| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
   * পুলিশ-বিএনপি সংঘর্ষে নয়াপল্টন রণক্ষেত্র   * রোকেয়া পদক পাচ্ছেন ৫ বিশিষ্ট নারী   * ২৮ দেশ নিয়ে বঙ্গোপসাগরে হচ্ছে ‘ইন্টারন্যাশনাল ফ্লিট রিভিউ   * পল্টনে সমাবেশের অনুমতি দেওয়া হয়নি: ডিসি মতিঝিল   * যুদ্ধ বন্ধ করে আলোচনায় সমস্যা সমাধান: করুন শেখ হাসিনা   * নগরকান্দায় যৌন হয়রানির শিকার ৫ বছরের শিশু   * নগরকান্দায় নবাগত ইউএনওকে ফুল দিয়ে বরন   * ২৪ ডিসেম্বরের আগেই ছাত্রলীগের কমিটি ঘোষণা   * বোয়ালখালীতে গৃহবধূর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার   * নতুন নেতৃত্ব আসবে, তাদেরকে অভিনন্দন: জয়  

   বিনোদন -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
তিন কন্যার রূপে আচ্ছন্ন করে রাখে ‌পার্বত্য এলাকায় আসা পর্যটকদের

DTV BANGLA NEWS:    পার্বত্য শান্তিচুক্তির ২৫ বছর হতে চলল। ভয় আর আতঙ্ক ছিল যে পাহড়ের পরিচয় তা আজ সমতলের সঙ্গে একইভাবে এগিয়ে চলেছে। অবকাঠামোগত উন্নয়ন, শিক্ষা ও কৃষিতে এসেছে অভূতপূর্ব পরিবর্তন। সহজ যোগাযোগ, বিদ্যুতের আলো আর আধুনিকতার মিশেলে তিন পার্বত্য অঞ্চল যেন সমৃদ্ধি আর উন্নয়নের মডেল। পার্বত্য অঞ্চল সবুজের পাহাড়ে সাদা মেঘের ভেলার দেখা মিলবে। চুলের সিঁথির মতো এঁকেবেঁকে চেলেছে সড়কপথ। তিন কন্যার রূপ যেন আচ্ছন্ন করে রাখে ‌পার্বত্য এলাকায় আসা পর্যটকদের।  তবে আগের অবস্থা এমন ছিল না, খাগড়াছড়ি থেকে সাজেক যেতেই সময় লাগত ৭ দিনের মতো। আর বর্তমানে ২ ঘণ্টার দূরুত্ব। দুর্গম অন্ধকার পাহাড় আলোকিত হওয়ার কথা একসময় যেন ছিল অসম্ভব কল্পনা এখন তা বাস্তব। আর তাইতো হাজারো ফুট উচ্চতার পাহাড়ের টানে ছুটে যান পর্যটকরা। তাদের কাছে আতঙ্কের পাহাড় আজ এক বিনোদনের নাম হয়ে উঠেছে।  ১৯৯৭ সালের ২ ডিসেম্বর, আওয়ামী লীগ সরকার ও জ্যোতিরিন্দ্র বোধিপ্রিয় লারমা ওরফে সন্তু লারমার নেতৃত্বাধীন জনসংহতি সমিতির মধ্যে শান্তিচুক্তি হয়। এরপর পাহাড়ে শুরু হয় উন্নয়নমূলক কাজ। বর্তমানে বিভিন্ন পর্যায়ের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান হয়েছে ১৫৩৭টি। পাড়াকেন্দ্র করেও শিক্ষা ও চিকিৎসায় দেয়া হচ্ছে বিশেষ সুবিধা। চুক্তির আগে সড়ক ছিল ২ হাজার ৮০৩ কিলোমিটার আর বর্তমানে তা দাঁড়িয়েছে ৭ হাজার ৯৪৯ কিলোমিটারে। হাসপাতাল ও ক্লিনিক মিলে ছিল মাত্র ২৪টি আর বর্তমানে ২৭০টি। পড়ে থাকা পাহাড়ি জমিতেও বিপ্লব এসেছে কৃষিতেও। খাগড়াছড়ি-২৫৮ এর সংসদ সদস্য কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা বলেন, যে শান্তিচুক্তি হয়েছিল তার মধ্যে ৪৮টি ধারা তারও অধিক ৬০ থেকে ৭০টার মতো বোধ হয় আমরা বাস্তবায়ন করেছি, যেটা হস্তান্তর হয়েছে। আর যেগুলো হয়নি সেগুলো প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। আর পাহাড়ে ঘুরতে আগতরা জানান, একসময়ের অবহেলিত থাকা রাঙামাটি, খাগড়াছড়ি ও বান্দরবান এখন এক বিস্ময়। উন্নয়ন স্পর্শে তা আজ অপার সম্ভাবনার। 

তিন কন্যার রূপে আচ্ছন্ন করে রাখে ‌পার্বত্য এলাকায় আসা পর্যটকদের
                                  

DTV BANGLA NEWS:    পার্বত্য শান্তিচুক্তির ২৫ বছর হতে চলল। ভয় আর আতঙ্ক ছিল যে পাহড়ের পরিচয় তা আজ সমতলের সঙ্গে একইভাবে এগিয়ে চলেছে। অবকাঠামোগত উন্নয়ন, শিক্ষা ও কৃষিতে এসেছে অভূতপূর্ব পরিবর্তন। সহজ যোগাযোগ, বিদ্যুতের আলো আর আধুনিকতার মিশেলে তিন পার্বত্য অঞ্চল যেন সমৃদ্ধি আর উন্নয়নের মডেল। পার্বত্য অঞ্চল সবুজের পাহাড়ে সাদা মেঘের ভেলার দেখা মিলবে। চুলের সিঁথির মতো এঁকেবেঁকে চেলেছে সড়কপথ। তিন কন্যার রূপ যেন আচ্ছন্ন করে রাখে ‌পার্বত্য এলাকায় আসা পর্যটকদের।  তবে আগের অবস্থা এমন ছিল না, খাগড়াছড়ি থেকে সাজেক যেতেই সময় লাগত ৭ দিনের মতো। আর বর্তমানে ২ ঘণ্টার দূরুত্ব। দুর্গম অন্ধকার পাহাড় আলোকিত হওয়ার কথা একসময় যেন ছিল অসম্ভব কল্পনা এখন তা বাস্তব। আর তাইতো হাজারো ফুট উচ্চতার পাহাড়ের টানে ছুটে যান পর্যটকরা। তাদের কাছে আতঙ্কের পাহাড় আজ এক বিনোদনের নাম হয়ে উঠেছে।  ১৯৯৭ সালের ২ ডিসেম্বর, আওয়ামী লীগ সরকার ও জ্যোতিরিন্দ্র বোধিপ্রিয় লারমা ওরফে সন্তু লারমার নেতৃত্বাধীন জনসংহতি সমিতির মধ্যে শান্তিচুক্তি হয়। এরপর পাহাড়ে শুরু হয় উন্নয়নমূলক কাজ। বর্তমানে বিভিন্ন পর্যায়ের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান হয়েছে ১৫৩৭টি। পাড়াকেন্দ্র করেও শিক্ষা ও চিকিৎসায় দেয়া হচ্ছে বিশেষ সুবিধা। চুক্তির আগে সড়ক ছিল ২ হাজার ৮০৩ কিলোমিটার আর বর্তমানে তা দাঁড়িয়েছে ৭ হাজার ৯৪৯ কিলোমিটারে। হাসপাতাল ও ক্লিনিক মিলে ছিল মাত্র ২৪টি আর বর্তমানে ২৭০টি। পড়ে থাকা পাহাড়ি জমিতেও বিপ্লব এসেছে কৃষিতেও। খাগড়াছড়ি-২৫৮ এর সংসদ সদস্য কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা বলেন, যে শান্তিচুক্তি হয়েছিল তার মধ্যে ৪৮টি ধারা তারও অধিক ৬০ থেকে ৭০টার মতো বোধ হয় আমরা বাস্তবায়ন করেছি, যেটা হস্তান্তর হয়েছে। আর যেগুলো হয়নি সেগুলো প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। আর পাহাড়ে ঘুরতে আগতরা জানান, একসময়ের অবহেলিত থাকা রাঙামাটি, খাগড়াছড়ি ও বান্দরবান এখন এক বিস্ময়। উন্নয়ন স্পর্শে তা আজ অপার সম্ভাবনার। 

অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা শর্মা আর নেই
                                  

 DTV BANGLA NEWS: ভারতের জনপ্রিয় অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা শর্মা আর নেই। ক্যান্সারের সঙ্গে লড়াই করে নিশ্বাস ত্যাগ করেছেন তিনি। ভারতীয় গণমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, আজ (২০ নভেম্বর) দুপুর ১২টা ৫৯ মিনিটে মারা যান ঐন্দ্রিলা। গত ২ নভেম্বর ব্রেন স্ট্রোকে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন ঐন্দ্রিলা। এ খবর দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে তার অনুরাগীদের মাঝে। তবে নতুন করে আশায় বুক বেঁধেছিলেন অনেকে। দুবার ক্যান্সার জয়ী অভিনেত্রী ফের হাসিমুখে ক্যামেরার সামনে দাঁড়িয়ে যেন মানুষের মনে এই বিশ্বাস গেঁথে দিয়েছিলেন- ঐন্দ্রিলাকে এত সহজে ছুঁতে পারবে না মৃত্যু! ক্যান্সারসহ বিভিন্ন ধরনের রোগে ঐন্দ্রিলা দীর্ঘদিন লড়াই করেছেন। হাসপাতালে সার্বক্ষণিক পাশে ছিলেন প্রেমিক অভিনেতা সব্যসাচী চৌধুরী। ঐন্দ্রিলার অবস্থা সংকটজনক দেখেও আশায় বুক বেঁধেছিল পরিবার ও তার প্রেমিক। সেই আশায় ভর করেই সব্যসাচী লিখেছিলেন, ‘নিজের হাতে করে নিয়ে এসেছিলাম, নিজের হাতে ওকে বাড়ি ফিরিয়ে নিয়ে যাব। এর অন্যথা কিছু হবে না।’ কিন্তু ঐন্দ্রিলা পরপারে পাড়ি জমালেন। ঐন্দ্রিলা একাদশ শ্রেণিতে পড়ার সময় ২০১৫ সালের ৫ ফেব্রুয়ারি জন্মদিনের দিনে তার ক্যান্সারের কথা প্রথম জানতে পারেন। তার শরীরে ক্যান্সার দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। তারপরই লড়াই শুরু হয় ঐন্দ্রিলার। তখন তিনি বহরমপুরেই থাকতেন। মেয়েকে নিয়ে দিল্লিতে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যান বাবা-মা। চিকিৎসকরা জানিয়ে দেন ঐন্দ্রিলার হাতে বেশি সময় নেই। এরপর একের পর এক কেমো, ইঞ্জেকশন শুরু হয়। শরীর যেন ক্রমশ কুঁকড়ে যাচ্ছিল। দীর্ঘ লড়াইয়ের পর তবে ২০১৬ সালে সুস্থ হয়ে ওঠেন ঐন্দ্রিলা শর্মা। ২০১৬ থেকে ২০২১- টানা পাঁচ বছর বেশ ভালোই কাটছিল ঐন্দ্রিলা শর্মার। ততদিনে ঐন্দ্রিলার অভিনয় জীবন শুরু গিয়েছে। কিন্তু ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারিতে হঠাৎই ছন্দপতন। আচমকা ডান কাঁধে যন্ত্রণা শুরু হয় ঐন্দ্রিলার। অভিনেত্রী ভেবেছিলেন শোয়ার দোষে হয়তো ব্যথা। তারপর জানা যায়, ডান ফুসফুসে ১৯ সেন্টিমিটারের একটি টিউমার রয়েছে। আবারও শুরু হয় কেমো, সেই যন্ত্রণা। ২০২১ সালের প্রায় গোটা বছরটাই ক্যানসারের সঙ্গে কঠিন যুদ্ধ চালিয়ে ফের জয়ী হন ঐন্দ্রিলা। কাজেও ফেরেন ধীরে ধীরে। কিন্তু ২০২২ সালের ১ নভেম্বর রাতে ফের ছন্দপতন। ব্রেন স্ট্রোকে আক্রান্ত হন তিনি।

কোমায় থাকা ঐন্দ্রিলার জীবনে ঘটল মিরাকল!
                                  

হঠাৎই স্ট্রোক করে হাওড়ার একটি বেসরকারি হাসপাতালে জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে লড়ছেন ভারতীয় টিভি সিরিয়ালের জনপ্রিয় অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা শর্মা। বৃহস্পতিবার (১৭ অক্টোবর) তার শরীর নিথর হয়ে পড়েছিল। তবে শুক্রবার রাতে ঐন্দ্রিলার সঙ্গে ঘটে মিরাকল ঘটনা। ঐন্দ্রিলা শর্মার প্রেমিক সব্যসাচী চৌধুরী তার ফেসবুক পেজে এ বিষয়ে একটি পোস্ট করেন। দীর্ঘ সেই পোস্টে তিনি ঐন্দ্রিলার জন্য মানুষের নিঃস্বার্থ ভালোবাসার জন্য কৃতজ্ঞতা জানান। পোস্টে তিনি লেখেন, ‘বৃহস্পতিবার সকালে ঐন্দ্রিলার কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট হয়, চোখের সামনে দেখলাম ওর হার্টরেট ড্রপ করে চল্লিশের নিচে নেমে তলিয়ে গেল, মনিটরে ব্ল্যাঙ্ক লাইন, কান্নার আওয়াজ, তার মাঝে ডাক্তাররা দৌড়াদৌড়ি করছেন। তিনি আরও লেখেন, ‘নিউরোসার্জন চিকিৎসক ঐন্দ্রিলার এ অবস্থা দেখে বলেন, ও চলে গেছে অনেক আগেই, শুধু শুধু এভাবে আটকে রাখছেন কেন? এমনিতেও কালকের মধ্যে সব থেমেই যাবে। তবুও এক বুক আশা নিয়ে ঐন্দ্রিলার পাশে দাঁড়িয়েছিল সব্যসাচী। হঠাৎ শুক্রবার রাত ৮টায় হার্টরেট এক লাফে ৯১, রক্তচাপ বেড়ে ১৩০/৮০ আর শরীর ক্রমেই গরম হয়ে ওঠে ঐন্দ্রিলার।
এই মুহূর্তে ঐন্দ্রিলা একপ্রকার সাপোর্ট ছাড়াই আছে। এমনকি ভেন্টিলেশন থেকেও বেরিয়ে আসার চেষ্টা করছে। ভক্ত আর শুভাকাঙ্ক্ষীদের ভালোবাসা আর প্রার্থনা যে অনেক সময় অসম্ভবকেও সম্ভব করে তোলে তারই প্রমাণ মিলল ঐন্দ্রিলার ক্ষেত্রে। দুবার দুরারোগ্য ক্যানসারকে হারিয়ে দেয়া এ অভিনেত্রী স্ট্রোককেও হারিয়ে দেবেন–এমন প্রত্যাশাই এখন ঐন্দ্রিলার ভক্তদের।

ঢাকায় এসেও নোরা কেন নাচলেন না?
                                  

বলিউড অভিনেত্রী ও নৃত্যশিল্পী নোরা ফাতেহির ঢাকায় আগমন নিয়ে উচ্ছ্বসিত ছিলেন তার ভক্তরা। নানা জল্পনা আর অনিশ্চয়তা দূর করে শুক্রবার (১৮ নভেম্বর) দুপুরে ঢাকায় পা রাখেন এই বলিউড তারকা। এরপর সন্ধ্যায় রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় উইমেন লিডারশিপ করপোরেশনের আয়োজনে ‘উইমেন এমপাওয়ারমেন্ট ইন বাংলাদেশ’ শীর্ষক আয়োজনে অংশ নেন তিনি। তবে মঞ্চে উঠলেও নাচের কোনো পরিবেশনায় অংশ নেননি তিনি। দর্শকরা যখন ‘নোরা নোরা’ বলে চিৎকার করেছিলেন, তখন নাচের ছন্দে এসেই থেমে যান তিনি। এতে হতাশ হন তার ভক্তরা, যা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমসহ সব জায়গায় চলছে সমালোচনা। নির্ধারিত প্রবেশমূল্যের বিনিময়ে বলিউড তারকাকে দেখার সুযোগ করে দিয়েছিল আয়োজক প্রতিষ্ঠান উইমেন লিডারশিপ করপোরেশন। অনুষ্ঠানের জন্য তিন ধরনের টিকিটমূল্য ধার্য করা হয়েছিল। এর মধ্যে ভিআইপি ১০ হাজার টাকা, গোল্ড ৫হাজার ও সিলভার ৩ হাজার টাকা। মঞ্চে এসেও কেন নাচলেন না নোরা –এমন প্রশ্ন ছিল অনেক দর্শকের মনেই। এ প্রসঙ্গে উইমেন লিডারশিপ করপোরেশনের প্রধান ইশরাত জাহান মারিয়া সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘সরকারি প্রজ্ঞাপনে নোরার পারফর্ম করার পারমিশন ছিল না। আমরা আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তা ছাড়া তিনি সাত ঘণ্টা জার্নি করে এসেছেন। অনেক ক্লান্ত ছিলেন। এ অবস্থায় আমাদেরও তাকে কিছু বলার ছিল না। এদিকে শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় অনুষ্ঠান শুরুর কথা থাকলেও আনুষ্ঠানিকতা শুরু হতে কিছুটা দেরি হয়। ‘জয় বাংলা বাংলার জয়’ গানের সঙ্গে দলীয় নৃত্যের মাধ্যমে শুরু হয় অনুষ্ঠান। এরপর শুরু হয় অ্যাওয়ার্ড প্রদান। এরই ফাঁকে একটি বিশেষ ফ্যাশন শো নিয়ে মঞ্চে আসেন একঝাঁক মডেল। শো স্টপার হিসেবে ফ্যাশন শো-র সমাপ্তি টানেন চিত্রনায়িকা পূজা চেরি ও সাবিলা নূর। এরপর বক্তব্য দেন সাবেক সেনাপ্রধান আজিজ আহমেদ। অনুষ্ঠানস্থলে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে নেয়া হয় বাড়তি নিরাপত্তা। পুলিশ, এলিট ফোর্সের উপস্থিতিতে আগত দর্শকদের বিশেষ চেকিং দিয়ে প্রবেশ করতে দেয়া হয়। শনিবার (১৯ নভেম্বর) ভোরে কাতারের উদ্দেশে ঢাকা ছাড়েন নোরা ফাতেহি। সেখানে অংশ নেবেন ফুটবল বিশ্বকাপের আয়োজনে।

ভারতীয় কৌতুক অভিনেতা রাজু শ্রীবাস্তব মারা গেছেন
                                  

ভারতের জনপ্রিয় কৌতুক অভিনেতা রাজু শ্রীবাস্তব মারা গেছেন। বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর) সকালে দিল্লির এইমস হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। তার বয়স হয়েছিল ৫৮ বছর। এ অভিনেতার পরিবারের সদস্যদের বরাত দিয়ে ভারতীয় সংবাদ সংস্থা এএনআইয়ের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে। পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন, গত ১০ আগস্ট জিম করার সময় হঠাৎ হৃদরোগে আক্রান্ত হন রাজু। তখনই তাকে দিল্লির এইমস হাসপাতাল ভর্তি করা হয়। এরপর থেকেই সেখানেই চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি। তাকে ভেন্টিলেশনে রাখা হয়েছিল। বুধবার সকালে চিকিৎসকেরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ১৯৮০ সাল থেকে বিনোদন জগতে কাজ করা রাজু শ্রীবাস্তব স্ট্যান্ড কমেডি ছাড়াও একাধিক হিন্দি ছবিতে কমেডি চরিত্রে অভিনয় করেছেন। এরমধ্যে ‘ম্যানে পেয়ার কিয়া’, ‘বম্বে টু গোয়া’, ‘আমদানি আঠানি খরচা রূপাইয়া’, ‘বাজিগর’ ও ‘ম্যানে প্রেম কি দিওয়ানি হো’ উল্লেখযোগ্য। এদিকে খ্যাতিমান এ কৌতুক অভিনেতার মৃত্যুর খবরে ভারতীয় বিনোদন অঙ্গনে শোকের ছায়া নেমেছে।

আপাতত ঢাকায় আসছেন না নোরা ফাতেহি
                                  

আপাতত ঢাকায় আসছেন না বলিউডের নৃত্যশিল্পী নোরা ফাতেহি। সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় অনুমতি না দেওয়ায় তার আসা স্থগিত করা হয়েছে। ডিসেম্বরে ঢাকায় একটি পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়ার কথা ছিল এ নৃত্যশিল্পীর। সোমবার (৫ সেপ্টেম্বর) গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন অনুষ্ঠানটির আয়োজক শাহজাহান ভূঁইয়া। তিনি বলেন, ডলার সংকটের কারণে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় বাইরের শিল্পীকে আনার অনুমতি বন্ধ রেখেছে। অনুমতি চালু হলে হয়তো নোরা ফাতেহি জানুয়ারির দিকে আসতে পারেন। ‘ডান্স মেরি রানি’, ‘দিলবার’, ‘সাকি সাকি’ গানে নেচে ঝড় তোলেন নোরা ফাতেহি। বর্তমানে বলিউডের সেরা নারী নৃত্যশিল্পীদের একজন এ আইটেম গানের শিল্পী। শুধু বলিউড নয় তেলেগু, মালয়ালম ও তামিল ছবির গানেও তার উপস্থিতি সরব। মরক্কীয় বংশোদ্ভূত নোরার জন্ম ও বেড়ে ওঠা কানাডায়।

অভিনেতা আনিসুর রহমান মিলনের স্ত্রী মারা গেছেন
                                  

অভিনেতা আনিসুর রহমান মিলনের স্ত্রী পলি আহমেদ ক্যানসারে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। যুক্তরাষ্ট্রের সময় রোববার (৪ সেপ্টেম্বর) সকাল ১১টা ৫৭ মিনেটে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। আনিসুর রহমান মিলন নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে এক স্ট্যাটাসে স্ত্রীর মৃত্যুর খবর জানিয়েছেন। ফেসবুক পেজে তিনি লিখেন, আমার স্ত্রী পলি আহমেদ আজ সকালে ১১ টা ৫৭ মিনিটে ক্যালিফোর্নিয়ার একটি হাসপাতালে ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। শোকপ্রকাশ করে অভিনেতা ও অভিনয় শিল্পী সংঘের সাধারণ সম্পাদক রওনক হাসান বলেন, আমাদের সবার প্রিয় অভিনয়শিল্পী, অভিনয়শিল্পী সংঘ বাংলাদেশের সহ-সভাপতি আনিসুর রহমান মিলনের স্ত্রী পলি আহমেদ না ফেরার দেশে চলে গেলেন। তার আত্মার শান্তি কামনা করছি। তিনি দীর্ঘদিন ধরে কর্কট রোগে ভুগছিলেন।

গাজী মাজহারুলের মৃত্যুর খবরে হাসপাতালে ছুটে গেলেন শাকিব খান
                                  

কিংবদন্তি গীতিকার ও চলচ্চিত্র প্রযোজক গাজী মাজহারুল আনোয়ার আজ সকাল ৭টা ৫৫ মিনিটে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। তার মৃত্যু শোক নেমেছে দেশের সংস্কৃতি অঙ্গণে। চলচ্চিত্র, সংগীতসহ শোবিজ অঙ্গণের ব্যক্তিত্বরা শোক জানাচ্ছেন। অনেকেই ছুটে আসছেন গাজী মাজহারুল আনোয়ারে বাসা ও ইউনাইটেড হাসপাতালে। শেষবারের মতো দেখছেন প্রিয় মানুষটির মুখ। গাজী মাজহারুলের মৃত্যুতে শোকাহত ঢালিউড কিং শাকিব খানও। মৃত্যুর খবর শুনে হাসপাতালে ছুটে আসনে শাকিব। দুপুর ১২টার দিকে তিনি সেখানে যান। এসময় তিনি মৃতের পরিবারের সঙ্গে কথা বলেন। তাদের সান্ত্বনা ও সহমর্মিতা দেন। ১৯৪৩ সালের ২২ ফেব্রুয়ারি কুমিল্লার দাউদকান্দি থানার তালেশ্বর গ্রামে জন্ম গাজী মাজহারুলের। ১৯৬৪ সালে ২১ বছর বয়সে রেডিও পাকিস্তানে গান লেখা শুরু করেন তিনি। পাশাপাশি তিনি বাংলাদেশ টেলিভিশনের জন্মলগ্ন থেকেই নিয়মিত গান ও নাটক রচনা করেন। গাজী মাজহারুল আনোয়ার প্রথম চলচ্চিত্রের জন্য গান লেখেন ১৯৬৭ সালে। ওই চলচ্চিত্রের নাম ছিল ‘আয়না ও অবশিষ্ট’। ১৯৬৭ সালে চলচ্চিত্রের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার পর থেকে কাহিনী, চিত্রনাট্য, সংলাপ ও গান লেখাতেও দক্ষতা দেখান তিনি। তার পরিচালিত প্রথম চলচ্চিত্র ‘নান্টু ঘটক’ মুক্তি পায় ১৯৮২ সালে। তিনি মোট ৪১টি চলচ্চিত্র পরিচালনা করেছেন। গাজী মাজহারুলের পরিচালিত চলচ্চিত্রগুলোর মধ্যে অন্যতম- ‘শাস্তি’, ‘চোর’, ‘শর্ত’, ‘স্বাধীন’, ‘সমর’, ‘রাগী’, ‘আর্তনাদ’, ‘জীবনের গল্প’, ‘পাষানের প্রেম’, ‘তপস্যা’, ‘ক্ষুধা’, ‘পরাধীন’, ‘এই যে দুনিয়া’, ‘হৃদয় ভাঙ্গা ঢেউ’। অসংখ্য কালজয়ী গানের রচয়িতা গাজী মাজহারুল আনোয়ার। দীর্ঘ কর্মজীবনে তিনি অসংখ্য শ্রোতাপ্রিয় গান লিখেছেন। ২০ হাজারেরও বেশি গানের রচয়িতা তিনি। ‘জয় বাংলা, বাংলার জয়’ ও ‘আছেন আমার মোক্তার আছেন আমার ব্যারিস্টার’ তার লেখা তুমুল জনপ্রিয় দুটি গান। বিবিসি বাংলার জরিপে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ ২০টি বাংলা গানের তালিকায় স্থান পেয়েছে তার লেখা তিনটি গান।

জাতীয় কবি কাজী নজরুলের মৃত্যুবার্ষিকী শনিবার
                                  

জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ৪৬তম মৃত্যুবার্ষিকী শনিবার (২৭ আগস্ট)। ১৯৭৬ সালের এ দিনে শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে (সাবেক পিজি হাসপাতাল) শেষনিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) কেন্দ্রীয় মসজিদের পাশে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় কবিকে সমাহিত করা হয়। চলে যাওয়ার এ দিনে আজ (শনিবার) কবিকে নানা আয়োজনে স্মরণ করবে দেশের শিল্পী-সাহিত্যিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনগুলো। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে-ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় মসজিদ সংলগ্ন কবির সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ, ফাতেহা পাঠ, দোয়া মাহফিল, আলোচনাসভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। কবি নজরুল ইনস্টিটিউট এ উপলক্ষে বিকেল সাড়ে ৫টায় ধানমন্ডির রবীন্দ্র সরোবরে আলোচনা সভা এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে। বাংলাদেশ বেতার, টেলিভিশন ও বিভিন্ন বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল কবির মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে বিশেষ অনুষ্ঠানমালা প্রচারের উদ্যোগ নিয়েছে। পরাধীন ভারতভূমে পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমান জেলার চুরুলিয়া গ্রামে ১৩০৬ বঙ্গাব্দের ১১ জ্যৈষ্ঠ (২৪ মে, ১৮৯৯ খ্রিষ্টাব্দ) জন্মগ্রহণ করেন স্বাধীনতাকামী এ কবি। ছোটবেলায় তার ডাকনাম ছিল ‘দুখু মিয়া’। পিতার নাম কাজী ফকির আহমেদ ও মাতা জাহেদা খাতুন। নজরুল বাংলা ভাষা সাহিত্য অনুরাগীদের কাছে বিদ্রোহী কবি হিসেবে পরিচিত হলেও তিনি কবিতা, সংগীত, উপন্যাস, গল্প, নাটক, প্রবন্ধ, চলচ্চিত্রে নিজস্ব স্বাক্ষর রেখেছেন। ছিলেন সাংবাদিক, গায়ক এবং অভিনেতাও। সংগীতে তার অজস্র রাগ-রাগিনী অমরত্বের আসনে অধিষ্ঠিত হয়ে আছে। প্রেম, দ্রোহ, সাম্যবাদ ও জাগরণের কবি কাজী নজরুল ইসলামের কবিতা ও গান শোষণ ও বঞ্চনার বিরুদ্ধে সংগ্রামে জাতিকে উদ্বুদ্ধ করেছে। মুক্তিযুদ্ধে তার গান ও কবিতা ছিল প্রেরণার উৎস। নজরুলের কবিতা, গান ও সাহিত্য কর্ম বাংলা সাহিত্যে নবজাগরণ সৃষ্টি করেছিল। তিনি ছিলেন অসাম্প্রদায়িক চেতনার পথিকৃৎ লেখক। তার লেখনি জাতীয় জীবনে অসাম্প্রদায়িক চেতনা বিকাশে ব্যাপক ভূমিকা পালন করে। তার কবিতা ও গান মানুষকে যুগে যুগে শোষণ ও বঞ্চনা থেকে মুক্তির পথ দেখিয়ে চলছে। বাংলাদেশ রাষ্ট্রের জন্মের পর ১৯৭২ সালের ২৪ মে স্বাধীন বাংলাদেশের তৎকালীন রাষ্ট্রপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের উদ্যোগে ভারত সরকারের অনুমতি নিয়ে কবি নজরুলকে সপরিবারে ঢাকায় নিয়ে আসা হয়। তাকে দেওয়া হয় জাতীয় কবির মর্যাদা। বাংলা সাহিত্য ও সংস্কৃতিতে অবদানের জন্য ১৯৭৪ সালের ৯ ডিসেম্বর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এক বিশেষ সমাবর্তনে কবিকে সম্মানসূচক ডি-লিট ডিগ্রি দেয়। একই বছরের ২১ ফেব্রুয়ারি একুশে পদকে ভূষিত হন কবি। কবির ৪৬তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে ঢাবিসহ দেশের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনগুলো নানা অনুষ্ঠান আয়োজনের মধ্য দিয়ে এ দিনে কবিকে স্মরণ করবে।

‘কথাটা এভাবে বোঝাতে চাইনি, কথার প্রেক্ষিতে বলেছি’
                                  

‘কথাটা এভাবে বোঝাতে চাইনি। সন্তানকে নিয়ে আমার যুদ্ধ, পথচলা সব আপনারা দেখেছেন। এ বিষয়ে সবাই জানেন। কথার প্রেক্ষিতে বলেছি, খুব অল্প বয়সে বিয়ে করেছি, বাচ্চা নিয়েছি। হয়তো হুটহাট এই সিদ্ধান্তগুলো ভুল ছিল। স্পেসিফিক আমার সন্তানের জন্য কখনও কোনো ভুল নেই। তার জন্য শুধু ক্যারিয়ার কেন, সবকিছুই সেক্রিফাইজ করতে রাজি আছি। ’ সামাজিকমাধ্যম ফেসবুকে এক ভিডিও বার্তায় কথাগুলো বলেছেন ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় নায়িকা অপু বিশ্বাস। আগামী ১৬ সেপ্টেম্বর মুক্তি পাচ্ছে তার অভিনীত প্রথম কলকাতার সিনেমা ‘আজকের শর্টকাট। ’ সিনেমাটির প্রচারণায় এখন কলকাতায় আছেন এই নায়িকা। সেখানকার সংবাদমাধ্যমের এক সাক্ষাৎকারে অপুকে জিজ্ঞেস করা হয়, ‘জীবনে কোন ঘটনাটি না ঘটলে খুশি হতেন?’ জবাবে নায়িকা বলেন, ‘শাকিব খানের সঙ্গে বিয়ে। এটা যদি সময় নিয়ে করতাম, বুঝে করতাম তাহলে ভালো হতো। বিয়ে, বাচ্চা- সবটাই তাড়াতাড়ি করে ফেলেছি। ‘জীবনের কোন ঘটনায় খুশি হয়েছেন?’ বিপরীতমুখী এ প্রশ্নের জবাবে অপু বিশ্বাস বলেন, ‘মা হওয়াটা। ভুল করে হলেও মা হয়েছি। তবে অপু বিশ্বাসের সেই সাক্ষাৎকারের অংশবিশেষ দেশীয় কিছু গণমাধ্যমে ভিন্ন উপস্থাপনে খবর প্রকাশ হওয়ায় কষ্ট পেয়েছেন এ নায়িকা। বিষয়টি নিয়েই ভিডিওবার্তায় কথাগুলো বলেন অপু। সেখানে তিনি আরো বলেন, ‘আমার ভীষণ কষ্ট লাগছে। আপনারা সবাই আমার কাছের মানুষ। আমার চেয়ে বেশি ভালোবাসবেন আমার সন্তানকে। সেখানে স্পেসিফিক আমার কথাটা না বুঝে, ইমোশন না বুঝে এভাবে না লিখলেও হতো। অপুর মতে, ‘আমি মনে করি, আমার ক্যারিয়ারের পেছনে আপনাদেরও (গণমাধ্যম) অনেক সাপোর্ট আছে। আপনাদের কারণেই আমার সন্তান আজ সবার কাছে এতো প্রিয়, এতো ভালোবাসার। আসলে আমি হয়তো বুঝাতে পারিনি। হতে পারে আমার বলাটা আপনাদের কাছে অন্যভাবে গিয়েছে বলেই আপনারা লিখেছেন। অনুরোধ করবো, যারা যারা লিখেছেন, অবশ্যই সংশোধন করে নিবেন। সন্তানের ঊর্ধ্বে কিছুই নয় উল্লেখ করে অপু বলেন, ‘আমার সন্তানের ঊর্ধ্বে কিছুই নয়। আমার পৃথিবী, আমার জীবন- সবকিছু মিলে আমার ছেলে আব্রাম খান জয়। তার জন্য আমার যত সেক্রিফাইজ করতে হবে, শতভাগ করবো। সে আমার সবকিছু। তার জন্য আমি যুদ্ধ করে এসেছি, করছি, প্রয়োজনে ভবিষ্যতেও করবো। সবাই আমার এবং সন্তানের জন্য দোয়া, আশীর্বাদ রাখবেন। ভালো থাকবেন, সুন্দর থাকবেন। প্রসঙ্গত, কণ্ঠশিল্পী নচিকেতার লেখা গল্পে ‘আজকের শর্টকাট’ সিনেমাটি নির্মাণ করেছেন সুবীর মণ্ডল। এতে অপু বিশ্বাসের বিপরীতে আছেন গৌরব চক্রবর্তী। এছাড়াও সিনেমাটির বিভিন্ন চরিত্রে পরমব্রত চ্যাটার্জি, সুমন্ত মুখার্জি, চন্দন সেন, শঙ্কর দেবনাথ, রাজশ্রী ভৌমিক, বিশ্বনাথ বসুকে দেখা যাবে।

অবশেষে মেয়ের বিয়ের সুখবর দিলেন সুনীল শেঠি
                                  

সুখবর দিলেন বলিউড জনপ্রিয় অভিনেতা সুনীল শেঠি। জানালেন মেয়ে আথিয়া শেঠির বিয়ের খবর। ক্রিকেটার কেএল রাহুলের সঙ্গে প্রেমে মজেছিলেন সুনীল কন্যা। বিয়ের আগে থেকেই মুম্বাইয়ের বান্দ্রায় একটি বিলাসবহুল অ্যাপার্টমেন্টে থাকছেন তারা। তবে ভক্তরা তাদের প্রিয় জুটিকে বিয়ের পিঁড়িতে দেখার আশায় রয়েছেন। সম্প্রতি ইটাইমসে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে সুনীল বলেন, রাহুল ও আথিয়া দুজনেই তাদের বিয়ে নিয়ে ভাবছেন। তবে বিয়ে একদিনেই হয় না। তার জন্য সময় ও প্রস্তুতির প্রয়োজন। কিন্তু রাহুলের একাধিক সফর রয়েছে। এশিয়া কাপ, বিশ্বকাপ, দক্ষিণ আফ্রিকা সফর, অস্ট্রেলিয়া সফর। বাচ্চারা ছুটি পেলেই বিয়ে হবে। তাই বিয়ে করার জন্য দরকার লম্বা ছুটি। তিনি আরও বলেন, ম্যাচের মধ্যে মাত্র দুই দিনের বিরতিতে বিয়ে করা সম্ভব না। সময় হলেই বিয়ের পরিকল্পনা করা হবে। ২০২১ সালে অহন শেঠির প্রথম সিনেমা ‘তারাব’ এর প্রিমিয়ারে রাহুলের সঙ্গে সম্পর্ক প্রকাশ্যে এনেছিল আথিয়া। এর আগে ইটাইমস নিশ্চিত করেছিল যে তাদের বিয়ে সম্ভবত ২০২৩ সালের প্রথম দিকে হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

বিমানবন্দরে একই দিনে শাকিব অপু!
                                  

দীর্ঘ নয় মাস যুক্তরাষ্ট্রে থাকার পর বুধবার (১৭ আগস্ট) দুপুরে ঢাকায় এসে পৌঁছেছেন ঢালিউড কিং সুপারস্টার শাকিব খান। শাকিবকে একনজর দেখার জন্য এ সময় বিমানবন্দরে শতাধিক ভক্ত অপেক্ষা করছিরেন। এই ভক্তের তালিকায় কি ছিল অপু বিশ্বাসের নামও? বিমানবন্দরে যখন সব ভক্ত নায়কের আসার প্রহর গুনছেন, ঠিক সেই সময় বিমানবন্দরে দেখা যায় শাকিব খানের সাবেক স্ত্রী চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাসকেও। ভক্তদের অনেকেই ভেবেছিলেন শাকিব খানকে বরণ করতেই হয়তো নায়িকার আগমন। তবে ঘটনা ছিল একেবারেই ভিন্ন। শাকিব খানের দেশে আসার দিনে দেশ ছেড়ে কলকাতায় গেলেন  ঢালিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী অপু বিশ্বাস। তার অভিনীত কলকাতার প্রথম নতুন ছবি ‘আজকের শর্টকাট’ সিনেমাটি কলকাতায় মুক্তি পাচ্ছে। সে ছবির প্রচারণায় অংশ নিতেই কলকাতার উদ্দেশে ঢাকা ছাড়েন তিনি। ছবিটি নিয়ে বেশ আশা প্রকাশ করেছেন এ নায়িকা। কারণ হিসেবে তিনি বলেন, কলকাতার জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী নচিকেতার লেখা গল্প নিয়ে নির্মিত হয়েছে ছবিটি। সুবীর মণ্ডলের পরিচালনায় ছবিতে অপু বিশ্বাসের বিপরীতে অভিনয় করতে দেখা যাবে গৌরব চক্রবর্তীকে। এ ছাড়াও ছবিতে দর্শক দেখতে পাবেন পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়, সুমন্ত মুখোপাধ্যায়, চন্দন সেন, শঙ্কর দেবনাথ, রাজশ্রী ভৌমিক, বিশ্বনাথ বসুর মতো জনপ্রিয় তারকাদের। এদিকে শাকিব-অপুর একমাত্র ছেলে জয় মায়ের অনুপস্থিতিতে বাবা শাকিবের কাছেই থাকবে বলে সিদ্ধান্ত হয়েছে। অপু বিশ্বাস জানান, ছবিটির প্রচারণা শেষ করে আগামী ২৫ আগস্ট দেশে ফিরবেন তিনি।

খুলনার সিনেমা হলে দর্শকের জোয়ার!
                                  

খুলনা: রৌদ্রোজ্জ্বল শ্রাবণের আকাশ। প্রচণ্ড রোদের তাপদাহে ঘেমে নেয়ে একাকার। কেউ এসেছেন সিনেমা দেখতে, কেউ আবার অগ্রীম টিকিট কাটতে। কাউন্টারের সামনে টিকিট নিয়ে উচ্ছ্বসিত কেউ কেউ। দর্শকদের উপচেপড়া ভিড়। লাইন ধরে হলে প্রবেশ করছেন তারা। বলতে গেলে দর্শকদের বাঁধভাঙা জোয়ার। বৃহস্পতিবার (৪আগস্ট) সকাল সাড়ে ১১টায় প্রথম শোতে‘হাওয়া ’ সিনেমা দেখতে আগে আগেই চলে এসেছেন অনেকে। খুলনার লিবার্টি সিনেমা হলের এমন দৃশ্য দেখা গেছে। সিনেমা হলের টিকিট বিক্রেতারা বলেন, হাওয়া সিনেমা নিয়ে চলচ্চিত্রপ্রেমীরা মাঝে উন্মাদনা দেখা দিয়েছে। সিনেমার পোস্টার, ট্রেলার ও গান প্রকাশের পর সেগুলো লুফে নিয়েছেন সবাই। ২৯ জুলাই ছবি মুক্তি পাওয়ার পর থেকে ভিড় লেগে আছে। এতে প্রাণ ফিরে পেয়েছে সিনেমা হলে। লিবার্টি হলে হাওয়া সিনেমা দেখতে আসা জবঘরের প্রতিষ্ঠাতা ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক পলাশ চন্দ্র রায় বাংলানিউজকে বলেন, জেলেরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে, ঝড়-তুফান ও বৈরী আবহাওয়া উপেক্ষা করে সমুদ্রে মাছ ধরেন। জেলেদের সেই সংগ্রামী জীবনের চিত্র তুলে ধরা হয়েছে হাওয়া সিনেমায়। জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী অভিনীত কোনো সিনেমা মুক্তি পাওয়া মানেই একটা অন্যরকম উন্মাদনা কাজ করে। হাওয়া সিনেমাটি মুক্তির পূর্বেই দেশজুড়ে আলোড়ন সৃষ্টি করেছে। সিনেমাটি দেখার জন্য অপেক্ষায় ছিলাম। কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা হাওয়া সিনেমা দেখার টিকিট পাচ্ছিলেন না। যে কারণে আমরা আমাদের প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০০ শিক্ষার্থীকে টিকিট উপহার দিয়ে একসঙ্গে লিবার্টি সিনেমা হলে ছবিটি দেখানোর ব্যবস্থা করেছি। সিনেমা দেখতে আসা সরকারি বিএল কলেজের শিক্ষার্থী নাদিয়া ইসলাম বলেন, সিনেমার গান সাদা সাদা কালা কালা মুক্তির পরই ঝড় তোলে। রাতারাতি পরিণত হয় গণমানুষের গানে। এ সিনেমার টিকিট পাওয়া খুবই কষ্টকর। অনেক কষ্টে টিকিট পেয়েছি। সিনেমাটি আজ দেখতে এলাম। খুব ভালো লাগছে।
খুলনার ১৩টি হলের মধ্যে চারটিতে সিনেমা চলছে। এগুলো হলো, শঙ্খ সিনেমা হল, সঙ্গীতা সিনেমা হল , লিবার্টি সিনেপ্লেক্স ও চিত্রালী ডিজিটাল সিনেমা হল। হাওয়া সিনেমা চলছে শঙ্খ সিনেমা হলেও। সেখানে স্বামী-স্ত্রী, ভাই-বোন এমনকি পরিবারের অন্যরা এবং বন্ধু-বান্ধব মিলে সবাই একসঙ্গে সিনেমা দেখতে ভিড় করছেন। চিত্রালী ডিজিটাল সিনেমাহলে চলছে পরাণ সিনেমাটি। সেখানে দর্শকদের উপচে পড়া ভিড়। হল মালিকরা বলছেন, বাংলা সিনেমার দর্শক যে এখনো ফুরিয়ে যায়নি, সেটা আবারও প্রমাণ হলো। এভাবে দর্শকদের ভালো সিনেমা উপহার দিতে পারলে তারা অবশ্যই সিনেমা হলে নিয়মিত আসবেন। তাই এখন ভালো সিনেমা বানানোর বিকল্প নেই। শঙ্খ সিনেমাহলের কর্মকর্তা রেজাউল করিম বলেন, হাওয়া সিনেমা দেখতে দর্শকের উপচে পড়া ভিড় লেগে আছে। দীর্ঘদিন পর হলে দর্শকরা খরা কেটেছে। চিত্রালী ডিজিটাল সিনেমা হলের পরিচালক তপু খান বাংলানিউজকে বলেন, খুলনায় শুধুমাত্র আমাদের সিনেমা হলেই চলবে পরাণ ছায়াছবি। তিনি জানান, প্রতিদিন আমাদের তিনটি শো প্রদর্শিত হয় সকাল ১১ টা, দুপুর ৩ টা ও সন্ধ্যা ৬ টায়।

বিবাহবার্ষিকীতে মৌসুমীকে নিয়ে ওমর সানির প্রত্যাশা
                                  

ঢাকাই সিনেমার তারকা দম্পতি ওমর সানি ও মৌসুমী। তারা বিয়ে করেছিলেন ১৯৯৫ সালের ৪ মার্চ। তবে তখন বিয়ের খবরটি কাউকে জানাননি তারা। বিয়ের পাঁচ মাস পর ২ আগস্ট বিবাহোত্তর সংবর্ধনার আয়োজন করেছিলেন দুজন। সে হিসেবে আজ ২ আগস্ট তাদের ২৭তম বিবাহবার্ষিকী। বিবাহবার্ষিকী উপলক্ষে সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকে একটি পোস্ট করেছেন ওমর সানি। তিনি লিখেছেন, ‘আল্লাহ একসাথে থাকার তৌফিক দান করুন বাকি জীবন, শুভ বিবাহ বার্ষিকী মৌসুমী। ১৯৯৪ সালে পরিচালক দিলিপ সোম মৌসুমী-ওমর সানিকে নিয়ে নির্মাণ করেন ‘দোলা’ নামের সিনেমা। এটি দিয়েই একসঙ্গে পথচলা শুরু এ জুটির। এরপর বহু হিট সিনেমা উপহার দিয়েছেন তারা। মৌসুমী-ওমর সানি জুটির উল্লেখযোগ্য সিনেমাগুলো হলো- ‘আত্ম অহংকার, ‘প্রথম প্রেম’, ‘মুক্তির সংগ্রাম’, ‘হারানো প্রেম’, ‘গরিবের রানী’, ‘প্রিয় তুমি’, ‘সুখের স্বর্গ’, ‘মিথ্যা অহংকার’, ‘ঘাত প্রতিঘাত’, ‘লজ্জা’, ‘কথা দাও’ ও ‘সাহেব নামে গোলাম’। এক সময় তারা পর্দার রসায়ন থেকে বাস্তবের রসায়নে জড়িয়ে পড়েন। তাদের প্রেমের পূর্ণতা পায় বিয়েতে। তাদের সংসার আলোকিত করে রেখেছে দুই সন্তান ফারদিন এহসান স্বাধীন ও ফাইজা। গত বছর সানী-মৌসুমীর পুত্র স্বাধীন কানাডা প্রবাসী কুমিল্লার মেয়ে সাদিয়া রহমান আয়েশাকে বিয়ে করেন। সব মিলিয়ে বেশ সুখেই আছেন এই তারকা দম্পতি।

 

সালমান খানের পর ক্যাটরিনাকে হত্যার হুমকি, থানায় মামলা
                                  

সালমান খানের পর এবার ক্যাটরিনা কাইফ ও ভিকি কৌশলকে প্রাণনাশের হুমকির অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন বলিউডের এ তারকা দম্পতি। আতঙ্কে ক্যাটরিনা ও ভিকি মুম্বাই পুলিশের দ্বারস্থ হয়েছেন। সান্তাক্রুজ থানায় এ ঘটনায় মামলাও করেছেন তারা। পুলিশ মামলার তদন্তে নেমে হুমকি দেওয়া যুবককে চিহ্নিত করে গ্রেফতার করেছে। তবে তার নাম-পরিচয় এখনো জানা যায়নি। ক্যাটরিনা ও ভিকির অভিযোগ, নাম-পরিচয় গোপন রেখে এক ব্যক্তি ক্যাটরিনাকে ইনস্টাগ্রামে পর্যবেক্ষণ করছিলেন। তিনিই এ দম্পতিকে প্রাণনাশের হুমকি দিয়েছেন। ঠিক কী ধরনের হুমকি দেওয়া হয়েছে, তা জানা না গেলেও ভিকি-ক্যাটের জীবনে যে তা প্রভাব ফেলেছে সেটা স্পষ্ট। সম্প্রতি জন্মদিন উদযাপনে সপরিবারে মালদ্বীপ যান ক্যাটরিনা কাইফ ও ভিকি কৌশল। সেখানে গিয়েও তাদের ভয় তাড়া করে ফিরছিল বলে জানিয়েছেন এ দম্পতির ঘনিষ্ঠসূত্র। এদিকে, হত্যার হুমকি পাওয়ার পর আতঙ্কে কিছুদিন আগে নিজের কাছে পিস্তল রাখার অনুমতি চেয়েছেন সালমান খান। সেই একই ভয় এখন ছায়া ফেললো ভিকি-ক্যাটের জীবনেও। পঞ্জাবের গায়ক সিধু মুসে ওয়ালা হত্যাকাণ্ডের পর একের পর এক হুমকি পাচ্ছেন বলিউড তারকারা। সার্বিক বিষয় খতিয়ে দেখছে ভারতের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

স্বামীর সঙ্গে হজে গিয়ে স্বপ্নপূরণ সানার
                                  

বলিউডে দীর্ঘ ১৫ বছরের সাজানো ক্যারিয়ার থেকে বিদায় নিয়ে সানা খান কারণ হিসেবে সে সময় জানিয়েছিলেন ইসলামের পথে চলতে চান তিনি। এ খবর জানানোর মাস না গড়াতেই ভারতের গুজরাটের সুরাটের হীরা ব্যবসায়ী মুফতি আনাস সায়েদের সঙ্গে বিয়ের পিড়িতে বসেন সানা। বলিউডের সাবেক অভিনেত্রী সানা খান স্বামী সাইয়াদ আনাসের সঙ্গে হজে গেছেন। ইনস্টাগ্রামে তার হজ পালন করতে যাওয়ার বিষয়টি জানিয়েছেন সানা নিজেই।
পবিত্র হজ পালনের উদ্দেশ্যে বর্তমানে মক্কায় অবস্থান করছেন সানা। ইনস্টাগ্রামে বেশ কয়েকটি ভিডিও ও ছবি প্রকাশ করে জানিয়েছেন, তার বহু দিনের স্বপ্ন পূরণ হয়েছে। প্রকাশ্যে আলিয়ার ‘ডার্লিংস’ টিজার, ২০০৫ সালে ‘ইয়ে হ্যায় হাই সোসাইটি’ সিনেমা দিয়ে বলিউডে অভিষেক হয় সানা খানের। পরবর্তীতে বলিউডে ‘হাল্লা বোল’, ‘জয় হো’, ‘ওয়াজা তুম হো
ও ‘টয়লেট: এক প্রেম কথা’র মতো সিনেমা করেন। রিয়েলিটি শো বিগ বসের পাশাপাশি ‘ফেয়ার ফ্যাক্টর: খাতরোঁ কে খিলাড়ি’র ষষ্ঠ মৌসুমে অংশ নিয়েছিলেন। ২০১২ সালে জনপ্রিয় ও বিতর্কিত টিভি রিয়েলিটি শো বিগ বসের প্রতিযোগী ছিলেন সানা এবং চূড়ান্ত পর্বে উঠেছিলেন। ক্যারিয়ারে হিন্দি, মালয়ালাম, তামিল, কন্নড় ও তেলেগু ভাষার সিনেমায় দেখা গেছে সানা খানকে। এ ছাড়াও বিজ্ঞাপন ও রিয়েলিটি শোতে দেখা যায় তাকে।

 


   Page 1 of 14
     বিনোদন
তিন কন্যার রূপে আচ্ছন্ন করে রাখে ‌পার্বত্য এলাকায় আসা পর্যটকদের
.............................................................................................
অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা শর্মা আর নেই
.............................................................................................
কোমায় থাকা ঐন্দ্রিলার জীবনে ঘটল মিরাকল!
.............................................................................................
ঢাকায় এসেও নোরা কেন নাচলেন না?
.............................................................................................
ভারতীয় কৌতুক অভিনেতা রাজু শ্রীবাস্তব মারা গেছেন
.............................................................................................
আপাতত ঢাকায় আসছেন না নোরা ফাতেহি
.............................................................................................
অভিনেতা আনিসুর রহমান মিলনের স্ত্রী মারা গেছেন
.............................................................................................
গাজী মাজহারুলের মৃত্যুর খবরে হাসপাতালে ছুটে গেলেন শাকিব খান
.............................................................................................
জাতীয় কবি কাজী নজরুলের মৃত্যুবার্ষিকী শনিবার
.............................................................................................
‘কথাটা এভাবে বোঝাতে চাইনি, কথার প্রেক্ষিতে বলেছি’
.............................................................................................
অবশেষে মেয়ের বিয়ের সুখবর দিলেন সুনীল শেঠি
.............................................................................................
বিমানবন্দরে একই দিনে শাকিব অপু!
.............................................................................................
খুলনার সিনেমা হলে দর্শকের জোয়ার!
.............................................................................................
বিবাহবার্ষিকীতে মৌসুমীকে নিয়ে ওমর সানির প্রত্যাশা
.............................................................................................
সালমান খানের পর ক্যাটরিনাকে হত্যার হুমকি, থানায় মামলা
.............................................................................................
স্বামীর সঙ্গে হজে গিয়ে স্বপ্নপূরণ সানার
.............................................................................................
সুশান্ত সিং রাজপুতের রহস্যময় মৃত্যুর দুই বছর
.............................................................................................
‘ঢাকার গুলশান-বনানীতে যে শান্তি, এখানেও একই শান্তি’
.............................................................................................
বিরল রোগে আক্রান্ত জাস্টিন বিবার, অবশ হয়ে গেছে মুখ!
.............................................................................................
বাবা হারালেন ঐশী
.............................................................................................
ভালোবাসা হৃদয় না বিজ্ঞানের খেলা!
.............................................................................................
‘নোলক’ ছবি নিয়ে নতুন জটিলতা!
.............................................................................................
রাজকুমারের সঙ্গে ঐশ্বরিয়ার রোমান্স!
.............................................................................................
চটেছেন ক্যাটরিনা!
.............................................................................................
রবিবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রদান করবেন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
ফিরছেন স্পাইডারম্যান!
.............................................................................................
মেয়ের প্রেমিককে নিয়ে মুখ খুললেন প্রিয়াঙ্কার মা
.............................................................................................
বিরুষ্কাকে আইনি নোটিশ
.............................................................................................
শপিং মলে হঠাৎ পড়ে গেলেন কাজল, ভিডিও ভাইরাল
.............................................................................................
যে ভাবে ১৬৭ কেজি ওজন কমিয়েছিলেন আদনান সামি
.............................................................................................
‘পঞ্চাশ বছর বাঁশিতে ফুঁ দেওয়া আত্মার চাওয়াটা যেন পূর্ণ হয়’
.............................................................................................
ঈদের তৃতীয় দিন চ্যানেল আইতে ‘আলতাবানু’
.............................................................................................
বাংলাফ্লিক্সে শুভর ‘ভালো থেকো’
.............................................................................................
‘অপহরণ’ ও ‘ভয়ংকর রাত’ নিয়ে ফিরছেন লাভলু মিয়া
.............................................................................................
ঈদে ছোটপর্দায় ‘পোড়ামন’
.............................................................................................
আবার ফিরছে অক্ষয়-কারিনা জুটি
.............................................................................................
নায়িকা হিসেবে কেমন দেখাবে
.............................................................................................
ঈদে মেহজাবীনের ‘অমিত্রাক্ষর’
.............................................................................................
হুমায়ুন ফরিদীর ৬৬তম জন্মদিন আজ
.............................................................................................
শাকিবের সাথে শুটিং; কক্সবাজারে কলকাতার পায়েল
.............................................................................................
২২ বছর পর শ্বশুরবাড়িতে মৌসুমী
.............................................................................................
বাংলাদেশ ছাড়ার পর কী বললেন প্রিয়াঙ্কা
.............................................................................................
শিফন শাড়িতে লালপরী জ্যাকলিন
.............................................................................................
আবেদনময়ী পোশাকে শ্রীদেবীকন্যা
.............................................................................................
‘যানজটে’ পড়ে এলেন না মমতাজ
.............................................................................................
‘ওয়্যারেবল আর্ট গালা’ অনুষ্ঠানে সোনালী পোশাকে বিয়ন্সে
.............................................................................................
বলিউডের সবচেয়ে দামি নায়িকারা
.............................................................................................
পিচ্চি জয়ের কলকাতা জয়
.............................................................................................
২৬ মার্চের বিশেষ নাটক ‘যুদ্ধশিশু’
.............................................................................................
‘ক্ষত’ দিয়ে নতুন পরিচয়ে পরীমনি
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
চেয়ারম্যান: এস.এইচ. শিবলী ।
সম্পাদক, প্রকাশক: জাকির এইচ. তালুকদার ।
হেড অফিস: ২ আরকে মিশন রোড, ঢাকা ১২০৩ ।
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: বাড়ি নং ২, রোড নং ৩, সাদেক হোসেন খোকা রোড, মতিঝিল বা/এ, ঢাকা ১০০০ ।
ফোন: 01558011275, 02-৪৭১২২৮২৯, ই-মেইল: dtvbanglahr@gmail.com
   All Right Reserved By www.dtvbangla.com Developed By: Dynamic Solution IT Dynamic Scale BD & BD My Shop    
Dynamic SOlution IT Dynamic POS | Super Shop | Dealer Ship | Show Room Software | Trading Software | Inventory Management Software Computer | Mobile | Electronics Item Software Accounts,HR & Payroll Software Hospital | Clinic Management Software Dynamic Scale BD Digital Truck Scale | Platform Scale | Weighing Bridge Scale Digital Load Cell Digital Indicator Digital Score Board Junction Box | Chequer Plate | Girder Digital Scale | Digital Floor Scale