের পৃষ্ঠপোষকতা পেলে স্টিল বা ইস্পাত পণ্য রপ্তানি করে বার্ষিক ১০ থেকে ১৫ বিলিয়ন ডলার বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনের সুযোগ রয়েছে।

সোমবার (৪ ডিসেম্বর) রাজধানীর গুলশানে ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন দ্য ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার্স অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (এফবিসিসিআই) এবং বাংলাদেশ স্টিল ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যাসোসিয়েশন (বিএসএমএ) আয়োজিত এক সভায় এসব কথা উঠে আসে। সভায় সভাপতিত্ব করেন এফবিসিসিআই সভাপতি মাহবুবুল আলম।

এ সময় তিনি বলেন, ইস্পাত বা লোহা এবং লোহার পণ্য রপ্তানিতে বাংলাদেশের উদ্যোক্তাদের কী চ্যালেঞ্জ রয়েছে তা খুঁজে বেড় করতে হবে। এসব চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় এবং করণীয় নির্ধারণে এ খাতের উদ্যোক্তাদের সুনির্দিষ্ট প্রস্তাবনা তৈরি করতে হবে। বেসরকারি খাতের অভিভাবক হিসেবে এফবিসিসিআই তাদের সেসব প্রস্তাব নিয়ে নীতি নির্ধারকদের সঙ্গে কথা বলবে।

রপ্তানিপণ্য বহুমুখী করতে লোহা ও লোহার পণ্য বড় ভূমিকা রাখতে পারে বলেও মনে করেন এফবিসিসিআই সভাপতি।

সভায় অংশ নিয়ে কমনওয়েলথ এন্টারপ্রাইজ অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট কাউন্সিলের অ্যাডভাইজার জিল্লুর হোসেন জানান, যুক্তরাজ্যসহ কমনওয়েলথের সদস্য দেশগুলোতে বাংলাদেশের ইস্পাতসহ অন্যান্য রপ্তানি পণ্যের বড় সম্ভাবনা রয়েছে। এই সুযোগ কাজে লাগাতে ব্যবসায়ীদের পাশাপাশি সরকারকেও উদ্যোগী হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

বাংলাদেশে আন্তর্জাতিক মানের লোহা ও লোহার পণ্য তৈরি হচ্ছে, প্রযুক্তি উন্নত- এমন দাবি বাংলাদেশ স্টিল ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলমের। তিনি বলেন, স্থানীয় কারখানাগুলোর উৎপাদন সক্ষমতার তুলনায় দেশের ইস্পাতের চাহিদা প্রায় ৫০ শতাংশ কম। উদ্বৃত্ত সক্ষমতার (ওভার ক্যাপাসিটি) ইস্পাত যদি আফ্রিকাসহ কমনওয়েলথভুক্ত দেশগুলোতে রপ্তানি করা যায়, তাহলে এই খাত থেকে প্রতি বছর ১০ থেকে ১৫ বিলিয়ন ডলার বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন সম্ভব।

এ সময় লোহা ও লোহার পণ্যকে রপ্তানিমুখী শিল্পে রূপান্তরের জন্য সরকারের বিশেষ পৃষ্ঠপোষকাত চান ব্যবসায়ীরা। এর মধ্যে রয়েছে, রপ্তানিমুখী শিল্প হিসেবে লোহা ও লোহার পণ্যের কাঁচামাল আমদানিতে বিশেষ শুল্ক সুবিধা, আংশিক বন্ড সুবিধা, নগদ সহায়তাসহ রপ্তানি অন্যান্য সহযোগিতা। রপ্তানিমুখী ইস্পাত কারখানায় জ্বালানি মূল্যে সুযোগ-সুবিধা, সরবরাহ ব্যবস্থা উন্নত করাসহ অন্যান্য নীতি সহায়তা।

সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন, কমনওয়েলথ এন্টারপ্রাইজ অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট কাউন্সিলের কান্ট্রি ডিরেক্টর ড. সুমন চৌধুরী, এফবিসিসিআই পরিচালক এবং বাংলাদেশ আয়রন অ্যান্ড স্টিল ইমপোর্টার অ্যাসোসিয়েশনের সহ-সভাপতি মো. আমির হোসেন নুরানী, মেট্রোসেম ইস্পাত লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. শহীদুল্লাহ, বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের পরিচালক শুনিল কুমার অধিকারী প্রমুখ।

শুরুতে সূচক ঊর্ধ্বমুখী, লেনদেনে ভালো গতি
                                  

ডিটিভি অনলাইন ডেস্ক:

সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবস সোমবার লেনদেনের শুরুতে শেয়ারবাজারে ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা দেখা যাচ্ছে। বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বাড়ার পাশাপাশি ঊর্ধ্বমুখী রয়েছে মূল্যসূচক। সেই সঙ্গে লেনদেনে ভালো গতি রয়েছে।

প্রথম ঘণ্টার লেনদেনে প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) এবং অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সবকটি মূল্যসূচক ঊর্ধ্বমুখী রয়েছে। সেই সঙ্গে দাম দাম বাড়ার তালিকায় রয়েছে বেশি সংখ্যক প্রতিষ্ঠান।

এতে প্রথম ঘণ্টার লেনদেনে ডিএসইর প্রধান মূল্যসূচক বেড়েছে ৯ পয়েন্ট। আর লেনদেন হয়েছে প্রায় ১৫০ কোটি টাকা। দাম বাড়ার তালিকায় নাম লিখিয়েছে প্রায় ১০০ প্রতিষ্ঠান। অবশ্য দাম বাড়ার থেকে দাম অপরিবর্তিত থাকা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা বেশি।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জেও (সিএসই) প্রথম ঘণ্টার লেনদেনে মূল্যসূচক ঊর্ধ্বমুখী অবস্থায় রয়েছে। সেই সঙ্গে দাম বাড়ার তালিকায় রয়েছে বেশি সংখ্যক প্রতিষ্ঠান।

এদিন শেয়ারবাজারে লেনদেন শুরু হয় বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার দাম বাড়ার মাধ্যমে। এতে লেনদেন শুরু হতেই ডিএসইর প্রধান সূচক ২ পয়েন্ট বেড়ে যায়। লেনদেনের প্রথম এক ঘণ্টাজুড়েই বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার দাম বাড়ার প্রবণতা অব্যাহত থাকে।

এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ১১টা ৮ মিনিটে ডিএসইতে ৯৯টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দাম বাড়ার তালিকায় রয়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ৩৭টির। আর ১১৬টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

ফলে ডিএসইর প্রধান সূচক বেড়েছে ১০ পয়েন্ট। অপর দুই সূচকের মধ্যে ডিএসই-৩০ সূচক ১ পয়েন্ট বেড়েছে। আর ডিএসই শরিয়াহ্ সূচক ১ পয়েন্ট বেড়েছে। এ সময় পর্যন্ত ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ১৫৫ কোটি ৪৮ লাখ টাকা।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ১২ পয়েন্ট বেড়েছে। লেনদেন হয়েছে ২ কোটি ৬৪ লাখ টাকা। লেনদেন অংশ নেওয়া ৯০ প্রতিষ্ঠানের মধ্যে দাম বেড়েছে ৩২টির, কমেছে ১৭টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪১টির।

অবরোধে ‘প্রায় ফাঁকা’ নিউমার্কেট, চিন্তিত ব্যবসায়ীরা
                                  

ডিটিভি অনলাইন ডেস্ক:

বিএনপি-জামায়াতসহ সমমনা রাজনৈতিক দলগুলোর ডাকা পঞ্চম ধাপের অবরোধ চলছে। সরকারবিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোর টানা অবরোধের প্রভাব পড়েছে যোগাযোগব্যবস্থাসহ ব্যবসা-বাণিজ্যে। মানুষের চলাচল কমে যাওয়ায় রাজধানীর বিপণীবিতানগুলোতেও বিক্রি কমেছে বলে জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা।

বুধবার (১৫ নভেম্বর) বিকেলে রাজধানীর নিউমার্কেট, সায়েন্সল্যাব, নীলক্ষেত এলাকার প্রায় ১৯টির মতো মার্কেটে ঘুরে এবং ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে এ তথ্য জানা গেছে।

এদিন সরেজমিনে নিউমার্কেট এলাকায় দেখা যায়, রাস্তায় যানবাহনের পরিমাণ কম। সপ্তাহের প্রায় প্রতিটি দিন যেখানে এই এলাকায় যানজট লেগেই থাকে সেখানে এদিন রাস্তা ছিল অনেকটাই ফাঁকা। ব্যবসায়ীরা বলছেন, টানা অবরোধের ফলে মার্কেটে ক্রেতা সমাগম কমেছে। বিক্রির পরিমাণও কম। এভাবে অবরোধ চলতে থাকলে দীর্ঘমেয়াদে তাদের ব্যবসা ঝুঁকির মধ্যে পড়বে।

সাইন্সল্যাব মোড়ে প্রিয়াঙ্গন শপিং কমপ্লেক্সের কাপড় ব্যবসায়ী মনিরুল হোসেন জাগো নিউজকে বলেন, ‘প্রায় এক মাস ধরে ব্যবসা হচ্ছে না। আগের মতো ক্রেতা পাই না। কাপড়ের দাম কিছুটা বাড়তি, আবার ক্রেতাও কম। ব্যবসায় ক্ষতি হচ্ছে আমাদের।’

গ্লোব সুপার মার্কেট, ধানমন্ডি হকার্স মার্কেটেরও একই অবস্থা। ক্রেতার অভাবে দোকানে বসে অলস সময় পার করছেন অনেক ব্যবসায়ী। মার্কেটের কাপড় ব্যবসায়ী জয়নাল আবেদীন বলেন, বেচাকেনা তো একেবারেই নেই। বসেই থাকি বেশিরভাগ সময়। অবরোধে ব্যবসার পরিস্থিতি আরও খারাপ। এভাবে যদি চলতে থাকে সামনে আমাদের টিকে থাকা কষ্টকর হয়ে যাবে।’

নিউমার্কেটের ব্যবসায়ী আমিনুর রহমান বলেন, ‘আমাদের ব্যবসা ভালো না। কাস্টমার কম এখন। কর্মচারীর বেতন দেওয়াই কষ্ট। অবরোধ তো চলছেই। আজ (বুধবার) আবার নির্বাচনের তফসিল। ব্যবসার পরিস্থিতি কী হয় সেটাই এখন চিন্তার বিষয়।’

তবে মার্কেটের তুলনায় এই এলাকার ফুটপাতের দোকানগুলোতে কিছুটা ভিড় দেখা গেছে। দামে কিছুটা কম হওয়ায় অনেকেই ফুটপাত থেকে কেনাকাটা করছেন। ফুটপাতের কাপড় ব্যবসায়ী রাকিব বলেন, ‘বেচাকেনা আছে মোটামুটি। অন্যদিন তো অনেক কাস্টমার থাকে। তবে আজ রিলাক্সে বিক্রি করতে পারছি। টুকটাক বিক্রি হচ্ছে।’

এদিকে অবরোধ ঘিরে নিউমার্কেট ও আশপাশের এলাকায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের সতর্ক অবস্থান দেখা গেছে। নাশকতা রোধে গাড়ি নিয়ে পুলিশকে টহল দিতেও দেখা যায়।


   Page 1 of 16
     অর্থ-বাণিজ্য
বাংলাদেশ-কাতারের বাণিজ্য জোরদারে জয়েন্ট বিজনেস কাউন্সিল গঠন
.............................................................................................
ফরচুন বরিশালকে নগদের ২০ লাখ টাকা উপহারের চেক হস্তান্তর
.............................................................................................
তিন বিদায়ী জাপানী বিনিয়োগকারীকে সংবর্ধনা দিলো নোভো কার্গো
.............................................................................................
ভরা মৌসুমে বাড়ছে চালের দাম
.............................................................................................
কোরিয়ান ওয়েভ পুরস্কার পেলেন সৈয়দ মুস্তাফিজুর রহমান
.............................................................................................
প্রবাসী আয়ে বিশ্বে সপ্তম বাংলাদেশ, বেশি আসে যুক্তরাষ্ট্র থেকে
.............................................................................................
প্রথমবারের মতো প্রার্থীর সক্ষমতা যাচাইয়ে সাক্ষাৎকার
.............................................................................................
দাম বেড়েছে ডিম-মুরগির, সবজি স্থিতিশীল
.............................................................................................
আদানি পোর্টফোলিওর প্রথমার্ধে প্রবৃদ্ধি ৪৭ শতাংশ
.............................................................................................
পেঁয়াজের দাম নিয়ন্ত্রণে চট্টগ্রামে অভিযান, ১৬ মামলা
.............................................................................................
সাউথইস্ট ব্যাংকের ৫০০ কোটি টাকার বন্ড অনুমোদন
.............................................................................................
সরবরাহ বাড়লেও কমছে না আলুর দাম
.............................................................................................
এক কোটি কার্ডের সুবিধা পাবে পাঁচ কোটি মানুষ: বাণিজ্যমন্ত্রী
.............................................................................................
দেশে উৎপাদিত লোহা রপ্তানিতে বড় সম্ভাবনা দেখছেন উদ্যোক্তারা
.............................................................................................
শুরুতে সূচক ঊর্ধ্বমুখী, লেনদেনে ভালো গতি
.............................................................................................
অবরোধে ‘প্রায় ফাঁকা’ নিউমার্কেট, চিন্তিত ব্যবসায়ীরা
.............................................................................................
শ্রমিকদের বিক্ষোভের মধ্যেই মজুরি বোর্ডের সভা শুরু
.............................................................................................
শরৎ-উৎসবের আয়োজন করলো নোভো কার্গো সার্ভিসেস
.............................................................................................
পাইকারিতে ডিমের দাম কমেছে, পাড়া-মহল্লায় প্রভাব নেই
.............................................................................................
মুদ্রার বিনিময় হার: ৫ নভেম্বর ২০২৩
.............................................................................................
অবরোধে ফাঁকা মতিঝিল, গ্রাহক নেই ব্যাংক-আর্থিক প্রতিষ্ঠানে
.............................................................................................
হরতাল-অবরোধ-সহিংস কর্মসূচি চায় না এফবিসিসিআই
.............................................................................................
নিউমার্কেট খোলা, ক্রেতা নেই
.............................................................................................
ভিড় নেই ফিলিং স্টেশনে, ক্ষতির মুখে ব্যবসায়ীরা
.............................................................................................
ভারতে পেঁয়াজের রপ্তানি মূল্যবৃদ্ধির খবরে দেশে হু হু করে বাড়ছে
.............................................................................................
নগদকে ডিজিটাল ব্যাংকের অনুমোদনপত্র হস্তান্তর
.............................................................................................
এবারও হচ্ছে না আয়কর মেলা, অফিসে ‘ওয়ানস্টপ’ সেবা
.............................................................................................
বিশ্বকাপ জিতলে সব ক্রিকেটারকে বিএমডব্লিউ দেবে নগদ
.............................................................................................
মাতারবাড়ী বিদ্যুৎ প্রকল্পে ১৫০০ মিলিয়ন ডলার ঋণ দেবে জাপান
.............................................................................................
ভিয়েতনাম এম্বাসেডর নিগুয়েন মান কোয়াংয়ের সম্মানে বিশেষ অনুষ্ঠান
.............................................................................................
ইন্টারকন্টিনেন্টালের সাথে টাইগার গলফ ক্লাবের সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর
.............................................................................................
২৯ কেজি বাগাইড় ৩৪ হাজার ৮০০ টাকায় বিক্রি
.............................................................................................
যেসব এলাকায় আজ ব্যাংক বন্ধ
.............................................................................................
বিশ্ববাজারে অর্ধেকে নেমেছে গমের দাম, সুফল নেই দেশে
.............................................................................................
ঢলের পানিতে নিখোঁজ মায়ের মরদেহ উদ্ধার, সন্ধান মিলেনি দুই শিশুর
.............................................................................................
হঠাৎ চড়া আলুর বাজার
.............................................................................................
হঠাৎ চড়া আলুর বাজার
.............................................................................................
হঠাৎ চড়া আলুর বাজার
.............................................................................................
নিত্যপণ্যে আগুন, দেশে ১২ বছরে সর্বোচ্চ মূল্যস্ফীতি
.............................................................................................
বিদ্যুৎ নিয়ে আশঙ্কার কিছু নেই, আমরা আশাবাদী: প্রতিমন্ত্রী
.............................................................................................
পেঁয়াজের কেজি ১০০ ছুঁই ছুঁই
.............................................................................................
৫ জুনের পর বন্ধ হয়ে যাবে পায়রা বিদ্যুৎকেন্দ্র: বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী
.............................................................................................
৫ জুনের পর বন্ধ হয়ে যাবে পায়রা বিদ্যুৎকেন্দ্র: বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী
.............................................................................................
সপ্তাহ ব্যবধানে কমছে সবজির দাম
.............................................................................................
বাংলাদেশে বিনিয়োগ অব্যাহত রাখবে জাপান
.............................................................................................
ঢাকায় যাদের জমি-ফ্ল্যাট আছে সবাই কালো টাকার মালিক: অর্থমন্ত্রী
.............................................................................................
তেল-মাংস-বেকারি পণ্যের দাম বেড়েছে
.............................................................................................
সবার জন্য ‘পেনশন’ চালু করবে সরকার
.............................................................................................
দাম কমছে যেসব পণ্যের
.............................................................................................
যেসব পণ্যের দাম বাড়ছে
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
চেয়ারম্যান: এস.এইচ. শিবলী ।
সম্পাদক, প্রকাশক: জাকির এইচ. তালুকদার ।
হেড অফিস: ২ আরকে মিশন রোড, ঢাকা ১২০৩ ।
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: বাড়ি নং ২, রোড নং ৩, সাদেক হোসেন খোকা রোড, মতিঝিল বা/এ, ঢাকা ১০০০ ।
ফোন: 01558011275, 02-৪৭১২২৮২৯, ই-মেইল: dtvbanglahr@gmail.com
   All Right Reserved By www.dtvbangla.com Developed By: Dynamic Solution IT Dynamic Scale BD & BD My Shop    
Dynamic SOlution IT Dynamic POS | Super Shop | Dealer Ship | Show Room Software | Trading Software | Inventory Management Software Computer | Mobile | Electronics Item Software Accounts,HR & Payroll Software Hospital | Clinic Management Software Dynamic Scale BD Digital Truck Scale | Platform Scale | Weighing Bridge Scale Digital Load Cell Digital Indicator Digital Score Board Junction Box | Chequer Plate | Girder Digital Scale | Digital Floor Scale